ইউজার লগইন

হঠাৎ বৃষ্টি

অফিসের কাজ নিয়ে চরম ব্যস্ততা ছিল গত কিছুদিন। এই ব্যস্ততা সামাল দিতে গিয়ে শুক্রবারে ব্যস্ত থাকতে হয়েছে, ফলে মাসখানেক কোন আড্ডা নাই , কারো সাথে দেখা নাই। এর মাঝেই নজরুল ভাই আর নুপুরের ফ্ল্যাটে একদিন আড্ডা দিলাম, গত এক মাসে নিজের ও অফিসের কাজের মধ্যে ঐটাই ছিল আড্ডা বা বন্ধুদের সাথে দেখা।

গেল সপ্তাহে ব্যস্ততা কমেছে খানিকটা, বাসায় ফিরে টুকিটাকি কাজ গুলো সেরে ফেলতে পেরেছি। আজ তাই আর তাড়া ছিল না। বসুন্ধরায় যাওয়ার কথা থাকলেও All is forehead (কপিরাইটঃ বিষাক্ত মানুষ) এর কারনে যাওয়া হলো না।

বিকালে বন্ধুদের ফোন দিলাম , বললাম "চইলা আয়, অনেক দিন আড্ডা হয়না"।

সন্ধ্যা হতেই চলে এল ৪ বন্ধু। আমি সহ ৫ জন। কেবল আড্ডা জমেছে, এমন সময় ঝড় তারপর বৃষ্টি। গত কয়দিনের মত কয়েক ফোঁটা বৃষ্টি নয়, মুষল ধারে বৃষ্টি।

আহ !!! ঠান্ডা হলো মাটি, ঠান্ডা হলো চারপাশ। বৃষ্টির সাথে গেয়ে উঠলো মন। রুমের বাতি নিভিয়ে দিলাম, বৈশাখী মেলা থেকে কিনে আনা একতারা আর খঞ্জরী নিয়ে শুরু হোল গানের আসর।

আমাদের সহ ব্লগার , বন্ধু নাহীদ শুরু করলো তার দরাজ গলায় লালনের গান, সাথে একতারা , খঞ্জরী। চললো একের পর এক পরিচিত , অপিরিচিত লালনের গান । সাথে গরম গরম চা । গলা সাধা ছিল না বলে একসময় থামতে হলো তাকে।

নাহীদের গান গাওয়া শেষ হতেই ছাড়লাম পিসি তে রবীন্দ্রনাথের বর্ষার গান, খায়রুল আনাম শাকিলের কন্ঠে নজরুলের কিছু গান । বাইরে তখন বৃষ্টি কমে এসেছে , গুড়ি গুড়ি করে পড়ছে, বাইরে থেকে আসা ভেঁজা বাতাসের খেলা বাসা জুড়ে। রুমে হালকা আলো।

তখন কিচেনে গেলাম খিচুড়ীর আয়োজন করতে। হঠাৎ বৃষ্টির কারনেই হঠাৎ করেই খিচুড়ী খাবার ইচ্ছা জাগলো । খিচুড়ী রানলাম, সাথে বেগুন ভাজি, ডিম ভাজি আর আচার। গরুর মাংস থাকলে আরও জমতো কিন্তু বাসায় ছিল না।

তবুও দারুন লাগলো খিচুড়ী , দারুন কাটলো সময় আড্ডা দিয়ে, গত কয়দিনের তাপ প্রবাহ কমলো আজ, নামলো মুষল ধারে বৃষ্টি , সাথে মনে রাখার মতো আড্ডা জমলো আজ, যেন অনেক দিনের আকাঙ্খিত বৃষ্টি কে বরন করতেই, বৈশাখের শেষ দিনে।

পোস্টটি ৬ জন ব্লগার পছন্দ করেছেন

জ্যোতি's picture


মাইনাস দিয়া গেলাম। খিচুরী খাইতে মন্চাইছিলো কিন্তু রান্না করতে মন্চায় নাই।আপনার খিচুরী পোষ্ট দেইখা দুক্ষে চোখে পানি আসছে।

সাঈদ's picture


আপ্নের দুক্ষ দেইখ্যা আমার চউক্ষ্যে পানি আইতাছে।

জ্যোতি's picture


তাইলে কান্দেন। কাইন্দা বোতল ভরেন। এই পানিতে ভেজাল নাই।

সাঈদ's picture


বোতলে ভইরা আপ্নেরে সাপ্লাই দিমুনে।

রাসেল আশরাফ's picture


ভাইজান,খামছি খান নাই কাল রাতে খিচুরী এর সাথে??????????/

সাঈদ's picture


না , হেতে ডরাইছে।

জ্যোতি's picture


ওমা!হেতে হাগল অইছেনি কুনু?আপ্নে তো মিয়া ডরে আর আসনে নাই। ভীতুর ডিম।

নাহীদ Hossain's picture


বৈশাখের শেষ দিন ছিল নাকি ! ভাল কাটলো ......

সাঈদ's picture


হ।

১০

বাতিঘর's picture


ভালোই মজা করলেনদি।:)Smile খিঁচুড়ী খাইনা পচ্চাআআআ... খাইতে না পাবার জ্বালা যদি এমনেই ভুলতারি হিহিহিহি....ভালু থাইকেন ভাইডি।

১১

সাঈদ's picture


আপনিও ভালু থাইকেন ভাইডি।

১২

লীনা দিলরুবা's picture


বৃষ্টিটা কাল ভালই ছিল। আপনারতো রাজকপাল। এমন দিনে বন্ধুদের সাথে আড্ডা, গান, পার্টি............ বেশ বেশ।

১৩

সাঈদ's picture


আসলেই আপু। পহেলা বৈশাখের পর কালকেই সবার সাথে আড্ডা দিলাম, এর মধ্যে আড্ডা তো দূরে থাক, দেখাই হয়নাই কারো সাথে।

কালকেই নামলো ঝুম বৃষ্টি । অদ্ভুত লাগলো আসলে বৃষ্টির সাথে এই আড্ডা । তাই ভাবলাম শেয়ার করি সবার সাথে।

১৪

নীড় সন্ধানী's picture


সেদিন এক আড্ডা দিয়ে এক বন্ধুরে অচিন্দা ষ্টাইলে মুরগী বানাইলাম তন্দুরী রেষ্টুরেন্টে নিয়া।
সেই থেকে আমাদের সঙ্গে তার বাতচিত বন্ধ! Sad
শর্ত দিছে আরেকদিন আমারে মুরগী হইতে হবে, নইলে কাটাকাটি!

১৫

সাঈদ's picture


তারে একদিন খাওয়ায়ে দিয়েন , বেচারা মনে বহুত চোট পাইছে।

১৬

টুটুল's picture


সাঈদের বাসার আড্ডাটা মিসাই Sad

১৭

সাঈদ's picture


যে কোন বন্ধ বা ছুটির দিনে সবাইরে নিয়া চৈলা আইবেন , আওনের দিন সকালে খালি ফুন দিবেন একটা ব্যাস , আর কিছু লাগতো না।

১৮

রুবেল শাহ's picture


মাইনাস

১৯

সাঈদ's picture


আমিও মাইনাস দিলাম।

২০

রুবেল শাহ's picture


002.gif

২১

জ্যোতি's picture


রুবেলরে ঝাঝা। সাঈদ ভাই এর ফটুটা ভালা হৈছে। খিচুরী খাইয়া এক্কেরে থুতনীর নীচে মেদ ঝুলছে। ভালই ছে।

২২

সাঈদ's picture


খিচুড়ী না খাইতে পাইরা কত্ত কি যে পাব্লিক কয়, সবটাতে কান দিতে নাই।

২৩

জ্যোতি's picture


আপনেরে কান দিতে কইছে কে?খালি চোক্ষে চাইয়া দেখবেন।

২৪

আতিয়া বিলকিস মিতু's picture


মাইনস দিলাম এটা বুঝি নাই।
আমি মিসস করলাম তোমার আডডা..।

২৫

সাঈদ's picture


ভাবি, অগ্রজ একটা ব্লগের কমেন্টে , পোষ্টে মাইনাস দেবার সিস্টেম আছে, সেখান থেকেই এই মাইনাস কথা ।

২৬

মুক্ত বয়ান's picture


লালনের একটা গান শুনছেন,
"রাত পোহালে পাখি বলে দে রে খাই, দে রে খাই"
সবাই মিলে চিল্লায়ে গাওয়ার জন্য জব্বর একটা গান।

বর্ষার দিনে বর্ষাতি হাতে নিয়ে ভিজতে হয়। নাইলে ঠিক বর্ষাটা বোঝা যায় না।

২৭

সাঈদ's picture


ভিজুম ভিজুম , পুরো বর্ষা শুরু হোক, ভিজুম।

আমরা এক লগে চিল্লায়া গান গাইছি , এতে অবশ্য গাতকের ছন্দ পতন হয়েছে খানিকটা।

২৮

মুক্ত বয়ান's picture


শ্রোতা আছেন বলেই গাতক। কাজেই শ্রোতাদের আনন্দের কাছে গাতকের ছন্দ পতন জায়েজ Tongue Tongue

২৯

নুশেরা's picture


বুঝছি, এই আড্ডাটা জমেনাই Tongue

৩০

সাঈদ's picture


হ আঙুর ফল টকের গল্প আমরা জানি।

৩১

বোহেমিয়ান's picture


আড্ডা দিতে মঞ্চায় ।

বৃষ্টিতে জম্পেশ আড্ডা! হিংসাইলাম

৩২

সাঈদ's picture


হিংসা করা খ্রাপ, খুব খ্রাপ। চইলা আসো সময় করে, আসলেই আড্ডা হবেক।

৩৩

শওকত মাসুম's picture


আমি ছিলাম না, সেইটা কোনো আড্ডা হয়?

৩৪

সাঈদ's picture


বুঝছি , ঐ আঙুর টকের গল্প আবার কৈতে হৈব।

৩৫

এরশাদ বাদশা's picture


আড্ডা ভালো লাগে। কিন্তু আর কি কোনদিন বসা হবে?

ভালো থাকেন।

৩৬

সাঈদ's picture


আড্ডতে তো প্রায়ই বসা হয় , চৈলা আইসেন।

৩৭

তানবীরা's picture


পেটে আপনার হোক পিলে
কেচো যেমন খালে বিলে
খিচূড়ীর সাথে আপনাকেও খাক
গিলে গিলে

৩৮

জ্যোতি's picture


তাতাপুকে ঝাঝা। সাঈদ ভাই এর জন্য এই কবিতাটা নাজিল করলেন বলে আপনাকে একটা মেডেল দেয়া হবে।

৩৯

তানবীরা's picture


গোল্ড প্লেটেড কিন্তু Money mouth

৪০

সাঈদ's picture


কত জনে কত কথা বলে , কানে নেই না এসব কথা । Nerd

মন্তব্য করুন

(আপনার প্রদান কৃত তথ্য কখনোই প্রকাশ করা হবেনা অথবা অন্য কোন মাধ্যমে শেয়ার করা হবেনা।)
ইমোটিকন
:):D:bigsmile:;):p:O:|:(:~:((8):steve:J):glasses::party::love:
  • Web page addresses and e-mail addresses turn into links automatically.
  • Allowed HTML tags: <a> <em> <strong> <cite> <code> <ul> <ol> <li> <dl> <dt> <dd> <img> <b> <u> <i> <br /> <p> <blockquote>
  • Lines and paragraphs break automatically.
  • Textual smileys will be replaced with graphical ones.

পোস্ট সাজাতে বাড়তি সুবিধাদি - ফর্মেটিং অপশন।

CAPTCHA
This question is for testing whether you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.

বন্ধুর কথা

সাঈদ's picture

নিজের সম্পর্কে

আমি হয়তো মানুষ নই, মানুষগুলো অন্যরকম,
হাঁটতে পারে, বসতে পারে, এ-ঘর থেকে ও-ঘরে যায়,
মানুষগুলো অন্যরকম, সাপে কাটলে দৌড়ে পালায়।

আমি হয়তো মানুষ নই, সারাটা দিন দাঁড়িয়ে থাকি,
গাছের মত দাঁড়িয়ে থাকি।
সাপে কাটলে টের পাই না, সিনেমা দেখে গান গাই না,
অনেকদিন বরফমাখা জল খাই না।
কী করে তাও বেঁচে আছি আমার মতো। অবাক লাগে।