ইউজার লগইন

আমার সন্তানেরা

যখন আমি ভরপেট হাঁসের ঠোঁটের ফাঁক দিয়ে
ঝরে পড়ি অবহেলিত খুদ কুঁড়োর মত
ঝলমলে কলম আমার
ভরন্ত প্রসব বেদনা নিয়ে তখন
গচ্ছিত ভ্রূণ ঢেলে দেয় পরিণত শব্দের প্যাঁচে ।
একেকটা বাঁকানো শব্দ; সুবর্ণলতার চেহারায়
কলমের জরায়ু থেকে বের হয় আশ্রয়ের পরিচিত ঘ্রাণে ।

কলম জগতের শ্রেষ্ঠ প্রসূতি !

ক্লিনিকের শুভ্র বিছানার মতো উষ্ণ কাগজে শুয়ে
আমার সন্তানেরা পিটপিট করে চায় ।
ফসলের বিস্ময়ে কেটে যায় নিষ্ফলা তান ।
আমি পিতৃত্বের চুমু এঁকে দিয়ে
কাঁচা অক্ষরের কানে কানে উচ্চারণ করি-
ভাঙ্গনের কঠিন আযান !

পোস্টটি ৫ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

অতিথি's picture


শেষের লাইন দুটো চমৎকার লাগল।

আশরাফুল আলম's picture


মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ ।

ভাস্কর's picture


কাব্য হিসাবে ভালো।

অবহেলিত কবির চিত্রকল্পটা ইন্টারেস্টিং...তবে ভরপেট খাওয়া হাসের ঠোটের ফাক দিয়া গড়াইয়া পড়ার দৃশ্যের মেটাফর'এর সাথে আবার খুদ-কুড়া'র বিষয়টা সিমিলি হওয়াতে একটু কনফিউশন তৈরী হয়। ভরপেট খাওয়া হাস কি অনেক প্যাক প্যাক করে?

কলমের গর্ভধারণ প্রক্রিয়াটারে আইডিয়া হিসাবে ক্লীশে লাগছে...ক্লীশে আইডিয়াও অনেকসময় অভিনব হইতে পারে, কিন্তু এইখানে কিছু লজিকাল প্রগ্রেশনের মাইরপ্যাচে ক্লীশে বিষয়টারে একটু দূর্বল লাগে। যেমন

ঝলমলে কলম আমার
ভরন্ত প্রসব বেদনা নিয়ে তখন
গচ্ছিত ভ্রূণ ঢেলে দেয় পরিণত শব্দের প্যাঁচে ।

এইখানে কলমের ভূমিকা কি প্রসূতির নাকি বীর্যপাতের সেই কনফিউশন তৈরী হইছিলো শুরুতে...পরে দেখলাম না বিষয়টা স্পষ্টই লেখা আছে। কিন্তু গচ্ছিত ভ্রূণ বলতে কবি কোন বিষয়টারে বুঝাইলেন আমি বুঝি নাই। পরিণত শব্দের প্যাচে যেহেতু তারে ঢাইলা দেয়া হয় তারমানে কলমের ভেতরে কবিতার লাইন বা কবিতার কনটেন্ট গচ্ছিত ভ্রূণ হিসাবে থাকে। কলম কি তারমানে কবির শরীর? বা কলম কি এইখানে কবির প্রজনন অংশীদার? কবি নিজেরে পিতা হিসাবে ভাবতেছেন...কবিতা কি তাইলে কলমের সাথে কবির দ্বান্দ্বিক সম্পর্কোত্থিত কোনো বাস্তবতা?

ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি কবিতার মাতা কিম্বা পিতা উভয় অস্তিত্ব'ই কবির ভেতরকার সত্ত্বা হওয়ার কথা। কলম কেবলই একটা বাহন, কলমের কালি কেবলই চোখের সুষমা তৈরীর সুরমা...কলম-কাগজের দ্বান্দ্বিক সম্পর্ক বা সঙ্গমের রূপকটা বরং ভালো শুনাইতো হয়তো। কবির সাথে কলমের সঙ্গম অর্থাৎ কোনো ধরনের সম্পর্কজাত প্রতিক্রিয়ায় কবিতার জন্ম এমন ভাবনাটা কি একটু দূর্বল লাগে না?

তবে আপনের মধ্যে কবিত্ব বিষয়টা আছে ষোলআনা সেইটা টের পাওয়া যায় বাক্য গঠন আর চিত্রকল্পের ব্যবহারে।

আশরাফুল আলম's picture


মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ ।

মীর's picture


নাহ্ কবিতাটা ভালো হইসে।

আশরাফুল আলম's picture


মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ ।

লীনা দিলরুবা's picture


দারুণ...

আশরাফুল আলম's picture


ধন্যবাদ লীনাপা ।

তানবীরা's picture


টিপ সই

১০

অতিথি নয়ন's picture


আপনি অনেক সুন্দর লিখেছেন বলতেই হই।

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

আশরাফুল আলম's picture

নিজের সম্পর্কে

জীবনের অংকটা বড় গোলমেলে লাগে,শুধু ভুল করি, কখনো যোগ বিয়োগে, কখনো চিহ্ন পাতাতে।