ইউজার লগইন

শুধু চ্যানেল বদলাই

টিভির সামনে বসে শুধু চ্যানেল বদলাই-এত অনুষ্ঠান-কিন্তু মনে দাগ কাটে না কিছুই-নস্টালজিক হয়ে অতীতে ফিরে যাই-আকাশ সংস্কৃতি তখনও সেভাবে ঢুকেনি দেশে-বিটিভিই ছিল আমাদের সম্বল-সঙ্গ দিত ইন্ডিয়ান ডিডি চ্যানেল-বিটিভির বাংলা নাটকে তখন স্বর্ণযুগ-'ঢাকায় থাকি', 'এই সব দিনরাত্রি', 'অয়োময়', 'বহুব্রীহি', 'সংশপ্তক','কোথাও কেউ নেই','রূপনগর', 'বারো রকমের মানুষ'- এ তালিকা শেষ হবার নয়- আর বিদেশী সিরিয়াল গুলো- 'নাইট রাইডার', 'দা এ টিম', 'স্ট্রীট হক', 'ভয়েজার', 'দা মেনিমেল', 'রবো কপ', আর অবশ্যই 'ম্যাকগাইভার'- এই সিরিয়াল টি বোধহয় সবকিছুকেই ছাপিয়ে গিয়েছিল-আরেকটা সিরিয়াল-'ডার্ক জাস্টিস' -একদম ভিন্ন স্বাদের ছিল-পরবর্তীতে 'টিপু সুলতান' নামের সাইমুম ও এসেছিল এই দেশে-অদ্ভুত মানের একটা ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান (যার কথা কখনো ভুলবো না) - 'যদি কিছু মনে না করেন'-এর উপস্থাপক কে সবাই ভুলে গেছেন-শুধু হানিফ সংকেত এখনো মাঝে মাঝে স্মরণ করেন- এখন বাংলা মিডিয়ায় অনেক বড় পরিধিতে কাজ চলছে - ফারুকী বা রনি বাংলা নাটকের সংজ্ঞাই বদলে দিয়েছেন- প্রেম ভালবাসা দাম্পত্য সমাজ জীবন নৈতিকতা - সব কিছুরই এখন নতুন সংজ্ঞা- লাভলু ও পিছিয়ে নেই- দীর্ঘদেহী আর দীর্ঘাঙ্গীনী মডেলরা এখন নাটকে-পুরুষের পেশী আর নারীর শরীরের ভাঁজ এখন আর আড়াল মানে না- নাটকে সব পাই - শুধু অভিনয় টা পাই না - আজাদ আবুল কালামের মত অভিনেতা এখন নাটকে সুযোগই পান না- মোশাররফ করিম আর ফজলুর রহমান বাবুর মত তুখোড় অভিনেতাকে দুর্বল স্ক্রিপ্টের বোঝা কাঁধে নিয়ে হামাগুড়ি দিতে হয়- কিছু বাত্যয় আছে - সব সময়ই থাকে- সময়ের দাবি ই হয়ত এমন যে অভিনয় শিল্পে অভিনেতাই আর থাকছেন না-কিন্তু আমরা যে স্বর্ণ সময়টা ভুলতে পারিনা-হুমায়ুন ফরিদী যখন 'কান কাটা রমজান' (সংশপ্তক) নামের ভয়ঙ্কর পিশাচের চরিত্রে পর্দায় আসতেন- নূর কে যখন দেখতাম প্রবল প্রতাপশালী ছোট মীর্জার চরিত্রে (অয়োময়) -খালেদ খান যখন ছিলেন 'লালে লাল - হেলাল' (রূপনগর), মমতাজ উদ্দিনের কালো চেহারা যখন স্বর্গীয় প্রতিভায় উদ্ভাসিত হত- কুটচালি চরিত্রে মামুনুর রশিদের কোনো বিকল্পই ছিল না- আফজাল আহমেদ এখন কি জানি না-অতীতে যাকে দেখেছি তিনি অনবদ্য- দারুণ এই অভিনেতারা অভিনেত্রী হিসেবে সাথে পেয়েছিলেন সুবর্ণা, তারানা, রওশন জামিল, দিলারা জামানদের মত দিকপালদের কে- এই ধারার শেষ প্রজন্ম বোধয় তৌকির-জাহিদ-সেলিম-হাকিম-বিপাশা-শমী-মিমি রা-তারপরই যেন ছন্দপতন-বিরাট শুন্যতা-অনেক মুখ - পর্দায় অপরিসীম সৌন্দর্য- কিন্তু অভিনয় টা যেন হারিয়েই যাচ্ছে.

পোস্টটি ৩ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

মেসবাহ য়াযাদ's picture


এত ভালো লিখেন। অথচ সব লিখাই কেমন অসম্পূর্ণ আপনার। এটা কেনোরে ভাই ?

শওকত মাসুম's picture


একমত

টুটুল's picture


যায় দিন ভাল Sad

বিষণ্ণ বাউন্ডুলে's picture


আপনের লেখা গুলি খুব ভাল, কিন্তু অসম্পূর্ণ কেন?!

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

হাসান আদনান's picture

নিজের সম্পর্কে

কিছু মানুষ জন্মায় - একাকিত্বের বীজমন্ত্র নিয়ে - জীবন তাদেরকে খেলায় - নাকি তারা জীবন কে নিয়ে খেলে - বোঝা দায় - সম্পর্ক - সেটা বন্ধুত্বের হোক - হোক ভালবাসার কিংবা রক্তের - তারা এড়িয়ে চলে - কিংবা কে জানে - বন্ধনে জড়ানোর যোগ্যতা হয়ত প্রকৃতি তাদের কে দেয়নি - অর্থহীন জীবন - মাঝরাতে দুঃস্বপ্ন দেখে জেগে ওঠা - তারপর অঘুমো বিভীষিকাময় মুহূর্ত গুলো - তবু কাউকে ডাকা নয় - ডাকার জন্য যে প্রণোদনা লাগে তারা তা হারিয়ে ফেলেছে - শুধু ভোরের প্রতীক্ষা - যদিও জানে - ভোর আসবে না - এসব মানুষের জীবনে ভোর আসেনা- আসতে নেই - প্রসারিত কোনো হাতেই এরা হাত রাখে না - বিশ্বাস এদের নড়ে গেছে শুরুতেই - যেন সিজোফ্রেনিয়ার রোগী - এক বিচিত্র জগৎ - কোনো বন্ধন নেই - ভুল হলো- একটি বন্ধন আছে - থাকে - বিধাতার সাথে - সে বন্ধনে কখনো প্রার্থনা থাকে - কখনো ঘৃণা - কখনো অসম লড়াই - আর কখনো সীমাহীন - ব্যাখ্যাতীত অভিমান (আমি হয়ত এমনই একজন )

hasan_adnan'র সাম্প্রতিক লেখা