ইউজার লগইন

মাইনষের সাথে কথাবার্তা - ৫

ঘটনা বেশ আগের। সাড়ে চার টাকা মিনিট আমলের। হলে থাকি তখন। আমার রুম মেইন বিল্ডিং-এ কিন্তু সারাদিন পড়ে থাকি নিউ বিল্ডিং আর অনার্স বিল্ডিং-এর দুই বন্ধুর রুমে। এদের মধ্যে একজন তখন চাকরিজীবি, সে সারাদিন চাকরি করে, আর আরেকজন ফার্স্ট ইয়ার থেকে 'ভালবাসার টানে' ঘর ছেড়ে হলে, তাই রাতদিন টিউশনি করে বেড়ায়। চাকরিজীবি অফিস থেকে ফিরে আমার একটু খবর নেয়, না নিয়ে কোন উপায় নাই যেহেতু আমি তার বিছানায় গড়াগড়িরত। তারপর তিনি যথাসম্ভব মাঞ্জা মেরে প্রেম করতে বেড়িয়ে যান। টিউশনিওলা হলের গেইট বন্ধ হবার আগে ফিরেন না। ৯.৩০টার সময় গেইট বন্ধ হবার পর তারা দুইজন সারাদিনের খাটাখাটনিতে বিধ্বস্ত হয়ে ফিরে আসে। আমরা একসাথে ডাইনিং-এ গিয়ে কিছু একটা খাই। তারপর কয়েকঘন্টার আড্ডা শেষে ঘুম। শুনে মনে হইতেছে আমার জীবনে এমন মধুর সময় আর আসেনাই। সেটা ঠিকনা, ঐ সময়টায় জীবনের একটা ভয়াবহ সময় কাটাচ্ছিলাম। সবথেকে ঝামেলার সময়ের ড়্যাংকিং যদি করি তাহলে ঐ সময়টা দ্বিতীয় হবে। যাই হোক, তারপর-ও আমি আমার স্বভাবসিদ্ধ গায়ে বাতাস লাগায়ে ঘুরে বেড়ানো চালায়ে যাচ্ছিলাম।

তো ঐ সময়ে হঠাৎ বাংলালিংকের মনে হইল দেশের মানুষকে টেক্সট করা শিখাইতে হবে, তারা কথা নাই বার্তা নাই ৩০০ এসএমএস ফ্রি করে দিল। আমার তেমন একটা প্রতিক্রিয়া হয়নাই, কিন্তু আমার প্রেমিকা বন্ধুরা মহা খুশি। কয়েকদিন পরেই অবশ্য তাদের খুশিটা মেজাজ খারাপে রুপান্তরিত হইল যখন নানান রকমের অপরিচিত মানুষ তাদেরকে নানান রকম আবেদন নিবেদনে ঠাসা টেক্সট পাঠানো শুরু করল। একেক টেক্সট একেকরকম। কেউ রোমানে বাংলা লিখে, কি লিখছে সেইটা ডিসাইফার করতে আমাদের সারারাত পার হয়ে যাইত। তবে 'I want to friendship you', 'i wanna to freinding you', 'will you my frend', 'i like you, plise frent me' এই ধরনের মেসেজ আসতো বেশি। তো বেশিরভাগ-ই একবারের বেশি দুইবার পাঠাতো না, আন্দাজি নাম্বারে টেক্সট পাঠানো হচ্ছে, রিপ্লাই যেটা থেকে না আসে সেইটাতে রিপিট টেক্সট পাঠানো লাভজনক না এই বুদ্ধিটুক তাদের ছিল।

কিন্তু একদিন একজনকে পাওয়া গেল যার এই বুদ্ধিটুক নাই। সে চাকরিজীবি বন্ধুর মোবাইলে দিনরাত টেক্সট করতে লাগল, কেন তাকে জবাব দেয়া হচ্ছেনা, সে তো শুধু বন্ধুই হতে চেয়েছে আর কিছু চায়নাই, মেয়েরা যে হৃদয়হীন হয় সেটা নাকি চাকরিজীবি বন্ধুর জবাব না দেয়া দেখেই বুঝা যাচ্ছে। তিনদিন পর অতিষ্ট বন্ধু জবাব দিল, সে অচেনা মানুষের সাথে কথা বলতে আগ্রহী না, তাই তাকে যেন আর বিরক্ত না করা হয়। এরপর বিপদ আরো বাড়ল। ছেলে বিরাট উৎসাহে টেক্সটের পর টেক্সট করতে লাগল, অচেনা মানুষকে চেনার চেষ্টা না করলে কিভাবে কারো সাথে কারো চেনাজানা হবে, সে ছেলে হিসাবে ভাল, বিরক্ত করেনা কাউকে, তাই বন্ধুর বিরক্ত হওয়াটা মোটেও ঠিক হয়নাই, বন্ধুত্বের হাত বাড়ালে বিরক্ত হলে কিভাবে কেউ কারো বন্ধু হবে ইত্যাদি ইত্যাদি। টেক্সটের বাণে জর্জরিত বন্ধু এরপর সরাসরি এ্যাকশনে চলে গেল, প্রেমিককে ঐ ছেলের নাম্বার দিয়ে দিল। প্রেমিক কি বলছে কে জানে, ছেলের পরের টেক্সটে আসল বিরাট রাগমূলক বার্তা, এইরকম বাজে মেয়ে সে জীবনে দেখেনাই, এইরকম মেয়ে তার ফ্রেন্ড না হইলেই ভাল! আমার বন্ধু মোটামুটি হৃদয়হীনভাবেই পাল্টা টেক্সট ব্যাক করল, 'go to hell'। এরপরে ছেলে যেই টেক্সটটা পাঠালো, সেটা আমার জীবনে দেখা সেরা টেক্সট। টেক্সটটা ছিল 'fuke you'! আমার বন্ধুর ঠান্ডা মাথার জবাব, 'আগে ঠিক বানানটা শিখো, তারপর কাজটা করার চেষ্টা করো'!

-----------

শুরুর দিকে মোবাইল ফোনের উটকা কল/টেক্সট একটা বিরাট ঝামেলা ছিল। বারবার নাম্বার পাল্টানো সম্ভব না, তাই উটকা কল এড়ানোর জন্য আমি নাম্বারগুলা সেইভ করে রাখতাম। একটা সময় আসলো যখন আমার ফোনে পরিচিত মানুষের নাম্বারের বদলে এদের নাম্বার বেশি হয়ে গেল। নানান নামে তারা আমার ফোনের কন্ট্যাক্ট লিস্টে বিদ্যমান থাকত, 'বদ', 'বদমাইশ ১', 'বদমাইশ ২', বদমাইশ ৩', 'যন্ত্রনা', 'বিরক্তিকর', 'আজাইরা', 'ফাজিল', 'শয়তান', 'কমেডি', 'শালা' এইগুলা আপাতত মনে পড়তেছে। ফোনে 'ফাজিল কলিং' অথবা 'শয়তান কলিং' দেখাটা বড়-ই আমোদের বিষয় ছিল। তবে একবার আমার খালার হাতে থাকা অবস্থায় 'বদমাইশ কলিং' জ্বলতে নিভতে থাকায় বিরাট বিপদে পড়ে গেছিলাম। বদমাইশ কে, কেনো আমাকে ফোন করে, আমার নাম্বার কই পাইল, নিশ্চয়ই আমি দিছি নাইলে নাম্বার পাবে ক্যামনে ইত্যাদি প্রশ্ন আর সন্দেহে ভর্তা হয়ে গেলাম। ফোন কেড়ে নেয় কেড়ে নেয় পরিস্থিতি! মুরুব্বি শ্রেনীর লোকজন মহা যন্ত্রনার বস্তু। আসলে এদের নাম-ই যন্ত্রনা ১, যন্ত্রনা ২, যন্ত্রনা টু দি পাওয়ার ইনফিনিটি, এইভাবে সেইভ করার দরকার ছিল।

------------

লেখাটা ঠিক কথাবার্তা হইল না। ব্যাপার না। পরশু একটা ছবি ব্লগ পোস্ট করার চেষ্টা চরিত্র করা হবে। আদিওস!

পোস্টটি ১৩ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

রাসেল আশরাফ's picture


লেখাটা কথাবার্তা না হইলেও তার আশ পাশ দিয়ে গেছে।

পরশুর ছবির অপেক্ষায় থাকলাম।

একলব্যের পুনর্জন্ম's picture


হাহাহা Wink

কি খবর আপু ? কেমন আছেন ?

একলব্যের পুনর্জন্ম's picture


ওহ ! আগের পোস্টে আপনার কমেন্ট টা দেখি নাই Sad

আপনার সাথে ব্লগের বাইরে কন্ট্যাক্ট করার একটা উপায় বলেন তো আপু....

কিছু বলার নাই's picture


একটা মেইল পাঠাইও... nowhere.girl81 এ্যাট জিমেইল।

হাসান রায়হান's picture


'আগে ঠিক বানানটা শিখো, তারপর কাজটা করার চেষ্টা করো'!

জট্টিল! যদিও বানানের সাথে সাফল্যজনকভাবে কাজটা করার কোনো সম্পর্ক নাই।

মীর's picture


আগে ঠিক বানানটা শিখো, তারপর কাজটা করার চেষ্টা করো!

জট্টিল! যদিও বানানের সাথে সাফল্যজনকভাবে কাজটা করার কোনো সম্পর্ক নাই।

বিষাক্ত মানুষ's picture


জুশ Big smile

লীনা দিলরুবা's picture


দারুণ লেখা। মৌসুমের এই সিরিজটা নিয়মিত চাই।

টুটুল's picture


রায়হান ভাইয়ের সাথে একমত Smile

১০

হাসান রায়হান's picture


রতনে রতন .. Cool

১১

মেসবাহ য়াযাদ's picture


কী কমু ভাবতাছি

১২

টুটুল's picture


ভাইবা ফয়দা নাই Wink

১৩

হাসান রায়হান's picture


ইয়াজিদ ভাই মনে লয় বানান কইরা .... Laughing out loud খেক খেক খেক

১৪

শওকত মাসুম's picture


লেখাপড়া জানে যে
সঠিকভাবে করে সে Tongue

১৫

মেসবাহ য়াযাদ's picture


আপনার কথার মাজেজা কী দাঁড়াইলো ?
রায়হান ভাই পারেনা (পারলে কী আর--- থাক আর না বলি),
তার মানে কি উনি লেখাপড়া করেন নাই ??

১৬

লিজা's picture


মাইনষের সাথে কথাবার্তা - ৪ সেই তিন মাস আগে দিছিলেন । আর একটু জলদি দিতে পারেন না? এইটা পড়তে মজা লাগে ।

১৭

রায়েহাত শুভ's picture


মজা লাগলো।
আর ফটুব্লগের লাইগা অধীর অপেক্ষায়...

১৮

শর্মি's picture


চাকরিজীবিটা যে এহেন নির্দয় এটা জেনেও ছেলেটা টেক্সটগুলোর সদব্যবহার অন্য জায়গায় করেনাই।

সেইরকম ডেডিকেশন, য়্যা? Love

১৯

মাহবুব সুমন's picture


কত যে অসুস্থ মানুষ আছে এ দুনিয়ায় Sad

২০

গৌতম's picture


আমার কয়েকজন নারী-বন্ধুকে বেশ কিছু ছেলে এরকম যন্ত্রণা করতো। তাদেরকে বলতাম কল ধরে রেখে দিতে। টাকার মায়া সবারই আছে, আর কতোক্ষণই বা একা একা কথা বলা যায়! ব্যস, দু-তিন দিন যন্ত্রণা করার পর বন্ধ।

আরেকটা উপায় আছে। ইন্টারনেটে কিছু 'বদ' সাইট পাওয়া যায়। এক বন্ধু নিজের নাম 'সুরভী' লিখে সেখানে উত্যক্তকারীদের ফোন নম্বর দিয়ে দিয়েছিল। 'বন্ধুত্বে উৎসাহী' ইন্টারনেট বন্ধুদের অত্যাচারে এক ঘণ্টার মধ্যে সবকটি নম্বর বন্ধ হয়ে গিয়েছিল।

২১

জ্যোতি's picture


জুশ মজা

২২

সাঈদ's picture


একটা ভিডিও ক্লিপিং দেখেছিলাম, একটা মেয়েকে ফোনে জ্বালাতো একটা ছেলে, মেয়েটা তারপর পোষ্টার ছাপায় - বাড়ী ভাড়া হবে, ৫০০০ টাকায় ২ বেড রুমের ফ্ল্যাট, ধানমন্ডিতে, ব্যাচেলর দের জন্য, আর কন্ট্যাক্ট নম্বর - ঐ ছেলের নম্বর দেয়।

এতেই কাজ হয় ।

ইংলিশ গুলা পড়ে বেশ মজা পাইলাম।

Dont heart Tongue me

২৩

তানবীরা's picture


মৌসুম আমাদের কথাবার্তাগুলো মনে পইড়া গেলোরে Wink Tongue Big smile

২৪

বিষণ্ণ বাউন্ডুলে's picture


মজারু। Big smile

এই সিরিজ পুনঃজীবিত করা হওক! Smile

২৫

রশীদা আফরোজ's picture


সুখপাঠ্য।

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

কিছু বলার নাই's picture

নিজের সম্পর্কে

কিছু বলার নাই