ইউজার লগইন

Sorry বন্ধু তোকে বুঝতে পারিনি

মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে।
কি বললে??
যা শুনেছ তাই বলেছি।
কিন্তু কেন??
তা ভাল করে বলতে পারছি না।কিন্তু যা শুনলাম তাতে মনে হল কোন এক ছেলে এর জন্য।ছেলে টি তাকে কষ্ট দিয়েছে তাই মেয়েটি গলায় দড়ি দিয়েছে।

এটা কোন কথা হল!!! একটা সাধারণ বিষয় নিয়ে কষ্ট পেয়ে মেয়ে টা এভাবে নিজেকে শেষ করে দিল!!!

এটা কোন সাধারণ বিষয় না।খুব সিরিয়াস কোন বিষয় বলে মনে হচ্ছে। তা না হলে এভাবে এত বড় একটা কাজ করে ফেলতে পারেনা।
যতটুকু আমি জানি মেয়েটা খুব শক্ত ছিল।সবাই যা বলছে তাতে মনে হচ্ছে ঠিক মনে হচ্ছে না সত্যি টা হল ছেলেটা চিট করেছে। মেয়েটা কে ঘুরিয়েছে। কতটা খারাপ হতে পারে মানুষ।এমনকি মেয়েটা মারা গিয়েছে শুনে ঐ জানোয়ার টা বলেছে
যা হয়েছে ভাল ই হয়েছে। বেঁচে গেলাম আমি।
আসলে এসব জানোয়ারদের জন্য কেন যে মানুষ নিজের জীবন টা কে এতটা এভাবে শেষ করে দেয়!!! আমি বুঝতে পারিনা।

কিন্তু ও এটা কোন কাজ করল!!নিজের জীবন টা কি এতটা সস্তা ??ওর মা বাবার কথাটা একবার ও চিন্তা করলনা?? সমাজের মানুষ কি ভাববে ??কতটা অবুঝ একটা মেয়ে।তাও যদি একটা ভাল ছেলের জন্য করত।করল একটা ছ্যাকড়া ছেলের জন্য।
আমিও তোমার কথাই মানলাম।আসলেও ঠিক কাজ করেনি।কিন্তু-----
কিন্তু কি??
কিন্তু ও দিনের পর দিন যেভাবে হাউমাউ করে কেঁদেছে সেই কাঁদা তো কেউ থামাতে আসেনি। যেভাবে বালিশের মধ্যে মুখ গুঁজে দাঁতে দাঁত চেপে জমানো কষ্ট চেপে গিয়েছিল সেই কষ্ট কেউ দেখেনি।বলার লোকের অভাব নেই মন্তব্য করার লোকের অভাব নেই কিন্তু কি কারনে নিজের জীবন টা শেষ করে দিল কেউ একবার ও ভাবেনি। সবাই যা মুখে আসে যা মনে আসে তাই বলে যায় কিন্তু একবার ও তাদের জীবন এর গল্প শোনার লোকের সময় নেই। সুইসাইড করে কেন?করবে ই তো।
কারন টা জেনে মুখে ইসস করে একটা শব্দ করা ছাড়া আর কিছু করার থাকেনা।কিন্তু কেউ যদি নিজেদের একটু সময় বের করে তাদের গল্প শুনতে পারতেন তাদের মাথায় একটু হাত রেখে বলতে পারতেন যে কেউ আছে তার সাথে তার পাশে তাহলে হয়তো বা কত মেয়ের জীবন বেঁচে যেত।কিন্তু আজকাল কেউ তা করে না।কারন কারও হাতে এত সময় নেয়।কি লাভ তার গল্প শুনে???তাই তো!! যদি তাই করতে না পারেন তাহলে এসব মন্তব্য করবেন না প্লীজ!!!

আমরা হয়তো সবসময় ভুল মানুষ কে ভালোবেসে ফেলি।তাই এতো কষ্ট পাই। কারন আমদের কে এত বুঝানোর সময় নেই মানুষের। খুব স্বার্থপর এ দুনিয়া। সবাই নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত তো তাই। আসলে দোষ টা তো এ সমাজের।তাহলে আমদের মত টিনএইজ মেয়েরা সুইসাইড করতে বাধ্য তো হবেই!!!তাই না??? তাই তো।

মেয়েটা কাউকে বলতে পারেনি।মা কে ও না বাবাকে ও না। কেন বলবে ।তারা জানতে পারলে তাকে মারধোর করবে। কোন কথা শুনতে চাইবে না। আসলেও তাই। বাঙালি জাতির স্বভাব হল কিছু হোক আর না হোক মারধোর করলে যেন সব ঠিক হয়ে যাবে ।আসলে ও কি তাই??

কেন আমাদের আমদের বাবা মা কে আমরা সব খুলে বলতে পারি না।কেন তাদের কে এতটা দূরে সরিয়ে রাখি শুধু মারধোর করবে তার ভয়ে!!!তাহলে নিজেদের দিকে তাকিয়ে দেখুন আমরা কি আমাদের সন্তানদের দূরে সরিয়ে রাখছি না??তাহলে আমাদের সন্তান রা ভুল করবে না কেন??? অবশই তাদের ভুল করা টা ন্যায়সঙ্গতও বটে !!! বাহ কি যুগ চলে আসছে!!!! কতটা দূরে সরিয়ে রেখছে আমদের কে।আবার ভুল করলে ও কিনা আমদের দোষ। তাহলে কেন আমরা ভুল করব না??উত্তর টা আপনারা ই ভাল করে দিতে পারবেন বলে আমি আশা করি।

পোস্টটি ১৫ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

বিষণ্ণ বাউন্ডুলে's picture


এবি তে স্বাগতম।

লেখা চলুক। শুভকামনা।

অচেনা  আমি's picture


Smile

উচ্ছল's picture


Welcome
ভালো থাকুন, লিখতে থাকুন। Smile

কামরুল হাসান রাজন's picture


অনেকদিন পর ব্লগে আসলাম। বিষণ্ণ বাউন্ডুলের কমেন্ট দেখে মনে হল নতুন অতিথি। স্বাগতম এবিতে Smile

আপনার নিজের সম্পর্কে লেখা পড়ে মজা লাগল Laughing out loud কিন্তু গল্প বা ব্লগর ব্লগর যেটাই লিখেছেন সেখানে মনে হয় কিছু কিছু জায়গায় যতি চিন্হ বা কোটেশন মার্কের ব্যবহার লেখাটাকে আরো সুন্দর করত Puzzled

লিখতে থাকুন Smile

অচেনা  আমি's picture


জী অবশ্যই !!! আমি সেই লিখার চেষ্টা করব ৷ ধন্যবাদ আপনাদের ৷

তানবীরা's picture


হুম

অচেনা  আমি's picture


Stare

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.