ইউজার লগইন

নিসর্গের বুক চিরে ছুটে চলেছি

বর্ষার কি এক গূঢ় মন্ত্র আছে―ঘোর লাগা প্রকৃতির পরতে পরতে শিহরণ বুনে রাখে! পথের দু’পাশে বন, সেগুনের শাখাগুলি আচ্ছন্ন সবুজ ময়ূরীর মতো ফুলে ফুলে পেখম মেলেছে মহুয়া মিলনে। দু’ধারের অফুরন্ত সবুজের বুক চিরে আমি ছুটে চলেছি আর নিসর্গ যেন আমার চোখের উপর অবলীলায় শান্তির প্রলেপ বুলিয়ে দিচ্ছে অপার স্নিগ্ধতায়। একের পর এক নেকাব সরিয়ে সে আমাকে দেখাচ্ছে তার বুনো যৌবন আর আমি কাঙাল জ্ঞানদাসের মতো কেঁদে উঠছি তার প্রতি অঙ্গের পরশ নেবার জন্য। জলে ডুবে টইটুম্বুর ফসলের মাঠ। ধবল বকের ঝাঁক কিছুক্ষণ কপট ধ্যানী সেজে জলমগ্নতার তলপেটে ডুবো-ঠোঁট চুমু খেয়ে আকাশের নীলে উড়ে গেল। এক ঝাঁক বুনোগন্ধী বাতাস বৃষ্টি ভেজা ডাহুকের মতো জলের অজস্র বিন্দু গায়ে মেখে নিয়ে ছুট লাগালো তাঁদের পিছু পিছু। আমাকে স্তব্ধবাক করে দিয়ে বাহারি প্রজাপতির মতো নেচে উঠে আনন্দিত উড়াল দিল নিবের ডগায় একে একে জমে উঠা যত্নলালিত শব্দগুলো; আমার আর কবিতা লেখা হলো না।

পোস্টটি ১০ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

একজন মায়াবতী's picture


হলো তো কবিতা। শুধু একটু এডিট করা লাগতো Smile

রোমেল চৌধুরী's picture


একজন মায়াবতীর হাতে সম্পাদনার নির্মম ছুরি কাঁচি দেখলেই জীবনানন্দের "নগ্ন নির্জন হাত" কবিতাটির কথা মনে পড়ে যায়। শুভপ্রীতি! Smile

লীনা দিলরুবা's picture


সুন্দর।

রোমেল চৌধুরী's picture


ধন্যবাদ, লীনা!

টুটুল's picture


সুন্দর

রোমেল চৌধুরী's picture


ধন্যবাদ টুটুল। নিসর্গ সত্যিই তুলনাহীনা।

জ্যোতি's picture


সুন্দর লেখা।

রোমেল চৌধুরী's picture


ঐ কঞ্চির উপর মাছরাঙার ছদ্মবেশ প'রে ব'সে আছে সুন্দর
ঝলমলে সর্বনাশ আমার

ভাস্কর's picture


আপনের না লেখা কবিতারে ভালো পাইলাম...

১০

রোমেল চৌধুরী's picture


হাতে তুলে দিতে গিয়ে স্বর্গের অমৃত মধু
যদি দিই নরকের তিতকুটে স্বাদ, নেবে?

১১

প্রিয়'s picture


মানুষ এত কঠিন কঠিন শব্দ ব্যবহার করে কেম্নে সেটাইতো বুঝিনা। যাউকগা লেখা ভাল হইসে।

১২

রোমেল চৌধুরী's picture


চলুন সব কঠিন শব্দদের দল বেঁধে নিয়ে যাই জ্যোৎস্নার ঝরণায়, অনেক মমতার কোমলতা মেখে হোক তাঁদের স্নিগ্ধস্নান হৃদয়ের গহন সবুজ বনে!

১৩

তানবীরা's picture


সুন্দর। Laughing out loud

প্রায় রোজ আমি বৃষ্টিতে ভিজতে ভিজতে অফিস বাড়ি করি আর ভাবি এমন একটা বিশ্রী জিনিস নিয়ে মানুষ রোমান্টিক হয় কিভাবে? Puzzled

১৪

শামান সাত্ত্বিক's picture


একের পর এক নেকাব সরিয়ে সে আমাকে দেখাচ্ছে তার বুনো যৌবন আর আমি কাঙাল জ্ঞানদাসের মতো কেঁদে উঠছি তার প্রতি অঙ্গের পরশ নেবার জন্য।

আর তো কবিতা লেখার দরকার নেই।

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.