ইউজার লগইন

বয়ে চলা জীবন কাব্যের পান্ডুলিপি ১০

অনেকেই ছোট বেলায় অনেক কিছু হতে চায়। সব নামকরা ব্যক্তিগণ দেখা যায় ছোট বেলায় হতে চেয়েছিলেন খেলোয়াড়, বড় হয়ে হলেন বৈজ্ঞানিক । আমি নামকরা কেউ নই তাই এরকম কোন ঝামেলাও নাই। আসলে ছোট বেলায় কী যে হতে চেয়েছিলাম, তাও জানিনা। তবে নেভি অফিসার দের সাদা ড্রেস দেখে ৭ম শ্রেনীতে থাকতে নেভি তে যোগ দেবার ইচ্ছা হয়েছিল একবার। কী ধব ধবে সাদা !!!

কোন ইচ্ছা বা লক্ষ্য না থাকলেও স্কুলে থাকা অবস্থায় খাতা ভরে ফেলতাম আঁকা ঝোকা করে । গ্রাম, নদী, গাছপালা , আকাশ - এগুলোই ছিলো আঁকার বিষয়বস্তু। বরাবরই এই প্রকৃতি আমারে টানে । প্রাণহীন এই ইট কাঠের খাঁচায় দম বন্ধ হয়ে আসে ।

এইস এস সি পরীক্ষার পর চারুকলায় ভর্তির জন্য ভেবেছিলাম । কিন্তু হয়ে উঠেনি। তুমুল স্ট্রাগল করছি, জানিনা সামনে কী - সেই সময়ে বাসা থেকে আপত্তি জানানো হল । বলা হল চারুকলায় পড়লে না খেয়ে মরতে হবে । তাই চারুকলায় পড়ার চিন্তা বাদ দিয়ে ভর্তি হলাম কমার্সে। বি কম। টাকা রোজগারে নামতে হবে । ২০ বছর বয়স থেকেই কামলাগিরি শুরু করলাম।

কামলা দিতে গিয়ে বুঝলাম, ক্যারিয়ার নামক বিষয়টাই আসলে সব। টাকা কথা বলে। টাকা না থাকলে সকলে করুণা করবে । প্রতিষ্ঠিত হতে গেলে টাকা ছাড়া আর কিছু চিন্তা করা যাবে না। জীবনটা বড় অদ্ভুত। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত নিজের জীবনের, দেহের বোঝা নিজেকেই টানতে হবে।

কিন্তু এই প্রাণহীন শহরে দম বন্ধ হয়ে আসতো বলে তখন থেকেই সময় পেলেই, টাকা জমিয়ে ঢাকার বাইরে ছুটেছি। ৯৫ সালে প্রথমবার কক্সবাজার যাই। ৯৬ সালে সুন্দরবন । এরপর আর বাঁধতে পারেনি কেউ। তবে সবচেয়ে বেশী গিয়েছি কক্সবাজার। সাগর আমাকে সারাক্ষন যেন ডাকে।

প্রথাগত জীবন আমার কোনদিনই ভালো লাগে নাই। আর সবার মতন বিয়ে কর, সন্তান নাও একসময় মরে যাও - এই নিয়ম মানতে ইচ্ছা হয় নাই। নিজের মত করে চলতে চেয়েছি । পারিনি। নিজের মতন করে বাঁচা হয়ে উঠেনা। এখানে প্রতিটি পদে পদে, প্রতিটি সময়ে কম্প্রোমাইজ করতে হয় - কখনো সময়ের সাথে, কখনো পরিবারের সাথে কখনো নিজের সাথে। মধ্যবিত্ত জীবনের বড় দুর্বল দিক এটা। নিজের মতন করে কিছুই হয়ে উঠেনা।

মনের আনন্দে ঘুরি দেশের আনাচে কানাচে। এখনো সময় পেলে বের হয়ে পড়ি। সুন্দর জায়গা গুলো ক্যামেরায় ধরে রাখি। তাই বলে আমি ফটোগ্রাফার নই। আমি সুন্দরের পূজারী। যা কিছু সুন্দর, তা আমাকে আকৃষ্ট করে - তা সে ছবি হউক বা কবিতা বা গান কিংবা কোন জায়গা কিংবা কোন তৈলচিত্র ।

কথাগুলো হঠাৎ লিখতে ইচ্ছে হোল। অনেকদিন কিছু লিখা হয়ে উঠেনা । কী ই বা লিখবো । একটা আফসোস রয়ে গেল - না হতে পারলাম ব্লগার , না ফটোগ্রাফার, না ট্রাভেলার না বিশাল ধনী বা প্রভাবশালী ।

আলাদাভাবে হয়তো দেখা হবে না জীবনের কার্নিশ।

পোস্টটি ১২ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

আপন_আধার's picture


প্রথাগত জীবন ভালো লাগেনা, তার মানে এই না যে আপনার জীবন অপ্রথাগত ... Smile
যেভাবে নিজের মত চলতেছেন তাও বা কম কি ..... অনেকে তাও পারেনা
এভাবেই সবাই নিজের মত চলতে চলতে, নিজের মত করে জীবনের মানে খুজে নেয় হয়তো ....... Smile

সাঈদ's picture


হয়তো । Smile

আহসান হাবীব's picture


ভাববেন না উপদেশ দিচ্ছি। অনেক ভাল আছেন। নইলে এত সুন্দর লিখতে পারতেন না। সুন্দর মন না থাকলে সুন্দর লেখা হয় না। সন্তুষ্ট চিত্তই সকল সুখে সুখি। আর সব কিছুই তো চলে প্রথাগত। যেমন আপনার ট্রায়াল বেলেন্স। ভাল থাকবেন। সুখী হউন।

সাঈদ's picture


সেইটাই। প্রথার বাইরে যাওয়া যায়না সহজে। আর ট্রায়াল ব্যলান্স মিলে নাই এখনো, মিলানোর চেষ্টায় আছি।

আরাফাত শান্ত's picture


সুন্দর ভাবে নিজের কথাগুলো বলা!
নিয়মিত লেইখেন ভাইয়া!

সাঈদ's picture


দিন দিন অলস হয়ে যাচ্ছি, লেখা হয় না ।

টোকাই's picture


ছোটবেলায় কটকটিওয়ালা অনেক খাতা বই এর বিনিময়ে সামান্য ছোট টুকরা দিত তাই তখন মনে মনে ছাইতাম বড় হয়ে কটকটিওয়ালা হব আর ইচ্ছা মত খাবো। সেটা আর হওয়া হয় নাই। কিন্তু এটুকু বুঝেছি স্বাধীন জীবনের মজাই আলাদা। অনেক আরাম, শান্ত'র মত সেইরাম আরাম।

ভাল লাগ্লো আপনার লেখা। চালিয়ে যান।

সাঈদ's picture


ঠিক। একা জীবনের মজা আলাদা ।

সামছা আকিদা জাহান's picture


নিজের কথা এত সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করেছেন দেখে ভাল লাগল। কোন জড়তা নেই ,নেই বাহুল্য এটাই আপনার লেখার বৈশিষ্ট্য।

১০

সাঈদ's picture


ধন্যবাদ আপু।

১১

বিষণ্ণ বাউন্ডুলে's picture


ব্লগার আর ফটোগ্রাফার অলরেডি ভালোই হইয়া গেছেন,
মনের বাকি ইচ্ছাগুলাও আস্তে আস্তে পুরা হইয়া যাইবো ইনশাল্লাহ!

১২

সাঈদ's picture


দু কলম লিখলেই লেখক হওয়া যায়না । দুটো কী চাপলেই ব্লগার হওয়া যায়না। ক্যামেরা টিপলে ফটোগ্রাফার হওয়া যায়না ।

১৩

টুটুল's picture


প্রতিটি পদে পদে, প্রতিটি সময়ে কম্প্রোমাইজ করতে হয় - কখনো সময়ের সাথে, কখনো পরিবারের সাথে কখনো নিজের সাথে। মধ্যবিত্ত জীবনের বড় দুর্বল দিক এটা। নিজের মতন করে কিছুই হয়ে উঠেনা।

এর জন্যই জীবনে আর কিছু হইতে চাই না Smile ... এই বেশ ভালো আছি Smile

১৪

সাঈদ's picture


যা হইছেন কম না। চালায়ে যান।

১৫

রাসেল আশরাফ's picture


ছোটবেলায় রাজশাহী নিউমার্কেটের মেট্রো কনফেকশনারীর মালিক হতে চেয়েছিলাম তাহলে ফ্রী ফ্রী গ্লাস কেক, ফানটা খেতে পারতাম এই আশায়। আরেকটু বড় হওয়ার পর বইপত্রের মালিক হতে চেয়েছিলাম তাহলে দোকানের সব বই পড়ে ফেলতে পারবো এই আশায়।
কিন্তু যা জীবনে যা হয়েছে বা হচ্ছে তা কোনদিনও হতে চাই নাই। Sad

১৬

সাঈদ's picture


একটা সময় যাবার পর আর কিছু হতে চাওয়ার ইচ্ছা টা চলে গেছিলো। কোন মতে বেঁচে থাকতে পারলেই হয় - এই ভেবেই দিন গেছে। এখন আর কিছু হবার ইচ্ছা নাই।

১৭

মেসবাহ য়াযাদ's picture


প্রাসঙ্গিক একটি লিখা http://www.amrabondhu.com/aajad/4867
আপনারই জন্য...

১৮

সাঈদ's picture


এই লেখা পড়েছি তো , কমেন্টও করেছি । থ্যাঙ্কু আবার শেয়ার দেবার জন্য ।

১৯

মীর's picture


আমার ইচ্ছা ছিলো আর কিছুই না, পাইলট হওয়ার। কিভাবে কোত্থেকে এ ইচ্ছা মাথায় চেপেছিলো জানি না কিন্তু অনেকদিন পর্যন্ত ইচ্ছেটা আমায় তাড়িয়ে নিয়ে বেড়িয়েছিলো মনে আছে।

২০

সাঈদ's picture


পাইলট হইলে আপনার লেখা থেকে বঞ্চিত হইতাম তখন।

২১

নিভৃত স্বপ্নচারী's picture


আপনার সাথে আমার বেশ মিল আছে দেখছি। আমারও ছুডুবেলায় চারুকলায় ভর্তির ইচ্ছা হয়েছিল, বাসার সবাই মিলে মাথা থেকে সেই ভূত তাড়িয়েছে। আর্কিটেক্ট হবার ইচ্ছা আছিল, হওয়া হয়নি কারণ বাসার সবাই চাইলো আমাকে ডাক্তার বানাবে, শেষ পর্যন্ত তাও হওয়া হয়নি। কিছুই হতে পারিনি, তাই আফসোসের আর শেষ নেই!
আপনার শেষ কথাডা খুব মনে ধরছে-

  • না হতে পারলাম ব্লগার , না ফটোগ্রাফার, না ট্রাভেলার না বিশাল ধনী বা প্রভাবশালী ।
২২

সাঈদ's picture


বাহ আমাদের তো অনেক মিল Big smile

২৩

জেবীন's picture


যা চাই তা পাই না, আর যা পাই ভুল করে পাই!

ভাবি যে চাওয়াটাই ছেড়ে দিবো, চাইলেই হারাই। তাই যা আসে তাতেই মানিয়ে নেবার চেষ্টা করে যামু! (ইচ্ছেগুলোরে কেবল দারুন করে দুমড়ে নষ্ট করে ফেলতে পারলেই কেল্লা ফতে করতে পারতাম Stare )

২৪

সাঈদ's picture


দারুণ বলেছেন। ইলিশ নিয়ে লিখতে শুরু করেছিলাম। আলসেমি তে আর লেখা হয় নাই। দিন দিন অলস হয়ে যাচ্ছি ।

২৫

জেবীন's picture


ইলিশ নিয়ে ব্লগটা লিখে্ন, সাথে কিছু তথ্য, আপনার চলতি পথে আর কি কি দেখলেন জানলেন মজার/বিরক্তিকর - ইত্যাদি মিলিয়ে অবশ্যই চমৎকার ব্লগ হবে সেটা।

২৬

তানবীরা's picture


বিয়ে করতে পারতেছেন না সেইটা বলেন, না আংগুর ফল টক Wink Tongue

২৭

সাঈদ's picture


হ, চাচী বুঝছে Crazy

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

সাঈদ's picture

নিজের সম্পর্কে

আমি হয়তো মানুষ নই, মানুষগুলো অন্যরকম,
হাঁটতে পারে, বসতে পারে, এ-ঘর থেকে ও-ঘরে যায়,
মানুষগুলো অন্যরকম, সাপে কাটলে দৌড়ে পালায়।

আমি হয়তো মানুষ নই, সারাটা দিন দাঁড়িয়ে থাকি,
গাছের মত দাঁড়িয়ে থাকি।
সাপে কাটলে টের পাই না, সিনেমা দেখে গান গাই না,
অনেকদিন বরফমাখা জল খাই না।
কী করে তাও বেঁচে আছি আমার মতো। অবাক লাগে।