ইউজার লগইন

দিবানিদ্রা

আপনার দিবানিদ্রা নামে কোন রোগ আছে?

ভয় পাবেন না। দিবানিদ্রাকে যারা রোগ বলে আমি তাদের সাথে একমত নই। পৃথিবীতে যদি একখন্ড স্বর্গও থাকে তা লুকিয়ে আছে দিবানিদ্রার ভেতরেই।

দুনিয়ার খুব বেশী দেশে এই উপহার নেই। বাংলাদেশের আলসে কুঁড়েদের জন্য প্রকৃতি দিবানিদ্রা নামক একটা জিনিস উপহার দিয়ে গেছে।

দিবানিদ্রা বলতে দিনের ১২/১৩ ঘন্টার মধ্যে মূলত দুপুরের ভাতঘুমকেই বোঝায়। ঠিক কিনা? যদি ঠিক হয় তাহলে দিবানিদ্রা নিয়ে একটা কমন সুখস্মৃতি লিখতে বসে যাই।

বলে রাখি, সব দিবানিদ্রায় স্বর্গসুখ নেই। যেসব কুঁড়ে দিনমান বিছানায় গড়াগড়ি খায় তাদের জন্য কি দুপুর কি সকাল কি বিকেল সবই সমান। যে কোন সময় বিছানায় গড়াগড়ি খাওয়া এই লোকগুলোকে আমি দিবানিদ্রার হিসেবের বাইরে রেখেছি। আমার এক সাপ্তাহিক কুঁড়ে কলিগ আছে। সে বিষুদবার অফিস থেকে ফিরে রাতের খাবার খেয়ে সেই যে ঘুমোয়, সেই ঘুম ভাঙ্গে শুক্রবার বিকেলবেলা। মাঝখানে আস্ত একটা ব্রেকফাস্ট এবং লাঞ্চ হাপিস। তার কাছে অবসরের পুরোটাই নিদ্রা, দিবানিদ্রা বলে আলাদা কোন সেকশান নেই।

কিন্তু আমার চোখে দিবানিদ্রা হতে হবে এরকম-

আপনাকে খুব ভোরে উঠে নাওয়া খাওয়া সেরে সাড়ে সাতটার মধ্যে ট্রেন স্টেশানে পৌঁছাতে হবে। পৌঁছেই দেখবেন সবগুলো সীট বেদখল। আপনি রড ধরে দাড়িয়ে যাবেন। প্রচন্ড গরমে সমস্ত ট্রেনটা ঘামছে। সেই ঘাম নিয়ে ভার্সিটি স্টেশানে পৌছাঁতে হবে। (ও হ্যাঁ বলা হয়নি, জায়গাটা চট্টগ্রাম ভার্সিটি হতে হবে)। স্টেশান থেকে ঘামতে ঘামতে ক্যাম্পাসে পৌঁছাবেন। তার আগে এক ফাঁকে 'মউর দোয়ানে' গিয়ে সিঙাড়া চা খেয়ে নিতে পারেন। ক্লাসটা গোগ্রাসে গিলে না গিলে আবারো ফিরতি ট্রেনের জলন্ত চুলোয়। ঝুলতে ঝুলতে জ্বলতে জ্বলতে দুপুর আড়াইটায় শহরে পৌঁছে যাবেন। বাসায় গিয়ে গোসল খাওয়া সারতে সারতে বেলা সাড়ে তিনটা, তখন আপনার সমস্ত শক্তি শেষ। বিছানা প্রবলভাবে ডাকছে।

আপনি শেষ গ্লাস পানি খেয়ে বিছানার দিকে ছুটে যেতে না যেতেই শুভ্র বিছানা আপনাকে আলিঙ্গন করবে, আপনিও করবেন, দুজন দুজনকে পেয়ে গড়াগড়ি খাবেন কিছুক্ষণ। সমস্ত শরীর জুড়ে ক্লান্তির কনাগুলো সুখ সুখ হয়ে ফিসফিস করতে থাকবে। চোখের পাতাটা ভারী হয়ে আসবে অজান্তেই। জানালা দিয়ে দৃশ্যমান পেয়ারা আর কাঠাল গাছের মধ্যে পার্থক্য নির্ধারণ করা অসম্ভব হয়ে পড়বে।

তারো কয়েক মুহুর্তপর চোখের সামনে আর কিছুই থাকবে না। মাথার ভেতরে পরম সুখের একটা রিনিঝিনি সঙ্গীত বাজতে থাকবে নিঃশব্দে।

এই হলো দিবানিদ্রা, আমার প্রিয়তমা নিদ্রাদেবী। আপনার কী এই দেবীর আশীর্বাদ পেয়েছেন কোনদিন?

পোস্টটি ১৫ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

জোনাকি's picture


হ্য আর ঠিক সে সময়ে বিদ্যুৎ চলে যেবে ফ্যানটা আস্তে আস্তে তার ঘুর পাক কমিয়ে স্হির হয়ে যেবে আর প্রচন্ড ভেপসা গরম এসে আলিঙ্গন করবে.....( এমনটাই ঘটেছে আমার সাথে দেশে থাকতে ) Crazy

নিকোলাস's picture


টিপ সই

নীড় সন্ধানী's picture


খুবই পরিচিত একটা চিত্র! Cool

লীনা দিলরুবা's picture


দিবানিদ্রা আমার খুবই প্রিয়। দুটি ছুটির দিন, মোটামুটি দেড়-দুই ঘন্টা ভাতঘুম দেই। আহা! কি যে সুখ পাই Big smile

নীড় সন্ধানী's picture


আপনার জন্য এক কেজি ঈর্ষা Smile

নাঈম's picture


আমি তো প্রায় সময়ই দিবানিদ্রা যাই, রাইতে ঘুমাইতে প্রায়ই দেরী হয় বিদ্যুত মামার যন্ত্রণায়( Angry Angry Angry ) , ফলাফল সকাল বেলা অফিসে আইসা সিটে বইসা কল্লা ছিলা মুরগীর মত ঝিমানি, আবার দুপ্রে খাওনের পর সেইম ঝিমানি, পুরাই দিবানিদ্রার ভিত্রে আছি কি যে হইব আমার জীবনে Sad Sad Sad

নীড় সন্ধানী's picture


আপনার জন্য একমন ঈর্ষা Tongue

লাবণী's picture


কেন জানি আমার দিবা নিদ্রা আসে না কখনো!! Thinking

রাসেল আশরাফ's picture


তিন ঘন্টার দিবা নিদ্রা দিয়ে উঠেই এই পোস্টটা পড়লাম। Big smile

১০

নিকোলাস's picture


Laughing out loud

১১

নীড় সন্ধানী's picture


Shock Shock Shock
কাজকাম নাইক্যা?

১২

নিকোলাস's picture


নিদ্রাদেবী আমার প্রতি বড্ড অপ্রসন্ন।
তাই, দিবা বা রাত্রি নেই......
দেবীর দেখা পেলেই খুশী।
Smile

১৩

নীড় সন্ধানী's picture


আম্মো Wink

১৪

শওকত মাসুম's picture


এবার চিটাগং গেলে আপনার বাসায় আসবো ভাতঘুম দিতে।

(অফটপিক: চিঠিটা খোঁজা হচ্ছে)

১৫

নীড় সন্ধানী's picture


চিঠি না, চিঠির মালিককে দরকার আমার। চিঠিটা আছে আমার কাছে। Smile

১৬

মীর's picture


দিবানিদ্রা খুব ভীষণ ভালো জিনিস। পশ্চিম ইউরোপের লোকজন সুযোগ পেলেই দুপুরের দিকে একটা ছোট্ট ন্যাপ নিয়ে ফেলে। পূর্ব ও মধ্য ইউরোপের লোকজন এটার মজা বোঝে না। আমার বেচারাদের জন্য বেশ খারাপ লাগে Big smile

১৭

নীড় সন্ধানী's picture


পূর্ব এশিয়ার লোক সমাজতন্ত্রের গুতানিতে দিবানিদ্রা ভুলে গেছিল

১৮

রায়েহাত শুভ's picture


আহা দিবানিদ্রা কিংবা দেবীনিদ্রা Smile

১৯

নীড় সন্ধানী's picture


নিদ্রা দেবী Glasses

২০

স্বপ্নের ফেরীওয়ালা's picture


আহা..পৃথিবীতে নিদ্রা ছাড়া আর আছে কি?

~

২১

নীড় সন্ধানী's picture


সুখের বিষয় আর কি আছে? Tongue

২২

সাঈদ's picture


দিবানিদ্রা !!! আহ !!! ভাবতেই চোখে ঘুম চইলা আইলো

২৩

নীড় সন্ধানী's picture


আপনার তো ঘুমানোর মেলা টাইম Laughing out loud

২৪

উচ্ছল's picture


আহ্্ ... জয়তু দিবানিদ্রা... Love

২৫

নীড় সন্ধানী's picture


Party Party

২৬

লিজা's picture


নিদ্রা বিষয়টাই আমার ব্যাপক প্রিয় । আহা ঘুম Day Dreaming

২৭

নীড় সন্ধানী's picture


যে জন দিবসে....নিদ্রা হরিষে... Cool

২৮

তানবীরা's picture


আয় হায় কোন এক জীবনে আমিও ঠিক এরকম দিবানিদ্রা দিতাম। মিলে গেলো কেমন! Glasses

ভার্সিটির বাস দিয়ে ঝুলতে ঝুলতে বাসায় আসতাম অবশ্য দুপুরে আড়াইটা তিনটায়।

এখনো মাঝে মাঝে ইচ্ছে হয় কিন্তু ইচ্ছেরা ডানা মেলার সুযোগ পায় না Puzzled

২৯

বিষণ্ণ বাউন্ডুলে's picture


দিবানিদ্রায় আমার এলারজি আছে।

তয়, আপনার এই লেখা পইড়া ট্রাই করার মন চাইতাছে! Tongue

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

নীড় সন্ধানী's picture

নিজের সম্পর্কে

ভুল ভূগোলে জন্ম নেয়া একজন অতৃপ্ত কিন্তু স্বঘোষিত সুখী মানুষ!