ইউজার লগইন

মরণেরে তুহু মম শ্যাম সমান

জুলমাত খোন্দকার ঘুম থেকে উঠে হকচকিয়ে গেলেন। ঘরে এই সময় কেউ থাকার কথা না। খুব মনে আছে দরজা-জানালা সব বন্ধ করে ঘুমিয়েছিলেন। অথচ দেখলেন বিছানার কোনে একজন বসে আছে। মুখ দেখা যায় না, কালো একটা আলখেল্লা পড়া।
জুলমাত খোন্দকার চিৎকার করে উঠতে চাইলো, কিন্তু মনে হল কেউ একজন গলা চেপে ধরে আছে। ফলে নিজের ফ্যাসফ্যাস গলাই অজানা মনে হলো তার কাছে। ভয়মিশ্রিত কন্ঠে বলে উঠলো-ক্কে ক্কে আপনি?
লোকটি সেভাবেই বসে থেকে কেবল মুখটা জুলমাত খোন্দকারের দিকে ঘুরিয়ে আনলো। মুখটা ভয়াবহ সাদা, কেবল চোখ দুটোই কালো। মোটেই স্বস্তি দেয় না এই মুখ। অমঙ্গলের পরিস্কার ঈঙ্গিত সেখানে।
জুলমাত খোন্দকার আবারো প্রশ্ন করলো-কে আপনি?
লোকটি নির্মোহ ভঙ্গিতে কেবল বললো-আমি মৃত্যু।

criterion seventh seal 420ff.jpg
ধরা যাক লোকটার চেহারা ঠিক এরকম

জুলমাত খোন্দকারের চোয়াল ঝুলে পড়লো। তার বয়স এখন ৩৫, বিয়ে করেনি। আয়শা নামের একটি মেয়ের সঙ্গে বিয়ের কথাবার্তা চলছে। মাঝে মধ্যে ফোনে কথাও হয়। জুলমাত খোন্দকারের ঠিক এসময়ে আয়শার কথা মনে পড়লো।
ভয় পেলে একটু কথা জড়িয়ে যায়, তোতলানোর ভাব আসে। জুলমাত খোন্দকার ভীষণ ভয় পেয়ে জানতে চাইলো-আ আ আ আপনি এখানে কেন?
মৃত্যু নামের লোকটা সেই একই ভঙ্গিতে বললো-আপনাকে নিতে এসেছি। আপনার সময় হয়ে গেছে।
জুলমাত খোন্দকার অসহায়ের মতো খানিকক্ষণ তাকিয়ে থাকলো মৃত্যুর দিকে। তারপর এইটুকুই বলতে পারলো-এতো তারাতারি?
মৃত্যুর চোখে একটু কী করুনা দেখা গেল? জুলমাত খোন্দকারের অন্তত তাই মনে হলো। মৃত্যু বললো-তালিকা আমি তৈরি করি না। এই দেখেন আমার হাতে লম্বা তালিকা। আমার হাতে সময় নেই। আরও অনেক জায়গায় যেতে হবে।
জুলমাত খোন্দকার সত্যি তাকিয়ে দেখলো, মৃত্যুর হাতে লম্বা একটা কাগজ। সেখানে অনেক নাম।
list.jpg

মৃত্যু তার সঙ্গে কথা বলছে দেখে খানিকটা সাহস ফিরে পেল জুলমাত খোন্দকার। ভাবলো কিছুক্ষণ ঠেকিয়ে রাখা যায় কীনা। মনে পড়লো অনেক আগে দি সেভেন্থ সিল নামে একটা সুইডেনের সিনেমা দেখেছিল। সেখানে নায়কটা মুত্যুকে ঠেকিয়ে রাখতে মৃত্যুর সঙ্গে দাবা খেলা শুরু করেছিল।
theseventhseal1.jpg
কিন্তু সমস্যা হচ্ছে জুলমাত খোন্দকার নিজে ভাল দাবা খেলতে পারে না। সুতরাং দাবা খেলে ঠেকিয়ে রাখা যাবে না। অন্য পথ ধরতে হবে। সাহস করে কথাটা বলেই ফেললো।
বললো-এসেছেন যখন, একটু সময় দেন। গ্রামে মা-বাবা থাকেন। আমি মারা গেলে তারা আমার জমানো টাকা কিভাবে পাবে সেটা একটু ঠিকঠাক করে রাখি। আরও ছোটখাট কিছু কাজ আছে। আর তো এই পৃথিবীতে আসতো পারবো না। এইটুকু সময় অন্তত আমাকে দেন। সে আয়শার কথা আর বললো না। কী লাভ মৃত্যুকে আয়শার পথ চিনিয়ে দেওয়া।
মৃত্যুর খানিকটা দয়া হল। বললো-বেশি না কিন্তু। আমাকে আবার আরেক জায়গায় যেতে হবে।
জুলমাত খোন্দকার ভাবলো, সময়টা কাজে লাগাতে হবে। রান্না ঘরে গেল সে। যত্ন করে দুটো স্যান্ডুয়েচ বানালো। তারপর আলাদা আলাদা প্লেটে নিয়ে বসলো আবার বিছানায়। একটা বাড়িয়ে দিল মৃত্যুর দিকে। অবাক হয়ে দেখলো মৃত্যুও ক্ষুধার্ত হয়। স্যান্ডুয়েচটা খেয়ে শুরু করলো।
এবার জুলমাত খোন্দকার যত্ন করে দুকাপ কফি বানালো। ব্রাজিল থেকে তার এক বন্ধু কফিটা এনে দিয়েছিল। ঢাকা থেকে সে কিনে রেখেছে কফি ক্রিম। জুলমাতের অলস সময়ের সবচেয়ে বড় বিলাসিতা হচ্ছে আয়েশ করে মগ ভর্তি কফি খাওয়া।
কাপ ভর্তি কফিটা এবার সে রাখলো মৃত্যুর সামনে।
img_large_watermarked.jpg
মৃত্যু সেটিও নিল। জুলমাত খোন্দকার এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকলো সেদিকে। কষ্ট আর কৌশলটা বৃথা যায়নি। পাঁচ মিনিটের মধ্যে এলিয়ে পড়লো বিছানায়। গভীর ঘুমে মৃত্যু। ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে দিয়েছিল জুলমাত খোন্দকার।

ঘুমিয়ে গেলেও জুলমাত খোন্দকার জানে পালিয়ে গেলে লাভ হবে না। মৃত্যু ঠিক তাকে খুঁজে বের করবে। অন্য উপায় বের করতে হবে। মৃত্যুর পকেট থেকে সে তালিকাটা বের করলো। দেখলো সত্যিই তার নাম সবার আগে। জুলমাত খোন্দকার ইরেজার দিয়ে ঘষে ঘষে প্রথম নামটা মুছে ফেললো। তারপর সেই নামটা নিজ হাতে লিখে দিল সবার শেষে। তারপর অপেক্ষায় থাকলো মৃত্যুর, ঘুম থেকে জেগে উঠার জন্য।
টানা ৬ ঘন্টা ঘুমাল মৃত্যু। উঠেই আবার হাই তুললো। তারপর তাকালো জুলমাত খোন্দকারের দিকে। একটু হাসিও দেখা গেল তার মুখে। জুলমাতকে বললো-অনেক ঘুম পেয়েছিল। সারা রাত কাজ করেছি তো তাই। কফিটাও ছিল মজার। আপনি অনেক যত্ন করেছেন। অন্য সবাই ভয় পেয়ে উল্টা পালটা করে। আপনি করেননি। আপনার উপর আমি খুশী। তাই আমি সিদ্ধান্ত বদল করেছি। কেবল আপনার জন্যই এই সিদ্ধান্ত বদল।
তারপর মৃত্যু জানালো সেই সিদ্ধান্ত। বললো- কেবল আপনার জন্যই পুরোটা অদল বদল করলাম। আপনার নাম ছিল শুরুতে। তাই পালটে দিলাম। এই মুহূর্ত থেকে তালিকার একদম শেষ নামটা দিয়ে কাজ শুরু করবো...
আবার চোয়াল ঝুলে পড়লো জুলমাত খোন্দকারের।
seventh_seal_bltn_jpg_627x325_crop_upscale_q85.jpg

পোস্টটি ১৬ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

উচ্ছল's picture


হা হা হা......ব্যপক হইছে...ফাটাফাটি... Big smile

শওকত মাসুম's picture


ধইন্যা Laughing out loud Smile Big smile

লীনা দিলরুবা's picture


মুভি নিয়ে রিভিউ লেখার নতুন স্টাইলটা দারুণ লেগেছে।

শওকত মাসুম's picture


এই রিভিউ না তো। মৃত্যুর সঙ্গে দাবা খেলা ছাড়া আর কোনো মিল নেই। মুভিটা দেখে আদলটা নিয়েছি মাত্র।

লীনা দিলরুবা's picture


আমার বোঝার ভুল। আমি মুভির সাথে যোগসূত্র স্থাপন করেছিলাম। পোস্ট ইউনিক। দারুণ!

শওকত মাসুম's picture


কৌতুকটা কিন্তু মৌলিক না Smile

রায়েহাত শুভ's picture


বেচারা জুলমত

শওকত মাসুম's picture


হুম, ভাগ্য, সবই ভাগ্যের ব্যাপার Stare

লিজা's picture


Star Star Star Star Star

১০

শওকত মাসুম's picture


Smile Laughing out loud Big smile Wink Tongue

১১

মেসবাহ য়াযাদ's picture


দারুন গুরু। চমৎকার হৈছে Big smile
(আমি যে ঘোরাঘুরি পোস্টে আপনার ভয় দেখাইলাম একজনরে... আপনিতো কিছুই কৈলেন্না .... Stare )

১২

শওকত মাসুম's picture


বইলা আসছি তো। Smile

১৩

লাবণী's picture


মৃত্যুর সাথে দাবা খেলা???!!!!! Nail Biting
ইয়া নাফসি......ইয়া নাফসি.........
====================
রম্য দারুণ হয়েছে।

১৪

শওকত মাসুম's picture


দাবা খেলার ছবি দিলাম তো Smile

১৫

জ্যোতি's picture


ajrailer sathe emon kora jay kemne?chintay porlam post pore.
Ei cinemata eka dekhle voy pabo,koekjon mile dekhte iccha korche.

১৬

মেসবাহ য়াযাদ's picture


আরে বেলি আপা নাকি ? আছেন কিরাম ? Wink

১৭

জ্যোতি's picture


valai achi.rastai daraya bristite viji.apne kiram dadavai?

১৮

শওকত মাসুম's picture


মুভিটা দেখবা। দি সেভেন্থ সিল আমার দেখা সবচেয়ে কঠিন সিনেমা।

১৯

বিষণ্ণ বাউন্ডুলে's picture


হাঃ হাঃ Laughing out loud

মজা পাইলাম ।

২০

শওকত মাসুম's picture


Smile Laughing out loud Big smile

২১

জেবীন's picture


আরে, দারুনতো! Laughing out loud আহারে জুলমত, বুদ্ধির প্যাচ কষতে গিয়া হইলি হাবা হাসমত! Smile

২২

শওকত মাসুম's picture


পুরাই হাবা হাসমত Smile

২৩

বিষাক্ত মানুষ's picture


Cool

২৪

শওকত মাসুম's picture


Smile Smile Smile

২৫

অণু পাঠক's picture


বুনন টা খুব ভাল হয়েছে।

২৬

শওকত মাসুম's picture


Smile Smile Smile

২৭

ভাস্কর's picture


অসাধারণ!

২৮

শওকত মাসুম's picture


ধইন্যা

২৯

মীর's picture


ব্যপক হইসে! ফাটাপাটি...

৩০

শওকত মাসুম's picture


ধইন্যা মীর

৩১

হাসান রায়হান's picture


একদম টপক্লাস হইছে।

৩২

জেবীন's picture


রায়হানভাইরে ইদানিং দেখা যায় না কেন! Stare

৩৩

শওকত মাসুম's picture


আপনে আছেন তাইলে Puzzled

৩৪

মীর's picture


আমিও একই কথা ভাবতেসিলাম। রায়হান ভাই কই?

৩৫

স্বপ্নের ফেরীওয়ালা's picture


উত্তর-মাসুমীয় হইছে Wink

~

৩৬

শওকত মাসুম's picture


Laughing out loud Big smile Wink

৩৭

নেয়ামত's picture


অনেক ভালো লাগছে । এটা বইয়ে দেয়া উচিত ছিলো।

৩৮

শওকত মাসুম's picture


বই তো আগেই বের হয়েছে। আর এটা তো এখনকার লেখা

৩৯

মানুষ's picture


হুম। যে পথেই যাই না কেন মুক্তি নাই

৪০

শওকত মাসুম's picture


হুম। ভাগ্য

৪১

নীড় সন্ধানী's picture


আগে কন - মুভিটা দেখা শেষ করে আপনার মাথা ধরে নাই? আমি কোয়ার্টার দেখার পরেই মাথা ধরায় আক্রান্ত হইছিলাম। তারপর বহুবার চেষ্টা করেও শেষ করতে পারি না। মৃত্যুর পর আবার ট্রাই নিতে হবে Steve

৪২

শওকত মাসুম's picture


মুভিটা দেখার পর নেট ঘাইটা লেখাপড়া করতে হইছে। তাতে আমি ১০% বুঝছি মনে হয়

৪৩

নীড় সন্ধানী's picture


হে হে, তাইলে বুঝেন, কেন এই ছবি এদ্দিনেও শেষ করতে পারি নাই।

অট-আপনার মোবাইল নাম্বার ঠিক আছে? একটা জরুরী বিষয়ে আলাপ করতে চাই, কোন সময় সুবিধা হয় আপনার?

৪৪

শওকত মাসুম's picture


এনি টাইম নীড়দা

৪৫

তানবীরা's picture


এধরনের কি একটা জানি পড়েছিলাম, এ মূহুর্তে মনে করতে পারছি না।

লেখা অসাধারণ হয়েছে

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

শওকত মাসুম's picture

নিজের সম্পর্কে

লেখালেখি ছাড়া এই জীবনে আর কিছুই শিখি নাই।