ইউজার লগইন

একদিন খুঁজেছিনু যারে

সাগরের কথা
পাঁচ বছর পর সাথীকে দেখছি। আমরা একই শহরে জীবন যাপন করি। হঠাৎ রাস্তায় দেখা হতেই পারতো। আমার চোখ পাঁচ বছর ধরে সাথীকে খুঁজেছে। কিন্তু কখনো দেখা পাইনি। সেই সাথীকে আজ দেখছি।
অনুষ্ঠানটায় আসবো না বলেই ভেবেছিলাম। মানুষের কোলাহোল আগের মতো আর ভাল লাগে না। নির্জনতা খুব প্রিয় হয়ে উঠছে আজকাল। একা থাকায় অভ্যস্ত হতে শুরু করেছি। তারপরেও বেরোতে হয়, আসতে হয় এরকম দু’একটি অনুষ্ঠানে। এসেছি বলেই সাথীকে দেখছি, পাঁচ বছর পর।  

সাথীর কথা
আজকাল পার্টিতে যেতে সাথীর ভাল লাগে না। অনেকগুলো মুখোশ পড়া মানুষের মধ্যে থাকতে অস্বস্তি হয়। সবগুলো মানুষ একই ভাষায় যেন কথা বলে। দেশের রাজনীতি দিয়ে শুরু, শেষ হয় অফিসের রাজনীতি দিয়ে। এসব আলোচনায় অংশ নিতে পারে না সাথী। অথচ এক সময় দারুণ আড্ডাবাজ ছিল সে। কখনো সবাই মিলে, কখনওবা কেবল সে আর সাগর ঘন্টার পর ঘন্টা গল্প করেছে। তখন সাথীর মনে হতো জীবনটা না হয় এমনি করেই যাক।
জীবন এমনি করে যায় না। তারপরেও জীবন চলে, চালাতে হয়। আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজেকে দেখে সাথী। চপলতার ভাবটা উধাও, ভারিক্কি একটা ভাব এসেছে। চুল অবশ্য সেই আগের মতো লম্বা আছে। বহুদিন ভেবেছে কেটে ফেলবে। শামীমের চুল নিয়ে কোনো মাথাব্যথা নেই। বরং কেটে ফেলাটাই যে স্বাভাবিক সেটাই হয়তো মানে। সাগর সাথীর এই চুল পছন্দ করতো। মাথার মধ্যে মুখটা গুজে বলতো, ‘একটু থাকি এরকম সাথী?’।
-‘এখনো রেডি হওনি। তাড়াতাড়ি করো। দেখি একটু'-শামীম আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজেকে একটু দেখে নেয়। ‘রেডি হও, আমি ওই রুমে আছি।’
শামীম না হয়ে যদি সাগর হতো? এই যে শামীম এসে নিজেকেই দেখে চলে গেলো, সাগরও কি এরকমই করতো। সাগর সাথীকে দেখতো, মাথাটা ধরে আদর করে দিতো, সাথীও এক মুহুর্তের জন্য হলেও পরম আদরে, নির্ভরতায় জড়িয়ে ধরতো সাগরকে।
সাথীর এই এক সমস্যা। সব কাজে সামনে চলে আসে সাগর। সাথী শামীমের মধ্যে সাগরকে খোঁজে। শামীম আর সাগরের মাঝখানে থেকে অসহনীয় এক জীবন কাটায় সাথী।
জীবন সাগরকে চেয়েছিল। বাস্তবতা শামীমকে দিয়েছে। শামীমকে নিয়েই তো খুশী হওয়ার কথা ছিল। শামীম প্রচলিত সংজ্ঞায় ভাল ছেলে, ভাল চাকরি করে, সমাজে প্রতিষ্ঠা আছে, ভবিষ্যতে আরও উপরে উঠবে। সাথীকে ভালওবাসে। তাহলে সাথী কেন পারছে না। শামীম হাত ধরলে সাথীর কেন সাগরের কথা মনে পড়ে।
মনের মধ্যে সাথীর গাঢ় মেঘ জমে থাকে। সেই মেঘ একা একাই বৃষ্টি ঝড়ায়। সেই বৃষ্টিতে সাথী একা একাই ভেজে। পাশে থেকেও শামীম সেই বৃষ্টি দেখে না, মেঘের খোঁজ পায় না। শামীম বরং তাকে টেনে নিয়ে যায় অতল গহবরে। সেই অতলে হারিয়ে যেতে যেতেও সাথী দুই হাত দিয়ে আঁকড়ে ধরতে চায় কেবলই সাগরকে।  

ওদের কথা
সাথীকে দেখতে ভাল লাগছে। চেহারার সেই ছেলেমানুষী ভাবটা নেই। তাতে বরং ভালই লাগছে। কলাপাতা রঙের শাড়ীতে মানিয়েছে বেশ। কোমর সমান সেই লম্বা চুল আর নেই। চুল কেটেছে সাথী। কাঁধ পর্যন্ত ছড়িয়ে আছে ঘন কালো চুল। সাথী অনেক সেজেছে। অনুষ্ঠানের মধ্যমনি যেন সেই।
সাথীও দেখে ফেললো তাকে। ঠিক যেন প্রজাপতির মতো উড়ে এল সামনে। এক ঝলক মুক্ত হাওয়ার মতো মনে হল।
-বাব্বা, অনেক দিন পর দেখা। কতদিন ভেবেছি তোমার সাথে দেখা হয় না কেন।
-সাথী, তুমি কেমন আছো?
-দারুণ আছি। চাকরি করতাম একটা, ছেড়ে দিয়েছি। ভাবছি মন দিয়ে সংসার করবো, ঘুড়বো, বেড়াবো। চাকরি-বাকরি ভালো লাগে না। আমার কথা বাদ দাও, তুমি কেমন?
হঠাৎ দেখা হলে কি কথা বলবো তা নিয়ে আমি অনেক ভেবেছি। সেসব কিছুই বলা হলো না। কেবল একটা হাসলাম। এক সময় সাথী আমার এই হাসি মুগ্ধ হয়ে দেখতো। আজ মনে হয় খেয়ালই করলো না।
-দাঁড়াও, তোমাকে আমার হ্যাজবেন্ডের সাথে পরিচয় করিয়ে দেই। সাথী টিনে নিয়ে আসলো এক সুদর্শন যুবককে। আমরা হাত মিলালাম। সাথী পরিচয় করিয়ে দিয়ে বললো-‘সাগর ভাই, আমার দু’ক্লাশ সিনিয়ার ছিলেন। কিন্তু আমরা ভাল বন্ধু ছিলাম।’
আমি আবার হাসলাম।

 

(গল্পের নামটা নিয়েছি জীবনানন্দ দাশের কবিতা থেকে)

পোস্টটি ১১ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

একলব্যের পুনর্জন্ম's picture


ঘটনা কি বুঝতেছি না Sealed 

শওকত মাসুম's picture


ছোট মানুষের বুইঝা কাম নাই।

টুটুল's picture


জোশ...
চলুক Smile

একটা চমৎকার যায়গার দিকে এগোচ্ছে...

শওকত মাসুম's picture


ঘটনা এখানেই আটকে গেছে যে....

ভাঙ্গা পেন্সিল's picture


আমিও নুশেরাবুর কাছ থেকে ধার করে বলি...(উনিও যেন কার কাছ থেকে ধার করছিলেন)

একদিন সবকিছু গল্প হয়ে যায় Sad

শওকত মাসুম's picture


একদিন সবকিছু গল্প হয়ে যায় SadFrown

জ্যোতি's picture


শেষ বিকেলে গল্পটা পড়ে বিকেলটা আরো বিষন্ন হলো। জীবনের হিসাব আসলে কে মিলায়? ইশ্বর?

শওকত মাসুম's picture


মিললে তো কথাই ছিলো না।

জ্যোতি's picture


বালাই ষাট। আল্লাহ মাফ করুক। এমন ঘটনা যেন মিলে না যায়।

১০

শওকত মাসুম's picture


একমত

১১

মাহবুব সুমন's picture


নেক্সট দেখায় বাচ্চার সাথে সাগরকে পরিচয় করিয়ে দেবার সময় বলবে " এটা তোমার সাগর মামা " Smile

১২

কাঁকন's picture


Laughing

১৩

অপরিচিত_আবির's picture


১৪

শওকত মাসুম's picture


১৫

নাহীদ Hossain's picture


লেখার ধরনটা খুব ভাল লাগলো.........

১৬

শওকত মাসুম's picture


আমি গল্পকার না মোটেই।

১৭

কাঁকন's picture


হাজবেন্ড আর প্রেমিক (কাঙ্খিত পুরুষ) এর যুদ্ধটা অসম; এই যুদ্ধে কোন সময়ি হাজবেন্ড যেতে না'
আপনার এই সিরিজটা চলবে নাকি?

১৮

শওকত মাসুম's picture


সিরিজ করার যোগ্যতা হবে বলে মনে হয় না।

১৯

আহমেদ রাকিব's picture


লেখাটা কি চলবে? যদিও এখন পর্যন্ত কাহিনীতে তেমন কোনো বৈচিত্র্য নেই, তারপরেও অসাধারন বর্ণনা ভঙ্গি টেনে ধরে রাখে, নিয়ে যায় গল্পের গভীরতায়। সবচেয়ে ভালো লেগেছে আবেগের প্রকাশটা লাগামহীন নয়। ধীর স্থির আবেগ। পরের পর্বের অপেক্ষায়।

২০

শওকত মাসুম's picture


ঘটনার বৈচিত্রতার কথা মাথায় থাকলো

২১

অপরিচিত_আবির's picture


পরের পর্ব লিখবেন নাকি? লিখে ফেলেন, নয়তো কিরাম প্যাকেজ নাটক প্যাকজে নাটক বদবু আসছে

২২

শওকত মাসুম's picture


হাহাহাহাহাহা। ভাল বলছেন।

২৩

মুক্ত বয়ান's picture


‌এইটা কি হইল?? গত পর্বে কি সুন্দর ভালোবাসা, মিলের গন্ধ পাইলাম। আর, এইটায় হুট কইরা সাথীরে বিয়া তো দিলেনই, সাথে আবার জামাই'র লগে প্রেমিকের দেখাও করাইয়া দিলেন?? Shock

২৪

শওকত মাসুম's picture


ধৈর্য কম রে ভাই

২৫

ভাস্কর's picture


এইরম গল্প মাসুম ভাই লিখবার পারেন সেইটা আমরা জানতাম না...কিন্তু কেনো জানি মাসুম ভাইয়ের কাছ থেইকা এইরম গল্প প্রত্যাশাও করি না। গল্পের বেসিক গল্পটা ক্লীশে...এর কথা ওর কথা টাইপ ফর্মটাও ক্লীশে...যদিও আমি ইউজ্যুয়ালী ক্লীশে ফ্যান...কিন্তু সাগর সাথীর আগের সারপ্রাইজিং প্রেমকাহানীটা বেশি টানছিলো...

২৬

শওকত মাসুম's picture


আমারে কোনোভাবেই গল্পকার বলা যাবে না। হঠাৎ কইরা কেন জানি লেইখা ফেললাম। আর এইটা আগেরটারই পরের পার্ট কইতে পারেন। সত্যি মিথ্যার মিশেল আছে যথেষ্ট পরিমানে।

২৭

বোহেমিয়ান's picture


্বাচ্ছা কাচ্চা দেখতে চাই!! তাড়াতাড়ি ব্যবস্থা লন!!!

বুইড়া আঙ্গুল দেখাইলাম

২৮

শওকত মাসুম's picture


খাইছে

২৯

নজরুল ইসলাম's picture


শেষ?

৩০

শওকত মাসুম's picture


আর কতো?

৩১

নজরুল ইসলাম's picture


নাকি বাকীগুলা জনসম্মুখে বলার মতো না Wink

৩২

শওকত মাসুম's picture


অভিজ্ঞ লুকদের নিয়া এই এক সুবিধা। Tongue out

৩৩

নজরুল ইসলাম's picture


দুনিয়াতে এটাই একমাত্র অভিজ্ঞতা, বিয়ার বাজারে যার কোনো মূল্য নাই। তবে ইদানিং দেশ আগাইতেছে। প্রেমের বাজারে অভিজ্ঞতা কিছুটা দাম দুম পাইতেছে। Sad

৩৪

শওকত মাসুম's picture


তারমানে কি সিভিতে সব প্রাক্তনদের নাম ঠিকানা দিতে হয়? সবারটা কি আর মনে আছে? Smile

৩৫

একলব্যের পুনর্জন্ম's picture


স্ক্রিনশট টা রাখলাম মাসুম ভাই । কবে আবার ডিলিট করেন কিছুই তো বিশ্বাস নাই

৩৬

শওকত মাসুম's picture


ডিপার্টমেন্টের চেয়ারম্যান কে এখন? কোন স্যার?

৩৭

একলব্যের পুনর্জন্ম's picture


ওকে ভাইয়া । চেয়ারম্যান স্যার কেও একটা ডিস্ক দিবোনে । আর কাউকে দিতে হবে ?

৩৮

শওকত মাসুম's picture


লেখাপড়া নাই? পড়তে যাও Yell

৩৯

জ্যোতি's picture


একুশে টিভি তে একটা দিয়েন।

৪০

একলব্যের পুনর্জন্ম's picture


ইউটিউবে আপলোড করে দিবোনে আপু Wink

৪১

নজরুল ইসলাম's picture


দুইটা পর্ব পড়লাম।
যদি এটা অভিজ্ঞতা বর্ণন হয়, তাইলে কিছু বলার নাই।
আর যদি হয় সাহিত্য, গল্প... তাইলে দুইটা কথা আছে।

কিন্তু দেখা যাইতেছে এইটা নাসাহিত্য নাজীবন... কী কমু তাই বুঝতেছিনা।

জীবনাংশ হইলে ঠিকাছে, আপনার প্রতি সহমর্মিতা জানানো ছাড়া আর কিছু বলার নাই। ব্যাপার্না। এরকম হইতেই পারে। এটাই স্বাভাবিক। বি স্মার্ট। [আচ্ছা, আপনে স্মার্ট হওনের গল্পটা জানেন তো Wink ]

আর সাহিত্য হইলে চলেন দুইটা সুখ দুক্ষের আলাপ করি।

প্রথম পর্বটা ভালো লাগছিলো। একটা টিনেজ প্রেমের গল্প গল্প ব্যাপার ছিলো। এই পর্বে এসে দেখা গেলো সাগর ইতোমধ্যে মহাসাগর হয়ে গেছে। সাথীকে নিয়ে এখন আর 'যেও না সাথী' গাওনের কোনো উপায় নাই। আমি দুইটারে আলাদা দুটো গল্প ভাবতেই বেশি পছন্দ করতেছি। হয়তো পাত্র পাত্রী একই। এরকম একই পাত্রপাত্রী নিয়ে আরো পর্ব বাড়তে পারে।

এই গল্পে আমরা একজন নারীর দোদুল্যমানতা দেখি। এখানে সাগর আর শামীমরে আমার কেবলই দুইটা পুরুষ মনে হইছে, আর কিছু না। সাগর আর শামীমের জায়গায় যদু মধু যেই হইতো, একই কাণ্ড হইতো বইলা মনে হইছে। সাথীর মনোজগতে যে সাগরের বিচরণ, সেই সাগররে আদৌ কি সাথী চাইছিলো? এইটা আমি
নিশ্চিত না। আমার কাছে মনে হইছে কল্পনার একটা মানুষেই সে বেশি সচ্ছন্দ, সাগর তার একটা প্রতিরূপ কেবল।

শেষ পরিচয়পর্বটা পূর্বানুমেয়ই ছিলো। আবার মনে মনে একটা চমকের আশা ছিলো। [ছোটগল্পের কাছে যে দাবী সর্বদাই থাকে] কিন্তু কোনো চমক না দেওয়াটা চমক হয়ে যায় মাঝে মধ্যে।

৪২

শওকত মাসুম's picture


এইটা আসলে এক ধরণের মিশেল বলা যায়। আর এই গল্পটা একজন পুরুষের দৃষ্টিকোন থেকে বলা কিন্তু। এখানে আসলে সাথীর কোনো ভার্সন নাই। সাথীরে দেখে সাগর কল্পনা করছে যে সাথী ভাল নাই, সে কেবল সাগররেই ভাবে। স্বামীর মধ্যেও সাগররে খোঁজে। সেই কল্পনাটাই আসছে গল্পের দ্বিতীয় অংশে। আবার তৃতীয় অংশ বাস্তব, কল্পনা না। এখানে সাথীর কোনো ভার্সন নাই, কারণ সেইটা আমি জানি না। গান আছে না একটা, তুমি কি সেই আগের মতোই আছো? সেইরকম আরকি। সাগর ভাবতে পছন্দ করে সাথী এখনো তার জন্য সুখী হয় নাই।

গল্পের ২য় অংশে সাথীর লম্বা চুলের কথা বলা আছে। শেষ অংশে বলা আছে চুল কাটা। কল্পনা আর বাস্তবের পার্থক্য বুঝাইতে এইটা লিখছিলাম। 

ভাল  করে মনে হয় বুঝাইতে পারি নাই Frown

 

স্মার্টের গল্পটা কন।

৪৩

নজরুল ইসলাম's picture


হায় হায়, পুরা ব্যাপারটায় লেখকের সাগরের প্রতি পক্ষপাতিত্বের একটা অভিযোগ আনতে চাইছিলাম। শেষতক ভুলে গেছি। তাইলে একটা মৈত্রেয়ী দেবী লাগবো বুঝছি।

স্মার্টের গল্প তো এখানে কওন যাইবো না। মডু ব্যান করবো। এইটা চামে চুমে কোনো এক চিপায় গছায়া দিতে হইবো। যাতে মডুরা বুঝতেই না পারে এখানে কোনো খ্রাপ কথা বলা হইছে

৪৪

আতিয়া বিলকিস মিতু's picture


Laughing

৪৫

নুশেরা's picture


সাথীর বয়ানে (উত্তম পুরুষে) কোন অংশ নাই, বুঝলাম সেটা আসলে সাগরেরই কল্পনা। কিন্তু "ওদের কথা" থার্ড পার্সোনে শুরু হয়ে তারপর আবার সাগরের নিজের বয়ানে চলে আসলো কেন?

৪৬

শওকত মাসুম's picture


পোস্ট দেওয়ার পর ভুলটা ধরতে পারছি। কেউ কিছু বলে না বইলা চাইপা গেছিলাম। এই সব সাবহেড পুরাটাই তুলে দিতে হবে।

আর  এগুলা তো ছাপা হবে না, বেশি শুদ্ধ কইরাই বা কী হবে?

৪৭

নুশেরা's picture


ছাপা-হওয়া আর ছাপা-না-হওয়া লেখার পাঠকদের তাহলে আলাদা করে দেখেন। কষ্টিত হইলাম Sad

৪৮

নাজ's picture


হুমমমমম

৪৯

শওকত মাসুম's picture


বাহ, নাজরে দেখে ভাল লাগতাছে।

৫০

নাজ's picture


Smile

৫১

ভেবে ভেবে বলি's picture


সবাই বড় স্বার্থপর...

৫২

সাঈদ's picture


দারুন !!!

৫৩

নীড় সন্ধানী's picture


আপনার গদ্যের ভক্ত হইয়া যাইতেছি দিন দিন। অর্থনীতি ছেড়ে কোনদিন উপন্যাস বের করেন তাই ভাবতেছি Tongue out

৫৪

শওকত মাসুম's picture


আরে না, কি যে কন??

৫৫

মেসবাহ য়াযাদ's picture


আমি শামীমরে লাইক করলাম... জীবনের অতশত ঝামেলার মইধ্যে নাই বেচারা

সাগর ভাবলেই হইবো ? সাথী ম্যালা সুখী একটা মেয়ে...

তয় শেষতক সাগেরর লাইগা আফসুস !!!

৫৬

শাওন৩৫০৪'s picture


....আমি ভাবতে আছি...Foot in mouth

৫৭

জেবীন's picture


দু'টা দুই ধরনের ভাবতে পছন্দ করছি... আগেরটা  ভালো লাগার মজাও লেগেছে, এটা বেশি দারুন লেগেছে...

নজরুল্ভাই আর আপ্নের গল্প নিয়ে আলোচনাটা ভালো লাগছে...

৫৮

নুশেরা's picture


একদিন সবকিছু গল্প হয়ে যায়
একদিন কিছু গল্প ব্লগ হয়ে যায়

৫৯

মানুষ's picture


মাঝখানে চুলের অংশটা মাঝে মধ্যে টেলিভিশনে দেখায়, বিজ্ঞাপনে।

৬০

আতিয়া বিলকিস মিতু's picture


বউ এর জন্মদিন এ সাথীর কথা মনে আসা ঠিক নয়।

৬১

তানবীরা's picture


হুমম খুঁজে তাকে পাওয়া গেলো

৬২

নরাধম's picture


"হাজবেন্ড আর প্রেমিক (কাঙ্খিত পুরুষ) এর যুদ্ধটা অসম; এই যুদ্ধে কোন সময়ি হাজবেন্ড যেতে না"

প্রেমিক যদি হাসবেন্ড হয়া যায় তবুও?? Smile

মাসুম্ভাই, এসব বিরহ টাইপ গল্প বাদ দেন। মন ভাল করার কিছু দেন, আপনার মত কেউ হাসাতে পারেনা।

৬৩

একরামুল হক শামীশ's picture


আমি আবার কি দোষ করলাম!!

কবে বিয়ে করে ফেললাম, নিজেও জানলাম না Puzzled

তবে গল্প ব্যাপক ভালো হয়েছে। মাসুম ভাইয়ের কাছ থেকে আরো গল্প চাই। Smile

৬৪

মীর's picture


এই ব্লগে পুরোনো লেখা খুঁজে পাওয়ার নিয়ম কি জানি না। এইটা খুবই দুঃখের কথা। এই লেখাটা আজ অতিথি হিসেবে মন্তব্যকারী একরামুল হক শামীমের সৌজন্যে পড়লাম। এর আগে সামু'তেও মাসুম ভাইয়ের সাথী-সাগর পড়েছি। এইটা আরো চলা উচিত।

৬৫

সাহাদাত উদরাজী's picture


বাহ বাহ.।।।

৬৬

মীর's picture


আবারো একবার জানায় গেলাম, সাথী-সাগর আরো চলা উচিত।

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

শওকত মাসুম's picture

নিজের সম্পর্কে

লেখালেখি ছাড়া এই জীবনে আর কিছুই শিখি নাই।