ইউজার লগইন

নতুন বছরে কি ভাবছেন ?

নতুন শতাব্দীর দশম বছরটিকে ঝেঁটিয়ে বিদায় করে দিয়ে এসেছে নতুন বছর। সবার মনে এখন নতুন ভাব, চোখে নতুন খোয়াব। তাই...মানুষ কি ভাবছে নতুন বছরে ? বছরের প্রথম দিনে মনে এই প্রশ্নের উদয় হতেই বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের অনুভূতি জানতে ইচ্ছে হলো। ‘চ্যারিটি বিগেইনস এট হোম’-এই প্রবাদ বাক্যের অনুসরণে প্রথমে জানতে চাইলাম নিজের স্ত্রীর প্রতিক্রিয়া। ‘নতুন বছরে কি ভাবছো ?’ আমার এই প্রশ্নের উত্তরে প্রথমে একটু থমকে যান তিনি। তারপর... সরাসরি আমার চোখের দিকে তাকিয়ে বলেন, ‘সত্যি কথা বলবো ? ‘হ্যাঁ নি:সংকোচে বলতে পার’। আমি অভয় দেই। ‘ভাবছি তোমাকে কিভাবে সাইজ করা যায়’। ‘তার মানে ?’ ভড়কে গিয়ে প্রশ্ন করি। ‘ইদানীং তুমি কেমন জানি বদলে যাচ্ছ, আগের মতো আমাকে আর ভালোবাসো না। গত ঈদে একটা ভালো শাড়ীও দাওনি, ইদানীং আবার বড্ড রাত করে বাসায় ফির, বাসায় এসে আবার কম্পিউটার নিয়ে বসে পড়ো...। আচ্ছা তুমি আমাকে কি মনে করো বলতো ! আমি কি তোমার দাসী-বান্দি ? তোমার সংসারে শুধু খেটেই মরবো, আমার কি কোন শখ-আহলাদ নেই ? তুমি আমাকে পেয়েছ কি বলতো ?’ স্ত্রীর ক্ষুব্দ কন্ঠে আসন্ন ঝড়ের পূর্বাভাস। বুঝতে পারলাম ভিমরুলের চাকে ঢিল ছুঁড়ে ফেলেছি, পুরোপুরি ঝগড়ার মুডে আছেন তিনি। তাই তিনি রণ-রঙ্গিনী মূর্তি ধরার আগেই দ্রুত গৃহত্যাগ করি...।

রাস্তার মোড়ে এক ক্ষ্যাপাটে ভিক্ষুক থালা হাতে দাঁড়িয়ে প্রতিদিন ভিক্ষা করেন। আমাকে দেখলেই নিস্পৃহ ভঙ্গী করেন। কারণ তার বাড়িয়ে দেয়া থালায় একটা আধুলিও ছুঁড়ে দেইনি কখনো । তাই আমাকে দেখে তার প্রসন্ন হওয়ার কারণ নেই। ‘চাচা নতুন বছরে কি ভাবছেন ?’ আমার দুর্বোধ্য(?) প্রশ্ন শুনে সরু চোখে তাকায় বৃদ্ধ ভিক্ষুক। বিরক্ত কন্ঠে বলেন, ‘আপনে সরেন, কামের সময় দিগদারী কইরেন না’। ‘না মানে...আমি শুধু জানতে চাইছি নতুন বছরে...’। ‘নতুন বছরে ভাবতাছি তোর শাশুড়ীকে বিয়া করুম, শালা...দূরে গিয়া মর ’। উত্তেজিত হয়ে চাচা ‘আপনি’ থেকে সরাসরি ‘তুই’তে নামেন। ‘আমাকে শালা বললেন, আবার আমার শাশুড়ীকে বিয়ে করতে চান, ব্যাপারটা ঠিক মিলছেনা...’। ‘খাড়া হমুন্দির পুত, ব্যাপার তোরে বুঝাইতাছি...’। আমার দিকে লাঠি নিয়ে তেড়ে আসে চাচা, আমি দ্রুত কেটে পড়ি।

রিকশা নিয়ে পল্টনের দিকে রওনা হই। রিকশাঅলাকে প্রশ্নটা করতেই সে বলে , ‘ভাবতেছি একটা বিয়া করলে ক্যামন অয়, জিনিসপত্রের দাম যেভাবে বাড়তাছে....একার কামাইতে আর সংসার চলতাছে না, বর্তমান বউটা অসুস্থ, তাই....গার্মেন্টসে কাম করে, এমন একখান মাইয়া পাইলে...’। পল্টনে গিয়ে পেয়ে গেলাম বিরোধী দলের এক পাতি নেতাকে। প্রশ্নটা শুনেই তিনি গরম তেলে বেগুন ভাজা হয়ে জ্বলে উঠলেন, অত:পর জ্বালাময়ী কন্ঠে বললেন, ‘দেশে এখন ভাবাভাবির কোন পরিবেশ আছে? না এই সরকারকে আর এক মুহূর্তের জন্যও ক্ষমতায় থাকতে দেয়া যায় না। সামনে আন্দোলনের কঠিন কর্মসূচী আছে, তাই নিয়ে এখন ব্যস্ত আছি, এই ব্যর্থ-অযোগ্য সরকারের পতন না ঘটিয়ে আর ঘরে ফিরবো না...’। এক নাগাড়ে কথাগুলো বলে দম নেন নেতা। ‘চলুন কোথাও বসে এক কাপ চা খাই’। আমার প্রস্তাব শুনে নেতা শান্ত কন্ঠে বলেন, ‘না ভাই, এই ভরদুপুরে এখন আর চা খাবো না, বাসায় যাবো, ভাত খাবো, আপনার ভাবী বার বার ফোন করে তাগাদা দিচ্ছে...’। ‘সেকি ! একটু আগেইনা বললেন, এই সরকারের পতন না ঘটিয়ে আর ঘরে ফিরবেন না’! আমি অবাক হওয়ার ভান করি। আমার কথা শুনে বিব্রত নেতা আর এক মুহূর্তও দেরী করেননা, বিদায় না নিয়েই সোজা হাটঁতে শুরু করেন।

রমনা ভবনে এসে ধরি সরকারী দলের এক নেতাকে। প্রশ্নটা করতেই নেতা বলেন, ‘আরে ভাই, এখন ভাবাভাবির টাইম কোথায়? এখন হলো কাজের সময়। আমাদের সমস্যাই হলো, আমরা ভাবি বেশী, কথা বলি বেশী, কাজ করি কম। এই জন্যই এ জাতির কোন উন্নতি হইলো না। জাতির জনকের কণ্যা, দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনা ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে আমরা এখন খুবই ব্যস্ত, নষ্ট করার মতো এক মুহূর্ত সময়ও হাতে নেই, তবুও... জানতে যখন চাচ্ছেন, তাই বলি, পত আওয়ামী সরকারের আমলে একটা ব্যাংক ম্যানেজ করেছিলাম, এবার চেষ্টা করছি একটা বীমা কোম্পানীর অনুমোদন নেয়া যায় কিনা। আফটার অল, আমাদের ত্যাগ-তিতিক্ষার ফলেইতো দল ক্ষমতায়, আমাদের প্রতি দলের ‌একটা কমিটমেন্ট আছে না !’

মালিবাগ মোড়ে এসে অনেকদিন পর দেখা হয়ে গেলো এক ব্যাচেলর কবি বন্ধুর সংগে। বললেন, ‘ভাবছি এবার বিয়েটা করেই ফেলবো। কিন্তু মুশকিল হচ্ছে, কোন মেয়েই আমার মতো উড়ণচন্ডিকে বিয়ে করতে রাজী হচ্ছেনা। সে দিন এক তিলোত্তমার হাত ধরে বললাম, ‘তোমাকে ছাড়া আমি বাঁচবোনা, চলো বিয়ে করে ফেলি...’। সে আমার পায়ে ধরে বলে, ‘আমাকে ক্ষমা করো কবি, তোমার সংগে বিয়ে হলে যে আমিও বাঁচবো না’। তবুও এই বছর ব্যাচেলর জীবনের ইতি ঘটাবোই, জাতির কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার’। অবশ্য জাতির কাছে এধরণের ভূয়া অঙ্গীকার বন্ধুটি প্রতি বছরই করে থাকে।

রাতে বাসায় ফিরতে গিয়ে পরিচিত এক ছিনতাইকারীর সংগে দেখা। তার উদ্দেশ্যে প্রশ্নটা ছুঁড়ে দিতেই বলে, ‘ভাবতাছি একটা খুন করলে ক্যামন অয় ?’ ‘অ্যা, কি বলছো এসব !’ আমি আঁতকে উঠি। এবার পকেট থেকে ছুরি বের করে আমার গলায় ঠেসে ধরে সে বলে, ‘লগে যা আছে দিয়া দ্যান, নইলে...আপনারে দিয়াই খুনের খাতা খলুম’। তার পরের কাহিনি অত্যন্ত হৃদয়বিদারক। সেটা আর না বলি...।

পোস্টটি ৬ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

শওকত মাসুম's picture


এতো তাড়াহুড়ার কিছূ নাই। নতুন বছরের ভাবনার জন্য হাতে আরও ৩৬৩ দিন ৬ ঘন্টা হাতে আছে।

লেখা মজারু হইছে।

ঈশান মাহমুদ's picture


আমার প্রায় লেখায় আপনি প্রথম কমেন্ট করেন। এটা আমার সৌভাগ্য শওকত ভাই। আপনারে এক বস্তা ধইন্যা।

নাজমুল হুদা's picture


অতি উপাদেয়, সুস্বাদু এবং সহজপাচ্য । বাস্তবতার ছোঁয়াচে একেবারে জীবন্ত । মজার মজার মজা আছে । আনন্দিত হলাম ।
[অ.ট> ভাবছিলাম মন্তব্য করবো সবার আগে । শওকত মাসুমের তাড়াহুড়ায় তা হয়ে উঠলো না । মাত্র কয়েকটা মিনিট তর সইলনা তার, আর বলে কিনা ৩৬৩ দিন ৬ ঘন্টা হাতে আছে।]

ঈশান মাহমুদ's picture


এই লেখাটি কম্পোজ করে পোস্ট দিতে গিয়ে দশবার ভেবেছি, মান সম্মত হলো কিনা, বেশী হালকা হয়ে গেলো কিনা, আদৌ রম্য হলো কিনা। আপনার কমেন্ট পড়ে ভরসা এবং উৎসাহ পেলাম হুদা ভাই।

নাজমুল হুদা's picture


খুশী হলাম ।

মীর's picture


রম্য বরাবরই ভালো পাই। নতুন বছরে আপ্নার হাত দিয়ে এরকম আরো অনেক রম্য বের হোক। আর যা কিছু বেরোনোর তাদেরও যেন পথরোধ না হয়।

ঈশান মাহমুদ's picture


মীর, আপনার ওপর আমি ভীষণ গোস্বা হইয়া আছি, বলতে পারেন 'তেলে বেগুনে....'। তাই আপনার এই কমেন্টের জবাব দিবনা।

মাইনুল এইচ সিরাজী's picture


আমি নতুন বছরে ভাবছি, ঈশান ভাইয়ের কাছ থেকে এমন রম্য যদি প্রতিদিন পেতম!

ইদানীং আবার বড্ড রাত করে বাসায় ফির, বাসায় এসে আবার কম্পিউটার নিয়ে বসে পড়ো...। আচ্ছা তুমি আমাকে কি মনে করো বলতো ! আমি কি তোমার দাসী-বান্দি ?

একই ঘটনা তো আমারও!

ঈশান মাহমুদ's picture


একই ঘটনা তো আমারও!

সব বিবাহিতরা কি আমার মতো সমস্যায় আছে ? এমনিতেই বউ হুমকি দিছে নেটের তার কাইটা ফেলবে। ' প্রতিদিন রম্য' লিখতে গেলে কম্পুই ভাইঙ্গা ফেলতে পারে।তাই...।

১০

মাইনুল এইচ সিরাজী's picture


ভাবী তো শুধু নেটের তার কাটার হুমকি দিচ্ছেন। আমীন বলেন। ভাগ্যিস অন্যকিছু....

১১

নাজমুল হুদা's picture


সিরাজী, ঈশান, বউদেরও সময় দিতে হবে । মনে রাখবেন, বউ কিন্তু সারাটা দিন আপনার পথ পানে চেয়ে থাকে । বেচারী একাকী সংসারের সব ঝামেলা সামলায় । আপনাকে কাছে পেতে চাইবার আকাঙ্খা তার মোটেও অমূলক নয় । যত কাজই থাক না কেন, তার দিকটা আপনাকে ভাবতে হবে । একবার বিগড়ে গেলে ঠিক করা সহজ নয় মোটেই - এটা কিন্তু 'ওয়ান টাইম' আইটেম ।

১২

মীর's picture


"আইটেম"
Surprised

১৩

মাইনুল এইচ সিরাজী's picture


একবার বিগড়ে গেলে ঠিক করা সহজ নয় মোটেই - এটা কিন্তু 'ওয়ান টাইম' আইটেম ।

১৪

ঈশান মাহমুদ's picture


'ওয়ান টাইম' আইটেম।

একটু ব্যাখ্যা দ্যান জনাব।

১৫

নাজমুল হুদা's picture


বউ নয়, তার মনটাকে 'ওয়ান টাইম' (বলপেন যেমন) বুঝলে সমস্যা কি ? এখানে যে যেভাবে পারেন ব্যাখ্যা করে নিন ।

১৬

লিজা's picture


হুদা ভাই আইটেম? Sad Sad । তবে এর আগের কথাগুলা ঠিকি বলছেন ।

১৭

নাজমুল হুদা's picture


মনটা 'ওয়ান টাইম' (বলপেন যেমন) । আইটেমটি শব্দটিকে দয়া করে ওভারলুক করুন ।

১৮

রাসেল আশরাফ's picture


Rolling On The Floor Rolling On The Floor Rolling On The Floor

লেখা পড়ে ভালো লাগলো।

১৯

ঈশান মাহমুদ's picture


Devil Devil Devil

২০

রাসেল আশরাফ's picture


ডর দেখান ক্যান??

২১

ঈশান মাহমুদ's picture


>) Crazy Love

২২

মীর's picture


আমার সালাম কি ঠিক-ঠাকমতো পৌছাইসে?

২৩

ঈশান মাহমুদ's picture


At Wits End Yawn Whew!

২৪

মীর's picture


এর মানে কি? এখনো পৌছায় নাই? Angry

২৫

ঈশান মাহমুদ's picture


Devil Devil Devil Timeout Timeout Timeout

২৬

মীর's picture


রাখেন আপ্নার বাসায় আসতেছি। আমার সালাম, আমিই দিয়া আসুম।

২৭

বকলম's picture


ভাবছি আর ভাববোনা।

২৮

ঈশান মাহমুদ's picture


Smile Laughing out loud Big smile

২৯

জুলিয়ান সিদ্দিকী's picture


এই বছর কিছু একটা ভাবনা-চিন্তা করা দরকার।

৩০

ঈশান মাহমুদ's picture


ভাবীরে নিয়া ভাবেন মিয়া ভাই।

৩১

তানবীরা's picture


ভাবছি আর ভাববোনা।

৩২

ঈশান মাহমুদ's picture


Right u r. বেশী ভাবনা-চিন্তা করলে চুল পাকে তাড়াতাড়ি...।'অল্প বয়স'এ চুল পাকাইয়া লাভ কি !

৩৩

নড়বড়ে's picture


ভাবছি বয়স বাড়তেছে, নট গুড নট গুড ... Sad
লেখা মজার হইছে Smile

৩৪

ঈশান মাহমুদ's picture


বয়স বাড়তেছে ! বিয়ে না করে থাকলে চান্দিতে চুল থাকতে থাকতে তাড়াতাড়ি বিয়ে করেন, পরে কিন্তু বউ পাইবেন না(ডোন্ট মাইন্ড ব্রাদার)।

৩৫

নড়বড়ে's picture


চান্দিতে চুল আছে অনেক, কিন্তু আয়নার সামনে দাঁড়াইয়া "কালো যদি মন্দ তবে কেশ পাকিলে কান্দ কেনে?" মনে করি আর লম্বা লম্বা শ্বাস ফেলি Sad

৩৬

উলটচন্ডাল's picture


লেখাটার মধ্যে বেশ বৈঠকী ভাব আছে। চা সিঙ্গারার সাথে জমে ভাল। খাব আর আপনার দুঃখের কথা শুনে জিভ দিয়ে চুক চুক করব। তারপর ধোঁয়া ওঠা চায়ে চুমুক দিয়ে বলব, " তারপর, যা বলছিলেন... Wink

৩৭

অতিথি's picture


Laughing out loud Big smile Wink

৩৮

ঈশান মাহমুদ's picture


উলটচন্ডাল ,আপনার বর্ণনা শুনেই আপনার লগে একটা বৈঠক করতে ইচ্ছা করতেছে....। হিম হিম শীত সন্ধায় চায়ের কাপে ধোঁয়া, লগে গরম গরম সিঙ্গারা...উফ্।

৩৯

নীড় সন্ধানী's picture


নতুন বছরের শুরুতেই টেনশানে আছি, কোন প্লান মাথায় আসছে না Sad

৪০

ঈশান মাহমুদ's picture


প্ল্যান কইরা কইরাই এই জাতির কোন উন্নতি ঘটলো না ।জীবনরে জীবনের ওপর ছাইড়া দ্যান, যেদিক খুশী সেদিক যাক...। শুধু স্টেয়ারিং হুইল টা শক্ত করে ধরে রাখুন, যেন লাইনচ্যুত না হয়। (বিনা পয়সায় উপদেশ দিয়া ফালাইলামনি...)

৪১

মুকুল's picture


হা হা হা। লেখা সেইরকম হইছে! hৃ
নতুন বছরে ভাবতেছি, ওজন কিভাবে কমানো যায়। Stare

৪২

ঈশান মাহমুদ's picture


গোস্ত পোলাও থুইয়া বেশী করে সাঁইয়া পিঠা খান(মিষ্টি ছাড়া)। আর দ্রুত বিয়া করেন। দেখবেন আপনার ওজন কমতেছে আর ভাবীর ওজন বাড়তেছে....।

৪৩

লীনা দিলরুবা's picture


লেখা পড়ে আরাম পেলাম, নতুন বছরের প্রথম লেখায় উতরে গেলে পুরো বছর ভালো ভালো লেখা দিতে হবে দাবী জানায় রাখলাম।

৪৪

ঈশান মাহমুদ's picture


লীনা, তোমার মতামতের মূল্য অনেক।

৪৫

হাসান রায়হান's picture


রম্য ভালো হইছে।

৪৬

ঈশান মাহমুদ's picture


রায়হান ভাই, আমাকেতো অনেক ভেবে চিন্তে ভিতর থেকে 'রম্য'' টেনে বের করতে হয়, আর আপনারা (আপনি এবং শওকত ভাই)তো কথা বললেই রম্য।ভালো থাকবেন।

৪৭

হাসান রায়হান's picture


আপনাদের ছবি মেইল করে দিয়েছি ।

৪৮

ঈশান মাহমুদ's picture


ধন্যবাদ।

৪৯

নুশেরা's picture


ভাবতেছি কী ভাবা যায়

লেখা সুস্বাদু হইছে ঈশান

৫০

ঈশান মাহমুদ's picture


ধইন্যা পাতা উ্‌ইথ....(কি কি যেন দেয়!)

৫১

ঈশান মাহমুদ's picture


নুশেরা, আপনি এবং আপনার লেখাকে খুব ফিল করি, আপনি এবং রশীদা....মাঝে মাঝে কোথায় যেন উদাও হয়ে যান...।

৫২

লিজা's picture


লেখা রম্য হইছে Laughing out loud Laughing out loud Laughing out loud । মজা পাইছি ভাইয়া ।নতুন বছরে আপনার ভাবনা কি?

৫৩

ঈশান মাহমুদ's picture


আমি ভাবতেছি কিভাবে বউয়ের মন জয় করা যায়....।পারলে কিছু টিপস দিয়ে হেল্প করেন আপু।কৃতজ্ঞ থাকবো।

৫৪

নাজ's picture


রিকশাঅলাকে প্রশ্নটা করতেই সে বলে , ‘ভাবতেছি একটা বিয়া করলে ক্যামন অয়, জিনিসপত্রের দাম যেভাবে বাড়তাছে....একার কামাইতে আর সংসার চলতাছে না, বর্তমান বউটা অসুস্থ, তাই....গার্মেন্টসে কাম করে, এমন একখান মাইয়া পাইলে...’।

হায়রে মানুষ, রঙ্গিন ফানুশ........... Sad

লেখা চমৎকার হয়েছে!

৫৫

ঈশান মাহমুদ's picture


Smile Laughing out loud Big smile

৫৬

সাহাদাত উদরাজী's picture


বছরের শুরুটা আমার ভাল যায় নাই। ২০১১ আমাকে ভোগাবে বলে মনে হচ্ছে।

৫৭

নাজমুল হুদা's picture


এত নিরাশ হতে হয় না ।

৫৮

ঈশান মাহমুদ's picture


কেইসটা কি?

৫৯

জ্যোতি's picture


মজার পোষ্ট। Smile

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

ঈশান মাহমুদ's picture

নিজের সম্পর্কে

স্বপ্নচারী মানুষ আমি,স্বপ্নডানায় ভর দিয়ে কল্পনার আকাশে উড়তে পছন্দ করি।জীবনের রূঢ় বাস্তবতার সঙ্গে সম্পর্ক কম,তাই পদে পদে হোঁচট খাই…।
একমাত্র মেয়ের প্রিয় বাবা, কিন্তু….স্ত্রীর(তিনিও একমাত্র) কাছে আদর্শ স্বামী হতে পারিনি…।আমাকে দিয়ে এজনমে কিচ্ছু হবেনা…এটা তার বদ্ধমূল ধারণা।তাই তিনি অধীর আগ্রহে পরজনমের অপেক্ষা করছেন।তবে মুখে যতই ‘অনলবর্ষী’হোন না কেন,আমার মত’ অপদার্থ’র জন্য ভেতরে ভেতরে তিনি যে প্রবল ভালোবাসা ধারণ করেন,সেটা আমি প্রতি পলে পলে টের পাই…।এজন্য তার প্রতি আমার কৃতজ্ঞতার সীমা নেই।
মানুষের সান্নিধ্য পছন্দ করি,তবে নষ্ট মানুষের উগ্র আস্ফালন দেখে ইদানীং কষ্ট পাই।তবুও…কিছু প্রিয় মানুষ আছে,যারা আমাকে আলোকিত করে,আশ্বস্ত করে,এবং…স্বপ্ন দিয়ে যায় আগামী সকালের।
আবেগপ্রবণ তাই কবিতা লিখি,হৃদয়ের আবেগগুলো, অনুভূতিগুলো অক্ষরে সাজাই।অব্যক্ত যন্ত্রণা,মৌন অভিমান,হাসি-কান্না,প্রেম-ভালোবাসা দিয়ে কথামালা গাথি…।কতটা তার কবিতা হয় কে জানে !
আড্ডা দিতে পছন্দ করি,যাকে ভালো লাগে,যার সঙ্গ ভালো লাগে-তার পেছনে সময় খরচ করি দ্বিধাহীন।এজন্য আমার বন্ধুভাগ্য ঈর্ষনীয়।
স্বপ্ন দেখি…আদিগন্ত আকাশ,অনন্ত সবুজ , ভালোবাসায় ঘেরা পৃথিবী,অকৃত্রিম অনুভব,মুঠো মুঠো আনন্দ,অতলস্পর্শী আন্তরিকতা,প্রস্ফুটিত মনুষ্যত্ব আর…নিটোল বন্ধুত্ব।তাই…’আমরা বন্ধু’র আঙ্গিনায় পা রাখা…।সব বন্ধুরা ভালো থেকো।