ইউজার লগইন

রুবেল শাহ'এর ব্লগ

আমার প্রয়োজনের আবিস্কার নও তুমি, তুমি আমার অস্তিত্বের আরেকটি নাম ।

কোন এক অশুচি বাক্য
তোমাকে ঘিরে ধরে
তুমি ছুটে গিয়ে জানালার গ্রিল ধরে
ঝরে পড়া শীতল জল রাশির মত হিম হয়ে যাও.....

তুমি ধীরে ধীরে অনেক উত্তরে ছুটে যাও
বাঁক হারা পাগলা হাওয়ার মত।

যার কাছে বার বার ছুটে যাচ্ছিলে নিজের সব কিছু ভুলে
ভাবছিলে সে তোমায় খুব করে ধরে রাখবে তাই না ?

এ কথাটা তুমি আজ অবধি কাউকে বলোনি
নিজের মত থেকেও দূর দূর করে তাড়াতে
চেয়েও পারোনি,
পাগলা হাওয়ারা যেমন বাঁক খেয়ে ফিরে আসে
নির্বিঘ্নে তুমি তোমার দখিনা জানালার ফিরেছ বার বার.....

একটি কটু বাক্য তোমায় খুব করে আহত করে
সমাজে সভ্যতাধারী কিছু কিছু মানুষ এমনই
ওদের জ্ঞান অতটুকুতেই সীমাবদ্ধ।

সমাজ সভ্যতার নিরিখে বাস্তবতা কে আবিষ্কার
করতে থাকি ঠিক তখনই,
যখন তুমি কিংবা আমি বাস্তবে পরাবাস্তবের মুখোমুখি।

যত আঁধার কে তুমি সাথী করে নিয়ে ছুটে যাচ্ছিলে
আমিও ঠিক এগিয়ে গেলাম তোমার কাছাকাছি
সমাজ সভ্যতার সামনে দিয়ে।

বন্ধুগো রঙ্গিলা মুখ ....... ( আরো খোমা যোগ করা হবে )

সাঈদ ভাই এর দোয়া পোষ্ট তে মন্তব্য করতে গিয়ে কার্টুন গুলো আঁকার চিন্তা মাথায় এসেছে। এই কার্টুন গুলো শুধুই মজা করার জন্য আঁকা........

ইনি প্রিয় নজরুল ভাই
n bi.jpg

আমরা বন্ধুর প্রিয় মুখ জ্বিনের বাদশা
b bi_0.jpg

সাঈদ ভাইয়েরটা এইখানে আসবে.
(.... এখনো আঁকি নাই )

আরেক প্রিয় মুখ ২২ল ভাই
( এইটা নিয়াও চিন্তায় আছি )

মাসুম ভাই ( শওকত মাসুম )
m bi.jpg

শাওন বিলাই কিন্তু মক্ত দাবি করলো এইটা নাকি তার মত

যাপিত মা

18377_1076286004840_1756938146_141888_2729165_n.jpg

 

এই পথে সবাই হেঁটেছে
মওলানা সাহেব, বামন ঠাকুর
দিদি স্বরস্বতী, আমাদের বড়পীর

স্বাক্ষী ঐ প্রহর, সূর্য, রাতের আকাশের
ঝলমল নক্ষত্রেরা

যুগে যুগে আমি অনেক বড়বোন মেঝো,সেঝোদির
ভাই হয়ে দেখেছি
অনেক মায়ের গর্ভে জন্মেছি

তাদের কপালে কি সিদুঁর ছিল ?
নাকি সেজদায় পড়া কালো দাগ ছিল ?
দেখিনি, শুধু দেখেছি
তপ্ত লাল রক্তে স্নাত হয়ে ভেসে আসা শিশু আমি

শিশির বিন্দু=ঠোঁট

নরম ঘাসের ডগায় এক একটি শিশির বিন্দু যেনো
কিশোরীর এক এক জোড়া মালতী ঠোঁট :
নরম ঘাসের ডগায় এক একটি শিশির বিন্দু যেনো
কিশোরীর এক এক জোড়া মালতী ঠোঁট :
নরম ঘাসের ডগায় এক একটি শিশির বিন্দু যেনো
কিশোরীর এক এক জোড়া মালতী ঠোঁট :নরম ঘাসের ডগায় এক একটি শিশির বিন্দু যেনো
কিশোরীর এক এক জোড়া মালতী ঠোঁট :
নরম ঘাসের ডগায় এক একটি শিশির বিন্দু যেনো
কিশোরীর এক এক জোড়া মালতী ঠোঁট :
নরম ঘাসের ডগায় এক একটি শিশির বিন্দু যেনো
কিশোরীর এক এক জোড়া মালতী ঠোঁট :

▓▒░ সম্পর্ক ░▒▓

16243_323660320690_717200690_10017650_8293295_n.jpg

চন্দ্র-সূর্য,
পৃথিবী যেদিন উত্তপ্ত, মাটি তার সৃষ্টির মায়ায় উজ্বল
সেদিন বন্ধুত্বের আবদার রক্ষায় ব্রতী হয়ে সমুদ্র এল ধরার বুকে
মমতার প্লাবন নিয়ে ভেসে গেলে সব।
চন্দ্র-সূর্য ভ্রাতৃদ্ধয় তাদের প্রতিজ্ঞা রক্ষা করতে পারেনি বানের তোড়ে
তারা আকাশে অবস্থান নেয় নিরাপদে।
সাগরও আর ফিরে যায়নি
চন্দ্র-সূর্যও আর ফিরে আসেনি,
তিন বন্ধু দূরে দূরে থেকে নিরাপদ বন্ধুত্ব বজায় রাখে ... চিরদিন।

সূর্য গ্রহনের একদিনে
সূর্যের দুঃখে সাগর ফুঁসে উঠে,
আসে প্লাবন, মাটির বাসিন্দারা ধুলিস্যাৎ হয়ে যায়।
মাত্র অল্প কিছু কিস্তিতে আরোহন করে বেঁচে যায়
শেষে চন্দ্র এসে মিমাংসা করে,

অবশেষে যেই বই গুলো হাতে এলো .....

170320101233.jpg অবশেষে কিছু বই হাতে এলো............

জলে জলে হয় দুঃখ-ক্ষয়...

চোখের তারায় আকাশ দেখি,
যে চোখে আকাশ দেখি
সেই চোখ জোড়া ভিজে বলেই বেঁচে আছি। ...........

এবার বই মেলা থেকে যে সব বই কিনেছি.......

আমি বছরের যে কোন সময় বই কিনি, যখনই হাতে টাকা আসে অথবা সময় করতে পারি। তারপরেও বেশীর ভাগ বই কেনা হয় মহান একুশের বই মেলা থেকে। বেশ ক'বছর দেশে নাই, বই পড়ার কষ্ট যেমন পাই তেমনি বই কিনতে না পারার কষ্টও অনেক বেশী। তার পরেও চেষ্টা করি বই মেলা থেকে বই কিনাতে। গত কয়েক বছরে অনেক অনেক বই কিনলেও সেগুলি সঠিক ভাবে সংরক্ষন না করায় বেশীর ভাগ বই চুরি হয়ে গেছে। তাই এ বছর সিদ্ধান্ত নিয়েছি, বই কেনার পর আলমারিতে বিশ

টেরাই করলাম..........

এই বার না হইলে আমার টেরাই করুম না............ হক মাওলা