ইউজার লগইন

অদ্ভুত উটের পিঠে চলছে স্বদেশ

সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটগুলোসহ ইন্টারনেট ব্যবস্থায় নজরদারিতে (ফিল্টারিং) ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়েগুলোতে(আইআইজি) বিশেষ প্রযুক্তি বসানোর জন্য বেশ কয়েকটি প্রস্তাব পেয়েছে সরকার।

বিটিআরসির বিজ্ঞাপনে বলা হয়, আগ্রহী প্রতিষ্ঠানকে এমন ইন্টারনেট নিরাপত্তা ব্যবস্থা তৈরি করে দিতে হবে যাতে মূল সাইট চালু রেখেই সহজে আপত্তিকর বিষয়গুলো ইন্টারনেট থেকে সরিয়ে ফেলা যায়।

“রাষ্ট্রীয়, সমাজ, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ায়- ওয়েবসাইটগুলো থেকে এমন বিষয় সনাক্ত করে তা বন্ধ করে দেয়া হবে এই প্রযুক্তির মাধ্যমে।”

ফিল্টার চালু হলে সামাজিক যোগযোগের ওয়েবসাইট ব্যবকারকারীদের ব্যক্তিগত গোপনীয়তা লঙ্ঘিত হবে কি না জানতে চাইলে মোস্তফা জব্বার বলেন, “বিষয়টি অন্যভাবে দেখতে হবে। কেউ যদি অন্য কাউকে সরাসরি কটাক্ষ বা ক্ষতির কারণ তৈরি করে, তা নিয়ন্ত্রণ বা ফিল্টার করা উচিত। তা না হলে সমস্যা থেকেই যাবে।”

উন্নত বিশ্বে বিভিন্ন দেশে এ ধরণের নজরদারির ব্যবস্থা রয়েছে বলেও মোস্তফা জব্বার জানান।

বাংলার আইটি মহাগুরু মোস্তফা "স্টিভ" জব্বার যখন বললেন উন্নত বিশ্বে এ ধরণের নজরদারির ব্যবস্থা আছে, কিছুটা অবাক হয়ে খোঁজ শুরু করলাম, কোথায় কোথায় আসলে বিশেষ নজরদারির বন্দোবস্ত আছে।

নিরাপত্তার অজুহাতে বিভিন্ন টেলিফোন এবং অনলাইন যোগাযোগের পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য সংগ্রহের অসীম ক্ষমতা আছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার।
তবে নাগরিক অধিকার আন্দোলন কর্মী এবং সিনেটর ও কংগ্রেসম্যানদের সবাই এমন অসীম ক্ষমতা ও খবরদারির অধিকার বিষয়ে খুব বেশি সন্তুষ্ট নন, তারা এই ক্ষমতা নিয়ন্ত্রনের পক্ষে। ১১ই সেপ্টেম্বর ২০০১ এ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা প্রশ্নে জরুরি ভিত্তিতে অনুমোদিত এই আইনের যথোপযুক্ত পর্যালোচনা না করেই সেটা অনুমোদন দেওয়া হয়েছিলো এমন অভিমত তাদের বিভিন্ন সাংসদদের।
এই অধিকার চ্যালেঞ্জ করে বেশ কয়েকটি আইনী লড়াইও সেখানে চলমান।

রাষ্ট্রের নিরাপত্তা, রাষ্ট্রের নাগরিকদের জান-মালের নিরাপত্তার বাইরে “রাষ্ট্রীয়, সমাজ, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় বিদ্বেষ" ছড়ানো প্রতিরোধ করার মতো কোনো আইন উন্নত বিশ্বে প্রকাশ্যে নেই। কিন্তু বাংলাদেশে এইসব নির্যাতন ও নিয়ন্ত্রনমূলক আইন ও তদারকির উদ্যোগ গ্রহনে আগ্রহী সরকার যেখানে রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তদারকির জন্যে বাংলাদেশের আইসিটি এক্টে বিভিন্ন ধারা উপধারা সন্নিবেশিত আছে।

শিশু পর্ণোগ্রাফি বিষয়ে উন্নত বিশ্বের শক্ত অবস্থান আছে, আমাদের আইসিটি এক্টে কিংবা মহিলা ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ আইনে তেমন শক্ত কোনো ধারা নেই, প্রতি দিনের সংবাদপত্র খুললে দেখা যায় বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে ৩ থেকে ১৩ সকল বয়েসের শিশুই ধর্ষিত হচ্ছে, এদের কাউকে কাউকে হত্যা করা হচ্ছে, কাউকে কাউকে আহত করা হচ্ছে। যদিও দ্রুত বিচার আইনে এদের বিচারের একটা ধারা আছে নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ আইনে কিন্তু আমাদের বিশেষ আদালতের ক্ষমতা ও আইনের আওতায় আসা শিশু ধর্ষকের পরিমাণের তারতম্যে বিচার চাহিদামতো দ্রুততায় সমাপ্ত করা সম্ভব হচ্ছে না। আরও নানা ধরণের আইনি জটিলতা কিংবা ক্ষমতার কারসাজিতে আমরা দেখলাম কয়েক মাস আগে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার একজন জামিনে মুক্তি পেয়ে সেই শিশুটিকে পুনরায় ধর্ষণ করে হত্যা করেছে। আমরা আমাদের শিশুদের নিরাপত্তা দিতে অনাগ্রহী কিন্তু অন লাইনে কখন কে সরকার বিরোধী, সাম্প্রদায়িকতা বিরোধি বক্তব্য দিলো সেটা খুঁজে তদন্ত কর্মকর্তাকে জানাতে আগ্রহী এবং সরকারও এই উদ্যোগে অন লাইনে নিজের কতৃত্ব বজায় রাখতে চায়।

তাকে সহায়তা দেওয়ার জন্যে আগ্রহী প্রতিষ্ঠানও আছে অনেক যাদের কাছে বাক স্বাধীনতা, নাগরিক নিরাপত্তা, নাগরিকদের হয়রানি থেকে বাঁচানোর চেয়ে নিজের পকেটে টাকা ঢুকানোর আ্গ্রহ বেশী।

About 21,000 requests for access to Google data were made by governments around the world in the first six months of this year, according to the latest transparency report of the search engine.

এই ট্রান্সপারেন্সী রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে গত ২২৬ দিন ধরে বাংলাদেশে ইউটিউব বন্ধ, বাংলাদেশ সরকার ইনোসেন্স অফ মুসলিমস কিংবা এমন নামের কোনো একটা ভিডিও ইউটিউব থেকে নামিয়ে ফেলতে গুগলকে অনুরোধ করেছে। ফেসবুক এমন কোনো তথ্য প্রকাশ করে নি বলে জানানো যাচ্ছে না আপত্তিকর হিসেবে অভিহিত করে বাংলাদেশ সরকার এবং বাংলাদেশর থেকে কত হাজার ফেসবুক ব্যবহারকারী তথ্য অপসারণের অনুরোধ জানিয়েছেন এবং এই সব অনুরোধের কত শতাংশ তারা আমলে এনেছেন।
তবে চেক প্রজাতন্ত্র এবং স্লোভাকিয়ার লোকজন এমন ঢালাও তথ্য সরবরাহকে নাগরিক অধিকার লঙ্ঘন হিসেবে বিবেচনা করেছেন এবং তাদের কয়েকজন নির্বাচিত সাংসদ এই আইনি বিধিকে অগ্শনযোগ্য হিসেবে চ্যালেঞ্জ করেছেন।

EFF welcomes a strong voice in the fight against data retention mandates: on Wednesday, a group of Slovak MPs filed a complaint challenging the constitutionality of Slovakia's mandatory data retention law. The law compels telcos and ISPs to monitor the communications of all citizens including those not suspected or convicted of any crime, and in case law enforcement officials demand them for any reason.
A mass untargeted collection of communications records of ordinary, non-suspected people can not be tolerated where freedom is valued. Data retention mandates are a threat to privacy and anonymity, and have been proven to violate the privacy rights of millions of Europeans. And some courts in Europe have already agreed.

The Czech Constitutional Court declared in March 2011 that the Czech mandatory data retention law was unconstitutional.

একই রকম নাগরিক প্রতিরোধের মুখে কানাডার বিতর্কিত ইন্টারনেট সার্ভেইলেন্স আইন প্রত্যাহার করতে বাধ্য হয়েছে সরকার।

"We will not be proceeding with Bill C-30, and any attempts we will have to modernize the Criminal Code will not contain the measures in C-30 -- including the warrantless mandatory disclosure of basic subscriber information, or the requirement for telecommunications service providers to build intercept capabilities within their systems,
The legislation would have forced Internet service providers to maintain systems that allowed police to intercept and track online communications.

"Any modernization of the Criminal Code ... will not contain those."

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন, ইউকে, অস্ট্রেলিয়া, বিশ্বের অধিকাংশ উন্নত দেশ রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা প্রশ্নে একটু কঠোর নিয়ন্ত্রনমূলক ব্যবস্থা গ্রহনের পক্ষে থাকলেও ব্যক্তিগত পরিসরে, ব্যক্তিগত যোগাযোগের আওতায় রাষ্ট্রীয় নিয়ন্ত্রন ও নজরদারিকে নাগরিক অধিকার পরিপন্থী স্বীকৃতি দিলেও বাংলাদেশ সরকার টেন্ডার ডেকে নাগরিকের অধিকার হরণের নামে এক ধরণের স্বেচ্ছা নিয়ন্ত্রন আরোপের সিদ্ধান্তে নেওয়াকে কোনোভাবেই সমর্থন করা যায় না। বাংলার আইটি গুরু স্টিভ জব্বার সুপারিশ করলেও না।

আইটি বিষয়ে জব্বার সাহেবের "গভীর??" জ্ঞান মূলত পাটিগণিত ব্যবহার করে টেন্সর ক্যালকুলাস সমাধানের চেষ্টা, সেটা না করে তিনি যদি তার "কপিরাইটকৃত" বিজয় কি বোর্ড নিয়ে মাতামাতি করেন সেটা দেশের ও দশের জন্যে অধিক মঙ্গলজনক হবে।

পোস্টটি ৯ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

আরাফাত শান্ত's picture


জরুরী ছিলো পোস্ট। প্রথম পাতায় দেন ভাইয়া!

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

রাসেল's picture

নিজের সম্পর্কে

আপাতত বলবার মতো কিছু নাই,