ইউজার লগইন

জেলার নাম কুষ্টিয়া

গত পাঁচদিন কুষ্টিয়া কাটিয়ে আসলাম।এবার শহরের আমার প্রিয় জায়গা গুলাতে আমি ইচ্ছা করেই যাইনি বা যাওয়া হয়ে উঠেনি।জায়গাগুলো মনের মধ্যে যেভাবে আছে সেভাবেই থাকুক সেই কারনে। কিন্তু কুষ্টিয়া মনে হয় আগের মতোই আছে।সেই রকম নিরিবিলি।যে রকম দেখে আসছি ছোটবেলা থেকে।এই শহরটা আমার জন্মস্থান কিন্তু এই জীবনে এই শহরে আমার গোটা তিরিশদিনও থাকা হয় নাই।ছোটবেলাতে নানাবাড়ি গেলে আমরা ছোটরা স্কুলের সমাজ বই নিয়ে বসতাম দেশের কোন বিভাগ বেশি ভালো এই নিয়ে বরাবরের মতো আমি আর আমার এক খালাতোভাই থাকতাম রাজশাহীর পক্ষে আর বাড়ির অন্যরা থাকতো খুলনা বিভাগের পক্ষে।তখন খুব মন খারাপ হতো কারন জন্মস্থান আমার কুষ্টিয়া হলেও আমি খুলনা বিভাগের লোক হতে পারতাম না বলে।

রেনউইক বাঁধ আর পৌরসভার সামনের জায়গাটা আমার খুব প্রিয়।বন্ধুবান্ধব মিলে অনেক আড্ডা দিয়েছি এই জায়গা দুটোতে।অনেকদিন নদী পার হয়ে গড়াই নদীর ঐপাড়ে চলে গেছি গ্রামের রাস্তাইয় হাটাঁর জন্য।এবার কিছুই করি নাই।বন্ধুবান্ধবরা যার যার কাজে ব্যস্ত।সারাদিন ওদের অফিস সন্ধ্যার পর শুধু একটু আড্ডা।আর সারাদিন নানাদের সাথে ঝগড়া কেন তারা চালের দাম বাড়াচ্ছে? এই নিয়ে।

‘মনেরমানুষ’ দেখলাম বনানীসিনেমা হলে। আমি এর আগেও এই সিনেমা হলে সিনেমা দেখেছি কিন্তু এবার শুধু হতাশ না খুব কষ্টও পেয়েছি। হলের টিকিটে কোন সিট নাম্বার দেয়া নাই।যে যেখানে পারছে বসে পরসে।সিটগুলো ছিড়েঁ গেছে দেখে ইউরিয়া সারের বস্তা দিয়ে মুড়িয়ে দেয়া হয়ছে।মশা ভন ভন করে উড়তেছে সাথে কিছু চড়ুইপাখিও দেখলাম ঊড়তেছে।আর সিনেমা শুরুর পর দেখলাম কিছু বাদুঁড়ও উড়ছিলো।সাউন্ড সিস্টেম এতো খারাপ আমি সংলাপের পঞ্চাশভাগ বুঝি নাই।কিন্তু যখন একটা করে গান শুরু হচ্ছিলো পুরা হল সেই গানের সাথে তাল দিচ্ছিলো।গায়ের লোম দাঁড়িয়ে যাচ্ছিলো বার বার।পুরা সিনেমা হল হাউজফুল এমনকি বের হওয়ার সময় দেখলাম কিছু এক্সট্রা চেয়ার দেয়া হয়ছে অতিরিক্ত দর্শক সামাল দেয়ার জন্য।

এই শহরটা দিনে দিনে একটু একটু করে পরিবর্তন হচ্ছে কিন্তু তার ছিমছাম কাঠামো ঠিক রেখেই।সবাই দেখলাম ডেপেলপার দিয়ে বাড়ি তৈরী করাচ্ছে।কিন্তু এন এস রোডটা ঠিক আগের মতোই আছে। হালিম খেলাম সেই আগের মতোই ডাল রান্না,থানার মোড়ের চটপটি আগের মতোই বেশি লবন দেয়া।কোর্ট ষ্টেশনের পিয়াজুও আগের মতোই।তাহলে কেন আমি বা আমরা আগের মতো থাকছি না।

পোস্টটি ৪ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

জ্যোতি's picture


গভীর রাতে হালিম খাওয়ার কথা বলায় আপনাকে মাইনাস।
সিনেমা হল টা যেমনই হোক না কেন আপনি যে সাথে এমন দর্শক পেলেন সেজন্য হিংসা।
কুষ্টিয়াতে যে থাকলেন, কারো দেখা কি পাওয়া গেলো?

রাসেল আশরাফ's picture


মাইকিং করা হয়ছে।কিন্তু সময়সল্পতার জন্য প্রজেক্ট বাদ দেয়া হয়ছে।

জ্যোতি's picture


আপনেরও দেখি কপাল পোড়া।এমনই বোধ হয় হয়। সমবেদানা।বেদানা কিন্তু মিষ্টি।

রাসেল আশরাফ's picture


কি আর করা আপাতত বেদেনা খাই।আর কোরিয়া গেলে বেদেনার জুস খামু নে।ঐখানে বেদেনার জুস খুব জনপ্রিয়।

জ্যোতি's picture


মাইয়ার বাপরে রাজী করাইতে গেলে এমনই হপে। মাইয়ার বাপরে কি দরকার?হারিয়ে যাওয়া গান্টা শুনেন। মীররে বলেন লিংক দিতে।

রাসেল আশরাফ's picture


মাইয়ারে কই আর ঈভটিজিং এ ধরা খাই।ভালো বুদ্ধি। Crazy Crazy Crazy Crazy

জ্যোতি's picture


মীরের গল্প পড়েও কিছু শিখলেন না। এজন্যই আপনেরে বুকটুস কই।
মেয়েদের মন এতই নরম যে তারা অকারণেই পটে যায়।

রাসেল আশরাফ's picture


মেয়েদের মন এতই নরম যে তারা অকারণেই পটে যায়।

কে যেন আজ কইলো মেয়েদের মন স্টীলের তৈরী।

কত অজানারে। Shock Shock Shock Shock

জ্যোতি's picture


নাদান বালক।

১০

মীর's picture


এরপরেরবার গেলে বনানী সিনেমা হল আর নাও দেখতে পারেন। দেশে পুরোনো সিনেমা হলগুলো ভেঙ্গে ফেলার মচ্ছব লেগেছে। সর্বত্র প্রায় একই অবস্থা।

১১

রাসেল আশরাফ's picture


সে আর বলতে??

রাজশাহী শহরে এখন একটা সিনেমা হল।বাকী তিনটাই ভেঙ্গে ফেলা হয়ছে।আর হল মালিকরা না ভেঙ্গে করবে কি??এই হল গুলো টিকিয়ে রাখার জন্য আমার মতে হিন্দি সিনেমা আমদানী করা উচিত।

১২

মীর's picture


শহরগুলাতে এখন একটা করে সিনেপ্লেক্স মানের হল বানানো উচিত। এবং মফস্বলেও সিনেপ্লেক্সএ যা দেখায় দেখানো উচিত। দেশের মানুষ মুভি দেখা বিষয়টার সঙ্গে পরিচিত হৈতে পারে।
পুরাতন স্মৃতির শহরে বহুদিন পর একা একা ঘুরতে শিরশির লাগে।
ইভটিজিং করা লাগতেসে ক্যান?

১৩

রাসেল আশরাফ's picture


ইভটিজিং করা লাগতেসে ক্যান?

বুঝলাম না।

১৪

মীর's picture


বুঝতেসি না তো আমি। কেউ দেখি কোনো খবরও দেয় না। Puzzled

১৫

জ্যোতি's picture


বাংলাদেশে এসে ব্যস্ত হয়ে গেছে। বালিকার বাপরে পটাইতে না পেরে বাউল হতে চায়।

১৬

মীর's picture


বালিকাকে সাথে করে কোরিয়ায় নিয়ে গেলেই হয়। এক বছরের মধ্যে সবার সবকিছু মেনে নেয়ার কথা। Big smile

১৭

জ্যোতি's picture


সে তো এই কথা শুনলো না। সে শুনলো ভুট্রো সাহেবের কথা। কোরিয়ান চান্তেক বিবাহ করবে মনের দুঃখে।সারাক্ষণ চ্যাং ব্যাং শুনবে আর মাথার চুল ছিঁড়বে।

১৮

রাসেল আশরাফ's picture


কোরিয়ান চান্তেক চ্যাং ব্যাং বলবে কেনো??

সারাদিন বলবে.당신을 사랑합니다

১৯

মীর's picture


ভুট্টো সাহেব কি চায়? @ রাসেল ভাই

২০

রাসেল আশরাফ's picture


সেটা বেনজীরের বাপ জানে।

২১

মীর's picture


আমি সবসময় আপনের পক্ষে আছি। ডোন্ট ওরি ব্রো। Smile

২২

জ্যোতি's picture


আমরাও দাওয়াত খাওয়ার জন্য বসে আছি।

২৩

আহমেদ মারজুক's picture


লেখা আর মন্তব্য সবই খুব ভালো লাগলো । আমার বন্ধুর এক নম্বর ব্যাচেলর তাহলে রাসেল আশরাফ । তার পাত্রী নিয়ে সবাই ভাবছে দেখছি । বার বার তাকে মনে করিয়ে দিচ্ছে সবাই তাও লক্ষ্য করছি। রাসেল আশরাফকে বেশি গুরুত্ব দিতে গিয়ে অন্য ব্যাচেলরদের উপেক্ষা করা হচ্ছে । ব্লগতো বন্ধুত্বের পাশাপাশি আর একটু এ্যাডভান্স কিছু করতে পারে । রাসেল আশরাফ সহ বাকীদের কপালে কিছু যোগ হয় । ২০/২৫ দিনের জন্য দেশে গিয়ে পাত্রী পাওয়া কি যে কঠিন তা দেখছি অস্ট্রেলীয়া প্রবাসী এক বন্ধুকে দেখে, বিগত ৫ বছর থেকে চেষ্টা চলছে , একাধিক পত্রিকায় ধারাবাহিক বিজ্ঞাপন দিয়েও লাভ হয়নি । এ ক্ষেত্রে ব্লগের একতা দায়িত্ব থাকা উচিৎ । বন্ধুরাতো থাকে বন্ধুর জীবন সহজ আর সুন্দর করতে । এবি কি একটু এগিয়ে আস্তে পারে না ?

২৪

রাসেল আশরাফ's picture


নারে ভাই এক নাম্বার না।আরো কতজন আছে।

তয় প্রস্তাব পছন্দ হয়ছ।আর দাদা কি খুব শীঘ্রই দেশে আসতেছেন?তাইলে আপনারটা দিয়ে শুরু হোক।

২৫

আহমেদ মারজুক's picture


সারা জীবন ভালো প্রস্তাব দিয়ে গেলাম, কোন প্রস্তাবই কেউ ভেবে দেখলো না । তবে আপনারা ব্লগের কড়া মেম্বার, আপনারা যদি চাইপা ধরেন তবে এবি এ ব্যাপারে কিছু না করে পারবে না । আমাকে দিয়ে শুরু হবে না , কারণ এবি এর সব মেম্বার আমার উপরে সে রকম বিলা । একবার পাইলে কান মইলা ছিড়া ফালাইব । এক খান পোস্ট দিছিলাম, নিজের কানটারে সারা জীবনের জন্য বিপদে ফেলছি । গরীব মানুষ দেশে যাওনের প্লেন খরচা নাই। এ বছরের প্লেন খরচা অফিস থেকে তুলে খেয়ে ফেলেছি । দেশের কথা বইলা মনটা কাবু কইরা দিলেন ।

২৬

রাসেল আশরাফ's picture


কড়া ব্লগার???এটা আবার কি জিনিস??

আপনার উপর কেও বিলা না।আপনি যদি হুদাই কারো কান ডলতে চান তাইলেতো আপনারটাও ডলবো।সেটাই নিয়ম। প্লেন খরচার টাকা দিয়ে কি খাইছেন?? সিঙ্গারা না কালাইয়ের রুটি??

২৭

আহমেদ মারজুক's picture


মানে হলো ব্লগে যাদের সমাদর আছে আর যারা জনপ্রিয় ব্লগার । বেশি লিকারের চা যেমন কড়া চা ঠিক তেমনি আদৃত ব্লগাররাও কড়া । ভাষার ভেরিয়েশন আর কি ? আশা করি ব্যাখ্যাতীত ব্যাপারটা বুঝেছেন ।

২৮

উলটচন্ডাল's picture


ছবি তুলেন নাই কেনো? ক্যামেরা নিতে ভুলে গিয়েছিলেন? পরের বার এই রকম ভুল করলে খবর আছে!

তবে লেখার বিষাদটা ঠিকই মন ছুঁয়ে গেল।

২৯

রাসেল আশরাফ's picture


ধন্যবাদ দাদা।

ছবি ইচ্ছা করেই তুলি নাই।

৩০

মামুন হক's picture


ছবি না দেয়ায় পোস্টে মাইনাস। তবে বর্ণনা সুখপাঠ্য হয়েছে। কুষ্টিয়া জেলা আমারও ভীষণ প্রিয়। জানি না আবার কোনোদিন সেখানে পা রাখার সৌভাগ্য হবে কি না।

৩১

রাসেল আশরাফ's picture


ছবি না দেয়ার জন্য আমার যদি মাইনাস প্রাপ্য হয় সেটা মেনে নিলাম।কিন্তু আপনারে কি করুম?অষ্ট্রেলিয়া গিয়া আপনে পর হয়ে গেছেন।

৩২

নুশেরা's picture


পোস্ট, কমেন্ট সব মিলে দারুণ 'সমৃদ্ধ' একটা প্রদর্শনী।

লোকজন দেখি আজকাল "উনার পাতে দৈ দেন" বলে না। "খালি উনারে দিলেই হবে, আমারে দ্যাখেন না?"-- এই হৈলো অবস্থা।

৩৩

রাসেল আশরাফ's picture


সেই দিন কি আর আছে????দিন বদলাইছে না!!!!!!!! মজা মজা মজা

৩৪

সাহাদাত উদরাজী's picture


মীরকে নিয়ে কুষ্টিয়া লালনের মাজারে গেলে আমার জমতো বেশ।

৩৫

রাসেল আশরাফ's picture


লালনের মাজারে গেলে এমনিতেই জমে যাবেন। যদি কখনো যান তাহলে লালনের জন্ম অথবা প্রয়াণতিথি তে যাবেন,তাইলে বুঝবেন জমাজমি কাকে বলে কাকা। হুক্কা হুক্কা হুক্কা হুক্কা হুক্কা হুক্কা

৩৬

লিজা's picture


আমি কুষ্টিয়ায় ছিলাম মাত্র ছয় মাসের মত । পুলিশ লাইন স্কুলে ভর্তি হইছিলাম । শুনছিলাম সেই স্কুলে নাকি বাচ্চাদের পিটায়ে হাস্পাতালে ভর্তি করাই দেয় Crying । সে এক ভয়ানক দিন গেছে। প্রতিদিন মন দিয়ে পড়া লাগতো স্যারদের ভয়ে Crazy Crazy
প্রিয় স্থানগুলোর ছবি তুলে রাখেন । পরে হয়তো আর নাও দেখতে পারেন । যেভাবে মফস্বলগুলো শাড়ি ছেড়ে সালোয়ার কামিজ পরছে । কয়দিন পর মিনিস্কার্ট পরতে আরম্ভ করবে । তখন আর চিনতেই পারবেননা প্রিয় শহরকে ।

৩৭

রাসেল আশরাফ's picture


কবে পড়তেন পুলিশলাইন স্কুলে??

আমার অনেক বন্ধুবান্ধবী পড়তো পুলিশলাইনে।অবশ্য ওরা ৯৬ এর ব্যাচ ছিলো।

৩৮

লিজা's picture


আমি ১৯৯৪ সালে ক্লাশ থ্রি তে ভর্তি হইছিলাম কয়দিনের জন্য । পরে খুলনায় চলে যাই । একবারে ক্লাশ ফোর এ ভর্তি হই ওই বছরই । থ্রি তে আর পড়িনাই Big smile

৩৯

লিজা's picture


হাহাপেফা THNX THNX THNX THNX THNX এক পয়সা ভাগন্তিস পার্টি পার্টি পার্টি পার্টি পার্টি :পার:

কিছু মনে কইরেন্না । নতুন ইমো দেইখা ট্রাই মারলাম । মজার সব ইমো ।

৪০

রাসেল আশরাফ's picture


আমিও কয়টা দেই নতুন ইমো।

পড়তেছি পড়তেছি সান্তনা টিসু চোখ টিপি নৃত্য মাইর ধইন্যা পাতা

৪১

আহমেদ মারজুক's picture


আমি ১ম বার কুষ্টিয়া গেছিলাম ১৯৯৭ সালে, এক বন্ধুর নানার (আসলে নানার ছোট ভাই) বাসা বেড়াতে । খুব ভালো লেগেছিল । শীতের মধ্যে রবীন্দ্রনাথের কুঠীবাড়ি বেড়ানোর মজাটা আজো অনুভব করি ।তবে ফিরে আসবার পথে ঐ বন্ধুর পরামর্শে ট্রেনের হাফ টিকিট কেটে কী যে ভয়াবহ পরিস্থিতিতে পড়েছিলাম আল্লাহ জানেন । এখনও মনে পড়লে আমি ভয়ে নীল হয়ে যায় । পরে আমার এক চাচার রেফারেন্স দিয়ে কোন রকমের মুক্তি । পরে বুঝেছি যে আসলে বেশি বেশি ভয় দেখানো হয়েছিল, তবে ভয় কিন্তু যায় নাই এখনও, আজব ভয় ১৪ বছর তাড়া করে ফিরছে ।
২য় বার কুষ্টিয়া গেলাম ২০০২ সালে ৩য় বর্ষের ছাত্র তখন । পিকনিকে । কত শত ঝামেলা পেরিয়ে সকাল ৯ টায় রাজশাহী থেকে রওয়ানা দিয়ে বিকাল ৫টায় কুঠিবাড়ি, গিয়ে দেখি বাড়িটির কালার চেঞ্জ করা হয়েছে । খুব কষ্ট হয়েছিল মনে ।দুপুরের খাবার রাত ৮ টায় খেয়ে বাড়ি ফিরেছিলাম রাত ২ টায় । এখন ঐ ঘটনা মনে হলে পেটার ভিতরটা মোচড় দিয়ে উঠে ।

৪২

রাসেল আশরাফ's picture


এই জন্য কবি বলেছেন''নিজের বুদ্ধিতে ফকির হওয়া ভালো পরের বুদ্ধিতে বড়লোক হওয়া ভালো না।মাত্র ১৫ টাকা বাচাঁতে গিয়ে কি কেলেংকারীর মধ্যে পড়েছিলেন। সান্তনা সান্তনা সান্তনা সান্তনা

৪৩

সাহাদাত উদরাজী's picture


টিপ সই

৪৪

রাসেল আশরাফ's picture


কাকার কি হাতে ব্যথা?? Crazy Crazy Crazy

৪৫

সাহাদাত উদরাজী's picture


কাকা, এটা ছিল নূতন ইমোর প্রথম প্রয়োগ!

৪৬

নীড় সন্ধানী's picture


পোষ্ট পড়তে পড়তে ইচ্ছা হচ্ছিল আপনার হাতে একটা ক্যামেরা তুলে দিতে। এত সুন্দর করে স্মৃতিভ্রমন করলেন, কটা ছবি যোগ করলে পাঠকের খিদায় উপকার হতো। কখনো কুষ্টিয়া যাইনি। শুনেছি কুষ্টিয়ার লোক নাকি বাংলাদেশে সবচেয়ে শুদ্ধ বাংলায় কথা বলে? ঠিক নাকি? Cool

৪৭

মেসবাহ য়াযাদ's picture


হ বদ্দা, অনে ঠিক কৈছেন... Big smile
শুদ্ধ বাংলায় সারাজীবন কথা শুনুম বৈলাইতো মাইয়ার লগে পিরিত হৈছিল... Wink
সেই মাইয়ারে কাইড়া নিলো জলপাই মেজর... Sad
দ্রষ্টব্য: মধুপুর, কুমারখালীর জ্যাকী। আফসুস !! Smile Laughing out loud

৪৮

হাসান রায়হান's picture


চউক্ষে পাণি আয়া পড়ল।

৪৯

রাসেল আশরাফ's picture


কুষ্টিয়ার লোক নাকি বাংলাদেশে সবচেয়ে শুদ্ধ বাংলায় কথা বলে? ঠিক নাকি?

কথা একশো ভাগ ঠিক।

ছবি না তুলে আসলেই ভুল করেছি মনে হচ্ছে। সান্তনা সান্তনা

৫০

নাজ's picture


ঋহান ঘুমায়া ঘুমায়া আপনারে এইটা দিছে চোখ টিপি

আর হ্যাঁ, মানুষ মরে গেলে পচেঁ যায়, বেঁচে থাকলে বদলায়। কারনে-অকারনে বদলায়।
আমরা যেহেতু মরতে পারিনা, তাই আমরা বদলাই/ আগের মত থাকতে পারিনা!

৫১

রাসেল আশরাফ's picture


ওরে আমার দোস্তরে।।

৫২

তানবীরা's picture


হালিম খেলাম সেই আগের মতোই ডাল রান্না,থানার মোড়ের চটপটি আগের মতোই বেশি লবন দেয়া।কোর্ট ষ্টেশনের পিয়াজুও আগের মতোই।তাহলে কেন আমি বা আমরা আগের মতো থাকছি না।

তুমি এক থাকবা কেমনে, তুমি কি হালিম চটপটি? Crazy

সিটগুলো ছিড়েঁ গেছে দেখে ইউরিয়া সারের বস্তা দিয়ে মুড়িয়ে দেয়া হয়ছে।মশা ভন ভন করে উড়তেছে সাথে কিছু চড়ুইপাখিও দেখলাম ঊড়তেছে।আর সিনেমা শুরুর পর দেখলাম কিছু বাদুঁড়ও উড়ছিলো।সাউন্ড সিস্টেম এতো খারাপ আমি সংলাপের পঞ্চাশভাগ বুঝি নাই।

এটা নিজের চোখে আমিও দেখলাম Cool

৫৩

রাসেল আশরাফ's picture


আমি হালিম না।আমার স্কুলের এক দোস্তের নাম হালিম। Tongue Tongue

৫৪

মাফরুহা অদ্বিতী's picture


' লালনের দেশের মানুষ ভাল" -এই কথাটি আমার ছোটখালামনির মুখে যখন শুনেছি তখন লালন কি তাও বুঝতাম না এত ছোট ছিলাম.।কথাটা এখনও মনে আছে।।, আসলেই কি তাই?
চমৎকার লিখেছেন,শুধু কুষ্টিয়া নয় সময়ের সাথে সাথে সব শহর গুলোরই স্নিগ্ধতা হরিয়ে যাচ্ছে। ।

৫৫

রাসেল আশরাফ's picture


' লালনের দেশের মানুষ ভাল" -এই কথাটি আমার ছোটখালামনির মুখে যখন শুনেছি তখন লালন কি তাও বুঝতাম না এত ছোট ছিলাম.।কথাটা এখনও মনে আছে।।, আসলেই কি তাই?

তাই মানে।১০০ ভাগ সত্য কথা।

৫৬

অতিথি's picture


স্মৃতির শহর! সুন্দর!!

৫৭

রাসেল আশরাফ's picture


জী অতিথি নারায়ণ।

৫৮

ফিরোজ শাহরিয়ার's picture


বনানী তো মজমপুরে না? আমার কলেজ লাইফ কেটেছে কুষ্টিয়াতে। খুবই সুন্দর একটি জেলা শহর। আড্ডা দিতে আমরা যেতাম হাউজিং এর ডি ব্লকে আর পিয়ারা তলার পুকুর পাড়ে। পুকুরটাকি এখনো আছে?

৫৯

রাসেল আশরাফ's picture


হ্যাঁ বনানী সিনেমা হল মজমপুর রেল্গেটের কাছে।

পিয়ারাতলার আমারও অনেক স্মৃতি আছে।ঐ খানের একটা হোটেলে একবার চা খেয়েছিলাম।অসাধারণ!!
পুকুরটার খবর জানি না।কারন এবার যাই নি।

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

রাসেল আশরাফ's picture

নিজের সম্পর্কে

কিছুই জানি না...