অনুসন্ধান

ইউজার লগইন

অনলাইনে

এখন জন সদস্য অনলাইন

অনলাইন সদস্য

বিনা কাজে বাহির নাহি হইয়ো

গীতি কবিতা / বিনা কাজে বাহির নাহি হইয়ো
আহসান হাবিব
২৫/১/২০২২

শোন বাহে শোন খবর করোনা বেড়েছে জন্বর
বিনা কাজে বাহির নাহি হইয়ো।
কষিয়া পড়িছে জার,কি যে ঠান্ডা বলা ভার
সদা গরম কাপড় পরে রইয়ো।
বিনা কাজে বাহির নাহি হইয়ো।

প্রশাসনের যত ভাই সবারে সালাম জানাই
গরীব অসহায়ের প্রতি সহায় সদা হইয়ো
আছেন যত ধনীজন ভাবিয়া সবাইকে আপন
সহায়তার হাতখানি বাড়াইয়ো।
বিনা কাজে বাহির নাহি হইয়ো।

করোনা পজেটিভ আছেন যত ডাক্তারের কথামত
ঔষধ পথ্য সময় মতো খাইয়ো।
মাক্স পড়ে সবখানে, হাটে ঘাটে কিংবা যানবাহনে
সদা সতর্ক রইয়ো।
বিনা কাজে বাহির নাহি হইয়ো।

ওগো খোদা দয়াময়, তোমা হুকুমে সব হয়
দয়া করে মহামারি উঠাই লও গো
মোরা পাপী গুনাহগার তবু বান্ধা তোমার
ক্ষমা চাই ক্ষমা করে দাও গো
বিনা কাজে বাহির নাহি হইয়ো।

আমার আমার করি সদাই

গীতিকবিতা/আমার আমার করি সদাই
আহসান হাবিব
২৩/১/২০২২
আমার আমার করি সদাই
আমার তো নয় কিছু
তবু আমি সদাই ব্যস্ত
আমার করিতে সব কিছু।।

বাদশা সুলায়মান, জুলকারনাইন
সারা দুনিয়ায় রাজত্ব
পাইক পেয়াদা যত্র তত্র।
সাথে কত সৈন্য সামন্ত
কিছুই কি তার সাথে গেল
সব কিছুই রেখে গেলো
রেখে গেলো পিছু।
তবু আমি সদাই ব্যস্ত
আমার করিতে সব কিছু।।

আমার চলন আমার বলন
আমার যত আস্ফালন
নয় কভু কোন কাজে
বীণার সুরে নাহি বাজে
আমি না চাই তবু একদিন
ছাড়িবে
ছাড়িবে মম পিছু।
তবু আমি সদাই ব্যস্ত
আমার করিতে সব কিছু।।

কেউ আজ কেউ কাল

কেউ আজ কেউ কাল
আবুল হোসেন
২১/১/২০২২

ছয়দিন ছুটি কেমনে যে চলে গেল টেরই পেলাম না।
আজ (২১.১.২০২২) সকাল আটটার মধ্যে অফিসে যোগদান করার কথা। কিন্তু প্রথম থেকে প্রজেক্ট ম্যানেজাট, ক্যাম্প কমান্ডার এর সাথে সম্পর্ক ভালো থাকায় আর শুক্রবার এমনিতেই ছুটি তাই দেরীতে যাবার সিদ্ধান্ত নিলাম।
আমার বাসা মানিকদী, অফিস কাম রেসিডেন্স হাসনাবাদ বসুন্ধরা রিভারভিউ সিটিতে।
আমার ইন্জিনিয়ারিং এ পড়ার বন্ধু মাহমুদুর রহমান খোকন হার্টের ও আরো কিছু সমষ্যা নিয়ে স্যার সলিমুল্লা মেডিকেলে ভর্তি আছে।
যাবার সময় ওকে দেখে যাব তাই এই দেরী করার সিদ্ধান্ত।
আজ শুক্রবার, গিন্নীরও অফিস নাই। ওকেও সাথে নেই। একসাথে আরো কয়েক ঘন্টা থাকা যাবে, আর ওরও একটু রিলাক্স হবে।

হেরে যাবো তব সাথ।

গীতি কবিতা/ হেরে যাবো তব সাথ
আহসান হাবিব
১৮/১/২০২২

আমি ভেসে যাবো ডুবে যাবো
হেরে যাবো তব সাথে
তুমি মোর হংস বলাকার পাখা,
তুমি মোর মেঘে বেয়ে চলা ভেলা
থেকো গো আজীবন,থেকো নিঃসীম শুন্যে,
সকাল দুপুর রাতে।
আমি ভেসে যাবো ডুবে যাবো
হেরে যাবো তব সাথে

ওগো ঝরঝর বৃষ্টির রাতে,
ঝড় ঝঞ্জা বিজলীর সাথে
প্রলয়ঙ্কারী ঝঞ্জা দিকদিগন্ত হতে
আসুক না ঝঞ্জা আসুক না।
শুধু তুমি থেকো তুমি থেকো মোর সাথে
আমি ভেসে যাবো ডুবে যাবো
হেরে যাবো তব সাথে।

ওগো স্রোতস্বিনী, ওগো তটিনী, ওগো জলাঙ্গী
ওগো ভরা জোয়ারী,ওগো ক্ষুধা, তৃষ্ণা নিবারী,
দূঃখ জরা শোক, হাসি শান্তি সুখ
সকলি সকলি দেয় গো বিধাতা
তব বিনা যায় না কিছু সাথে।
আমি ভেসে যাবো ডুবে যাবো হেরে যাবো তব সাথে।

তাতেই আমি ধন্য হয়েছি

গীতিকবিতা/ তাতেই আমি ধন্য হয়েছি।
আহসান হাবিব
১৫/১/২০২২

সেদিন তোমান পাইনি তাতে কি
আজ তো পেয়েছি।
আজ পেয়েছি তাতেই আমি ধন্য হয়েছি।

কারো শুরুটা তেরোর ঘরে
কারো হয় বিশ পঁচিশে
আমার না হয় দেরীতেই শুরু
হলো তা চল্লিশে।
ভাটায় ভাটায় চলার চেয়ে
জোয়ারে চলাই ভালো,
তাইতো হাল ধরেছি।
আজ পেয়েছি তাতেই আমি ধন্য হয়েছি।

টনটনা প্রেমের বান ডাকছে
দক্ষিণা হাওয়ায় হাওয়ায়
দিগন্তে তা ছুটে বেড়ায়
হংস বলাকার পাখায়
তটিনী তরঙ্গে উথাল পাথাল যৌবন
কি যে কি পেয়েছি।
আজ পেয়েছি তাতেই আমি ধন্য হয়েছি।

তাতেই আমি ধন্য হয়েছি

গীতিকবিতা/ তাতেই আমি ধন্য হয়েছি।
আহসান হাবিব
১৫/১/২০২২

সেদিন তোমান পাইনি তাতে কি
আজ তো পেয়েছি।
আজ পেয়েছি তাতেই আমি ধন্য হয়েছি।

কারো শুরুটা তেরোর ঘরে
কারো হয় বিশ পঁচিশে
আমার না হয় দেরীতেই শুরু
হলো তা চল্লিশে।
ভাটায় ভাটায় চলার চেয়ে
জোয়ারে চলাই ভালো,
তাইতো হাল ধরেছি।
আজ পেয়েছি তাতেই আমি ধন্য হয়েছি।

টনটনা প্রেমের বান ডাকছে
দক্ষিণা হাওয়ায় হাওয়ায়
দিগন্তে তা ছুটে বেড়ায়
হংস বলাকার পাখায়
তটিনী তরঙ্গে উথাল পাথাল যৌবন
কি যে কি পেয়েছি।
আজ পেয়েছি তাতেই আমি ধন্য হয়েছি।

অন্য প্রাণীরা

ফ্রাঙ্কফুর্টের দূরপাল্লার ট্রেনস্টেশনে নামার সময় কেন যেন বিরক্তি ভন ভন কর‍ছিল মাথার মাঝে মাছির মতো। কিসের ওপর যে বিরক্তি তা বুঝতে পার‍ছিলাম না। দুই দিনের জন্য বান্ধবীর সাথে দেখা করতে তার শহরে যাচ্ছি। সাড়ে তিন ঘন্টার মাত্র জার্নি। টিকেটও পেয়েছি দারুণ সাশ্রয়ী মূল্যে। সারাদিনে যা কিছু ঘটেছে আমার সাথে তাতেও খুব একটা খারাপ কিছু ছিল না। তারপরও আজাইরা বিরক্তি মাথাটাকে কুড়ে কুড়ে খাচ্ছিল।

ফ্রাঙ্কফুর্টের ছিল ট্রেন বদলের পালা। তার আগে দেড় ঘন্টার মতো জার্নি করেছি। এখন মিনিট বিশেকে বিরতি এবং তারপর আরও দেড় ঘন্টা কি তার একটু বেশি। স্টেশনে দাঁড়িয়ে ধূমপানের কোনো উপায় নেই। স্টেশন থেকে বের হয়ে ধূমপান করতে হয়। ভাবলাম হাতে সময় আছে যেহেতু কাজটা করেই ফেলি।

পাশের গ্রামের চিকন কালা

গীতিকবিতা/ পাশের গ্রামের চিকন কালা
আহসান হাবিব
১১/১/২০২২

পাশের গ্রামের চিকন কালা বাবরী চুলের বাঁশিওয়ালা
আমায় থাকতে দিল না ঘরে।
সখী গো মন যে আমার সদাই তার লাগি
বাইরাম বাইরাম করে।।

কৃষ্ণের বাশীর সুর কেমন ছিল নাইতো আমার জানা
চিকনার বাঁশি নরম দিলটা আমার করলো ফানা ফানা।
বইতেও দেয় না শুইতেও না,ঘুমাইতে গেলে ঘুম আসে না
মনটা ছটফট ছটফট কইরা মরে।
আমায় থাকতে দিল না ঘরে।।

সকাল দুপুর গভীর রাইতে,বাজায় বাশি চিকন কালা
সে তো বাজায় মনের সুখে আমার জান হয় ঝালাপালা
আমি কি করিব কোথায় যাব কতদিন আর চাপায় রাখবো
কি হবে সকলে জানলে পরে।
আমায় থাকতে দিল না ঘরে।

কেন খেলিস লুকোচুরি

গীতিকবিতা/ কেন খেলিস লুকোচুরি
মোঃ আবুল হোসেন
৭/১/২০২২

কেন খেলিস লুকোচুরি , কেন খেলিস না আসলে
সকাল দুপুর গেল চলে বিকাল টাও যাবে বিফলে।কেন খেলিস লুকোচুরি , কেন খেলিস না আসলে

বর্ষা কালে ভেকের খেলা সদাই ডাকে গেঙর ঘেঙ
সবাই বুঝে সঙীর খোঁজে মাতোয়ারা হয়েছে ব্যাঙ
তোর কেন রাখডাক এত চলে আয় সকল ভুলে।
কেন খেলিস লুকোচুরি, কেন খেলিস না আসলে।

কালিবিহীন কলমটাও দামহীন ডাষ্টবিনে জায়গা মেলে
বৃষ্টির পরে ছাতাটাও ভারি ইচ্ছে হয় দেই ফেল
কেউ পুষবে না ওরে দেমাগী সাধের যৌবন
চলে গেলে
কেন খেলিস লুকোচুরি, কেন খেলিস না আসলে।

আমারে ছাড়িয়া

গীতিকবিতা/ আমারে পাগল করিয়া
আহসানুল হাবিব
২৮/১২/২০২১
আমারে পাগল কইরা ছাইড়া যাইও না।
তোমার মতো দয়াল বন্ধু কোথাও পাবো না।
জীবন যৌবন সব সপিলাম হইয়া দিওয়ানা।
কত খেলা খেল তুমি বুঝতে পারি না।
আমারে পাগল কইরা ছাইড়া যাইও না।

ছোট্ট প্রাণী মাকড়সা জাল বানায় কি যতনে
দৈর্ঘ্য প্রস্থ সঠিক মেনে জাল বানায় প্রতি ক্ষনে
কিসের আঠা লাগায় জোরা দিতে জাল আমার মাথায় আসে না।
কত খেলা খেল তুমি বুঝতে পারি না।
আমারে পাগল কইরা ছাইড়া যাইরা যাইও না।

এই যে দেহ মেশিন খানা,লিখলে কভু শেষ হবে না
ঘুমের ঘুরেও যদি আসে পায়খানা বিছনা তবু খারাপ হয়না
কিযে শিগনাল বানায় রাখছ চোখ কচলায় আর যায় পায়খানা।
কত খেলা খেল তুমি বুঝতে পারি না।
আমারে পাগল কইরা ছাইড়া যাইরা যাইও না।

লীনা আপুর জন্মদিন ও নস্টালজিয়া!

নিউজফিডে অদ্ভুত সব জিনিস ভেসে উঠে। যেমন একটু আগে শুনলাম মানস চৌধুরীর কন্ঠে রাইসুর জনপ্রিয় কবিতা, বড়লোকদের সাথে আমি মিশতে চাই। আমার ভালো লাগে না রাইসুর কবিতা। যে মানস চৌধুরীরা বিশ্বাস করে জ্ঞান অর্জন সহজ কোনো প্রক্রিয়া না, তারাই ব্রাত্য রাইসুর কবিতায় মজে। পাঠ করে শোনায়। যে রাইসু বাতিঘরকে ভারতীয় সম্প্রসারণবাদীদের এক কেন্দ্র ভাবে, সেখানেই তার কবিতা পাঠ হয়। এ পৃথিবী এমনই। আমি যেমন সকাল থেকে পড়ছিলাম লীনা দিলরুবার কবিতা। তিনি ফেসবুকে নাই, ফোনে যোগাযোগও নাই, তার এসব ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা লেখাগুলোই আছে। আগে তো তাও ফেসবুকে থাকতেন, আমার লেখাজোকা নিয়ে মন্তব্য করতেন, উনার লেখা ও চিন্তাভাবনা এবং পড়াশোনা নিয়ে জানতাম। এখন তিনি ফেসবুকে নেই। টেক্সটের রিপ্লাই নাই, এসব শুন্যতা নিয়েই বেঁচে থাকা।

আজ সোমবার৷ বিডিনিউজে গত বছর প্রকাশ পাওয়া লীনা দিলরুবার একটা কবিতার নামও, 'সোম'। কবিতাটা অন্যরকম।

সোম

আমি গান লিখি তোমার জন্য

গীতিকবিতা// আমি গান লিখি তোমার জন্য
আহসান হাবিব
৮/১২/২০২১

আমি গান লিখি শুধু তোমার জন্য
চোখ মেলে যেমন দেখেছি তোমায়
ওগো জন্মভূমি বাংলা মাগো
আজো আছ তেমনি অনন্য।
আমি গান লিখি শুধু তোমার জন্য।
ওগো জন্মভূমি বাংলা মাগো
আজো আছ তেমনি অনন্য।।

পাখির কিচির মিচির গান, ঝরনার কলকল তান
ফসল ফসলে ভরা মাঠ,সারি সারি নৌকায় ভরা নদী ঘাট
সেদিন যেমন বইতো ঝরণা ধারা আজো ঝরছে কত অনন্য।
আমি গান লিখি শুধু তোমার জন্য।

সেদিন বাতাস বইতো শনশন সুরে, ডাকিতো কেকা ঔই দুরে
রাখালের পাল ছুটটো মাঠে, হাটুরে অর্ধ দৌড়ে ছুটতো হাটে।
হাডুডু বল আরো কত খেলা খেলে হোতাম ধন্য।
তাই
আমি গান লিখি শুধু তোমার জন্য।

ঘুম ভাঙ্গা সকালে!

শীতের রাত, ফ্যান চলে না। ঘুমিয়ে গেছি আড়াইটায়, এক মুরুব্বি কন্ঠে অতিরিক্ত ভলিউমের ফজরের আজানে ঘুম ভাঙ্গে, একতলায় বাসা, কুকুরের শব্দেও বিরক্ত লাগা শুরু হয়। লাইট জ্বালিয়ে ঘুমাই, দু চারটে মশাও গুনগুনিয়ে উঠে। ঘুম ভেঙ্গে মুখ তিতে হয়ে আসে। কিছুক্ষণ অপেক্ষা করি আবার হয়তো ঘুম আসবে। মোবাইলে ফেসবুক গুতাই। ওতো ভোরে কিছুই নাই। অনেকের পুরাতন পোস্ট ফিডে আসে, তিন চারদিন আগের। নিজের প্রোফাইলে বারো তেরো পনেরো লাইক পাওয়া পোষ্ট গুলোও দেখি। আমার বান্ধবী বলেছিল সে যখন ছিল মোটামুটি সেলিব্রিটি তখন নিজের লাইক দেখে অবাক হতো। রাতে ঘুমাতো না, সারাদিন এসব লেখালেখি একটিভিজম নিয়ে থাকা, নিজের লেখায় নিজেই মুগ্ধ হওয়া। লোকজনের প্রশংসা ও সমালোচনা দুটোকেই খুব সিরিয়াসলি নিত। লোকজনও আপু আপু বলে বিগলিত করতো তার হৃদয়। তারপর সে এসব ছেড়ে ছুঁড়ে ওই আইডি ডিএক্টিভেট করে বসে আছে অনেকদিন। সেজন্যই সে আমার এত ভালো বন্ধু।

তুমিই আমার পাশে থাকবে

গীতিকবিতা/তুমিই আমার পাশে থাকবে
আহসান হাবিব
৩/১২/২০২১

মরণের পরপারে যদি কোন জীবন থাকে
তোমার আমি হবো, কথা দিলাম সখি
তুমিই আমার পাশে থাকবে।
এ দুনিয়া এ প্রকৃতি মানে নি মোদের সখি
মন তবু তোমায় সখি সদাই প্রিয়া প্রিয়া ডাকবে।
তুমিই আমার পাশে থাকবে।।

তুমিতো ছিলেই পাশে আমিও ছিলাম আশে
হঠাৎ কেন কোন ক্ষণে, চলে গেলে কোন অভিমানে
আজ মর্ম জ্বালায় জ্বলি, কি করে তোমায় ভুলি
তুমিও বা কি করে এত ব্যথা সইবে।।
তুমিই আমার পাশে থাকবে।।

আজ যোজন যোজন দুরে, কেকা কেকাক ডেকে মরে
দিন মাস বছর যায়, কেকা কেকার দেখা না পায়
এপারে হলো না হলো না সখা ওপাড়েতে হবে,
তুমিই আমার পাশে থাকবে।।

আমি তো এমনি করেই থাকবো দুরে

গীতিকবিতা //আমি তো এমনি করে থাকবো দুরেআহসান হাবিব
২৯/১১/২০২১
আমি তো এমনি করেই থাকবো দুরে
যদিও মন মানে না, পাব কি আকাশের ঠিকানা
আসুক না দিন মাস বছর যুগ যুগ ঘুরে।
আমি তো এমনি করেই থাকবো দুরে।।

ঐ দেখ বিশাল আকাশ ভালো বাসে জমিনকে
কেউ কি দেখেছে কভু আকাশকে আসতে জমিনেতে
অসীম ভালোবাসার অর্ঘ জমিনকে দেয় বৃষ্টি হয়ে ঝরে
আমি তো এমনি করেই থাকবো দুরে।।

তুমি তো দিয়েছ আড়ি বলবেনা কথা তাড়াতাড়ি
আমি তো বুঝি তোমার মন, মান অভিমানেই যাচ্ছে দিনক্ষন
ভয় হয় ওগো সখা পেয়ে না হারাই তাই থাকি দুরে দুরে।
আমি তো এমনি করেই থাকবো দুরে।।

ব্যানার

আমরা বন্ধু ব্লগের জন্য যে কেউ ব্যানার করতে পারেন। ব্যানার প্রদর্শনের ব্যাপারে নির্বাচকমণ্ডলীর সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত। আকার ১০০০ x ১৫০ পিক্সেল। ইমেইল করে দিন zogazog এট আমরাবন্ধু ডট com এবং সেই সাথে ফ্লিকার থ্রেডে আপলোড করুন ফ্লিকার থ্রেড

● আজকের ব্যানার শিল্পী : নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

ব্যানারালোচনা

সপ্তাহের সেরা পাঁচ