ইউজার লগইন

ঝলমলিয়ায় সনাতন মেলায় - ২

সনাতন বিশ্বাস ঢাকার চারুকলা থেকে পাশ করা অকাল প্রয়াত প্রতিভাবান চিত্রশিল্পী। অবাক লাগে এই অজ পাড়া গাঁর সাধারণ বাড়ি থেকে একজন রাজধানীর চিত্রশিল্পের অঙ্গনে নাম লিখিয়েছিলেন। তার থেকেও অবাক লাগে মৃত্যুর পরও বন্ধুরা বছরের বছর কী চমক্প্রদ আয়োজন করে যাচ্ছে বন্ধু স্মরণে। সনাতন মেলা মূলতঃ সানতনের চিত্রশিল্পী বন্ধুদের উদ্যোগে প্রতি বছর হয়ে থেকে ঝলমলিয়ায় সনাতনের বাড়িতে। সনাতন স্মরণে র‌্যালি, গ্রামের ছোট ছোট শিশুদের রং তুলিতে ছবি আঁকা প্রতিযোগিতা, সনাতনের চিত্র প্রদর্শনী, মাতম, গানের আসর এসব নিয়েই সনাতন মেলা। আর এই সব আয়োজন তার বন্ধুরা করে যাচ্ছে বছরের পর বছর। কী অসাধারণ বন্ধুত্ব!
sanaton 1
সকাল নয়টার পর র‌্যালির শুরু। আর টিভির ক্যামেরাও হাজির মেলা কাভার করার জন্য। ছোট ছোট শিশুদের প্রত্যকের হাতে একটা করে গোলাপ ফুল। গান গেয়ে দিঘী প্রদক্ষিণ করে সনাতনের বাড়িতে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে সনাতনের চিত্র কর্মের প্রদর্শনী।
sanaton 2

sanaton 3

sanaton 4
খানিক পর শুরু হয় শিশুদের রং তুলি দিয়ে ছবি আঁকা প্রতিযোগিতা। সারা গ্রামের বাচ্চারা মনে হয় এই দিনের অপেক্ষায় থাকে। ভোর থেকেই ওরা এসে ভিড় করে। মা দেরও আগ্রহ কম না। এই মেলা না হলে এই গ্রামের ছেলেমেয়েরা হয়ত রংতুলি দিয়ে ছবি আঁকার সুযোগ পেতনা। মেলা সে সুযোগ করে দিচ্ছে। কে জানে হয়ত এদের মধ্যে থেকেই সনাতনের মত শিল্পী উঠে আসবে। মেলার আয়োজকদের মহতী কাজের কথা ভেবে আমি আবার অভিভূত হই।
sonaton 5

sonaton 6

sss

sonaton ৭
একটা আর্টিস্টিক্ট ছবি। Smile

এইসব অনুষ্ঠান শেষে আমি আর বিমা বের হলাম গ্রাম দেখতে। নিরিবিলি একটা গ্রাম, মেঠো পথ, লোক জন নাই, বিরান মাঠ, অথবা জঙ্গল ঘেরা দিঘী এই সব আমাদের মত পঙ্গপালের মত মানুষে গিজগিজ করা ঢাকার লোকদের কাছে স্বপ্নীল মনে হয়। যদিও আসল গ্রাম বাংলার ছবি পাওয়া যায় না এখানে। ফসলের ক্ষেতের বদলে চিঙড়ির ঘের। চোখে বিরক্তি লাগে। আমরা হাটতে হাটতে নদীর কাছে চলে যাই। এখানে দেখা যায় ধানক্ষেত। নদীর নাম মোংলা।
sonaton 8

sonaton 9

sonaton 10

সুন্দরবনের মত এই এলাকায় গোল গাছ অহরহ দেখা যায়। এর নাম গোল কেন আল্লাই জানে। লোকজনদের জিজ্ঞাস করে উত্তর পাই নাই। এই গাছের পাতা ঘরের চালে ব্যাবহার করা হয় প্রায় বাড়িতেই। এড় ফল তালের শাসের মত সুস্বাদু। এবং মিস্টি রসও ও পাওয়া যায় গাছ থেকে। খাওয়া হয় নাই কোনোটাই। Sad
sonaton 11

sanaton 12
ছাগ বান্ধব বিমা।
বিমা ছাগলের বাচ্চাটাকে আদর করতে গেলে ওটা আঙুল চুষতে থাকে। কী মজা পেল চুষতেই থাকে, যতক্ষণনা ওটার মা উদ্বিগ্ন হয়ে বার বার ডেকে বিমার কাছ থেকে নিয়ে গেল।

পোস্টটি ১৬ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

এ টি এম কাদের's picture


পুরো জীবনটাই কেটে গেল বিদেশে । দেশের কত কিছুই দেখা হয়নি ! জীবন এত ছোট কেন ভাবি ! আপনি পোষ্টটা নাদিলে এত সুন্দর ছবি গুলো কখনো দেখা হতোনা । সনাতন বা তার মেলার বিষয় জানা হতোনা ! কি বলে যে আপনাকে ধন্যবাদ দেব !

হাসান রায়হান's picture


আপনিই বরং আমার ধন্যবাদ নিন , পোস্ট পড়া ও কমেন্ট করার জন্য। Smile

লিজা's picture


এই ছবিগুলাও সুন্দর । এরকম একটা গ্রামেও এমন আয়োজন, অবাকই লাগে । আবার ভালোও লাগে ।
একটা আর্টিস্টিক্ট ছবি। এটাকে কি আপনি এইরকম করেছেন? ভালোই লাগতেছে Smile
গোলফল আসলেই মিস করছেন । অনেক মজা । আমি খাইছি ।

হাসান রায়হান's picture


হ্যা ফটোশপে করেছি।
আমরা ফেরার সময় ভয়ান চালক চেষ্টা করেছিলেন অনেক আমাদের খাওয়ানোর জন্য কিন্তু পথে পাওয়া যায় নাই। নেক্সট টাইম Smile

গ্রিফিন's picture


ছি ছি ছি। বিমা ভাই ছাগ বান্ধব, ঝান্তাম্নাতো? Shock Tongue Wink

শাফায়েত's picture


ভালো লাগলো পোস্টের ছবিগুলো দেখে। আপনার ছবি তোলার হাত খুবই চমৎকার। শুভেচ্ছা হাসান রায়হান ভাই।

হাসান রায়হান's picture


আপনাকেও অনেক শুভেচ্ছা।

ভাস্কর's picture


ভালো লাগলো পোস্টের ছবিগুলো দেখে। আপনার ছবি তোলার হাত খুবই চমৎকার। শুভেচ্ছা হাসান রায়হান ভাই।

রাসেল আশরাফ's picture


ছবি আবারো ভালো লেগেছে। খড় মাথায় তোলা ছবিটা আমার কাছে বেশী ভালো লেগেছে।

অফট পিকঃ পোস্টের শিরোনামে '' া'' ছুতে গেছে চোখে লাগছে রায়হান ভাই।পোস্টের মধ্যেও ''সনাতন'' বানানটা স্লিপ অফ টাইপিং আছে।

১০

হাসান রায়হান's picture


Smile

১১

মীর's picture


ভালো লাগলো পোস্টের ছবিগুলো দেখে। আপনার ছবি তোলার হাত খুবই চমৎকার। শুভেচ্ছা হাসান রায়হান ভাই।

১২

অতিথি জালাল's picture


সাধারণ। গুরু কেমন আছেন?

১৩

হাসান রায়হান's picture


শুন্লাম আপনি নাকি জেল থেকে মুক্তি পাইছেন! ওয়েলকাম ব্যাক টু এবি। Laughing out loud

১৪

অতিথি জালাল's picture


অসাধারণ। গুরু কেমন আছেন?

১৫

উচ্ছল's picture


দারুন লাগলো । Laughing out loud

১৬

হাসান রায়হান's picture


Laughing out loud

১৭

জেবীন's picture


ছবি আকাঁর মাঠটাকে দেখতে যেন রঙের মেলা লাগছে।
লালভাই তো পুরা কানমাথা বাইন্ধা কাজ করতাছে দেখি! Laughing out loud
আর্টিস্টিক ছবিটা বানানির পন্থা শিখার শখ আছে, ক্যামেরাই নাই, তাই শিখতাছি না। তবে একদিন ... Smile

১৮

হাসান রায়হান's picture


খুবই সোজা পানির মতন।

১৯

প্রিয়'s picture


আপনার ছবি তোলার হাত খুবই চমৎকার।

২০

হাসান রায়হান's picture


পুরাটা কপি না করায় মাইনাস। Tongue

২১

প্রিয়'s picture


পুরাটা কপি করতেও আলসেমি লাগসে রায়হান ভাই। Tongue Tongue Tongue Tongue

২২

রাফি's picture


ভালো লাগলো পোস্টের ছবিগুলো দেখে। আপনার ছবি তোলার হাত খুবই চমৎকার। শুভেচ্ছা হাসান রায়হান ভাই।

২৩

কিছু বলার নাই's picture


কপিপেইস্টের মাজেজা বুঝলাম না বইলা বিরত থাকলাম। ঘটনা হইলো আপনি গোল পাতার রস না খাইয়া ক্যামনে আইসা পড়লেন? এইটার এতো সুনাম শুনছি, আমি গেলে না খাইয়া আসতাম না।

২৪

হাসান রায়হান's picture


পাওয়া টা সমস্যা। ঝলমলিয়ায় খেজুড়ের রস ও পাই নাই।

২৫

একজন মায়াবতী's picture


আর্টিস্টিক্ট ছবি তো পুরাই আর্টিস্টিক্ট হইসে।
ঘরের ছবি দু'টা বেশী ভালো লাগসে।
অসাধারণ বন্ধুত্ব........... এমনও বন্ধুত্ব আছে !!!!

২৬

হাসান রায়হান's picture


হ্যা অবাক করা বন্ধুত্ব।

২৭

আহমাদ মোস্তফা কামাল's picture


আমি আর কিছু না বললাম!

২৮

হাসান রায়হান's picture


Shock

২৯

লীনা দিলরুবা's picture


আপনার ছবি তোলার হাত খুবই চমৎকার।

৩০

আনন্দবাবু's picture


চলবে বলে না চালাইলে লোকে কথা বলে, চালাইলে পরে কেউই কিছু বলতে চায় না।
চালানোর জন্যে আমার তরফে একটা ধন্যবাদ নেন। আরো কয়েকটা দারুন ছবির জন্যে কৃতজ্ঞতা।

৩১

তানবীরা's picture


কালো জলে কুচলা তলে
ডুবলো সনাতন
আজ চারানা কাল চারানা
পায় যে দরশন Big smile

ভালো লাগলো পোস্টের ছবিগুলো দেখে। আপনার ছবি তোলার হাত খুবই চমৎকার। শুভেচ্ছা হাসান রায়হান ভাই।

৩২

সুদূরের পিয়াসী's picture


ঝলমলিয়ায় যাওয়ার ইচ্ছে হচ্ছে । কিন্তু . . . .

৩৩

সামছা আকিদা জাহান's picture


চমৎকার।

৩৪

সাঈদ's picture


দারুন

৩৫

হাসান রায়হান's picture


সব্বাইকে ধন্যবাদ।

৩৬

শওকত মাসুম's picture


হাতরে অনেক কাজে লাগাইলেন Smile

৩৭

রাসেল's picture


ছাগলরে আঙ্গুল দেওয়ার অভ্যাসটা গেলো না মুরাদের। ছাগল দেখলেই আঙ্গুল দেয়।

৩৮

বিষাক্ত মানুষ's picture


হা হা হা হা Big smile

সবই আপনাদের সাথে সাথে থেকে শেখা বড় ভাই Cool

৩৯

বিষাক্ত মানুষ's picture


গ্রামের ছোট ছোট শিশুগুলো যখন মাঠজুড়ে বসে ছিলো কি যে দারুন লাগছিলো তখন!!! মনে হচ্ছিল কোন স্বর্গীয় দৃশ্য। এখনো আমার চোখে ভাসে। আমি তখন কিছুতেই চুপচাপ পকেটে হাত দিয়ে দাড়িয়ে থাকতে পারছিলাম না। একগাদা কালারপ্লেট হাতে নিয়ে ছুটে গিয়েছিলাম শিশুদের হাতে দেয়ার জন্য।
অসাধারন একটা অভিজ্ঞতা হয়েছে এই ট্যুরটাতে, সনাতনের বন্ধুদের আবারো ধন্যবাদ দিতে চাই।

৪০

অতিথি রায়হান's picture


Laughing out loud অসাধারণ Wink

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

হাসান রায়হান's picture

নিজের সম্পর্কে

অথচ নির্দিষ্ট কোনো দুঃখ নেই
উল্লেখযোগ্য কোনো স্মৃতি নেই
শুধু মনে পড়ে
চিলেকোঠায় একটি পায়রা রোজ দুপুরে
উড়ে এসে বসতো হাতে মাথায়
চুলে গুজে দিতো ঠোঁট
বুক-পকেটে আমার তার একটি পালক
- সুনীল সাইফুল্লাহs