অনুসন্ধান

ইউজার লগইন

অনলাইনে

এখন জন সদস্য ও জন অতিথি অনলাইনে

অনলাইন সদস্য

বহু সাধনায় ধরেছি হাত

আহসান হাবিব / বহু সাধনায় ধরেছি হাত
হাসনাবাদ সেনা ক্যাম্প
১০/২/২০২১
বহু সাধনায় ধরেছি যে হাত হাততো ছাড়বো না
আমরা হাততো ছাড়বো না।
উডাল পাতাল ঢেউ বা ঝড়ের রাতে পথ হারাবো না।
আমরা হাততো ছাড়বো না।
বহু সাধনায় ধরেছি যে হাত হাততো ছাড়বো না
আমরা হাততো ছাড়বো না।

জীবন নদীর চলার পথে সোজা কিংবা উল্টা রথে
কালবৈশাখীর ঝড়ের রাতে সব কিছু যদি হয় হারাতে হয়
সকল কিছু হারাবো তবু।
হাতে হাত রেখে যাব হাততো ছাড়বো না।
আমরা হাততো ছাড়বো না।
বহু সাধনায় ধরেছি যে হাত সে হাত ছাড়বো না

মওলা তুমি সাজিয়ে মেলা উপরে বসে দেখছ খেলা
আমরা যত কাঠ পুতলা, খেলে যাচ্ছি সকাল সন্ধ্যা বেলা
খেলতে খেলতে যায় যে বলা, অনেক খেলা খেলতে বাকি খেলা হলো না।
তবু আমরা হাততো ছাড়বো না।
বহু সাধনায় ধরেছি যে হাত সে হাত ছাড়বো না

মোরা আর জনমে

আহসান হাবিব
হাসনাবাদ
৮/১/২০২১
মোরা আর জনমে কি ছিলাম জানিনে কি ছিলাম
এই জনমে মানব রুপে এই ধরাতে এলাম
এ জনমে মানবের সাধ পূর্ণ হলো তোমায় পেয়ে গেলাম।
মোরা আর জনমে কি ছিলাম জানিনে কি ছিলাম

এই যে পুকুর এই যে নদী এই যে সাগর বেলা
ঘুরেছি ফিরেছি, হেসে খেলে কাটিয়েছি কত বেলা
এ জনমে মানবের সাধ পূর্ণ হলো তোমায় পেয়ে গেলাম।
মোরা আর জনমে কি ছিলাম জানিনে কি ছিলাম।

মনের ছোট্টো পাখায় ভর করে উড়িতে চেয়েছি ঔই আকাশ
খনিক উড়েছি আর পড়েছি উড়ার হয়নি অবকাশ
এ জনমে মানবের সাধ পূর্ণ হলো তোমায় পেয়ে গেলাম।
মোরা আর জনমে কি ছিলাম জানিনে কি ছিলাম

না যেও না যেও না গো

আহসান হাবিব
হাসনাবাদ সেনা ক্যাম্প
৪/১/২০২১
না যেও না যেও না গো//গান

না যেও না, যেও না গো, রজনী এখনো বাকি। শুকতারা উঠেছে কি? সাজি ভরেনি ফুলে,
আরো কিছু নাও গো
না যেও না যেও না গো।

হেলায় ফেলায় কাটলো রাতি, কুঞ্জে ডাকেনি পাখি
কত কথা বুকে রেখেছি গাথি, হলো না হলো না বলা ওগো।
না যেও না যেও না গো।
এই তো সেদিন এলে দ্বারে, সাধ না মিটিতে শর বিধা পাখিটারে।।
রেখে একেলা কোথায় যাবে চলে, যেও না, না যেয়ো না গো।

যে তোমাকে বাসিল ভাল

আহসান হাবিব
হাসনাবাদ
৪/১/২০২১

যে তোমাকে বাসিল ভাল//গান

ভালোবাসা যদি না খাটি কি হবে আর কাঁদিয়া
যে তোমাকে বাসিল ভাল যেও না তাকে ছাড়িয়া।

আষাঢ় শ্রাবণ ঝড়ো বৃষ্টি পানি থৈ থৈ করে
নদীর জলে বান ডেকে যায় ভেসে যায় জোয়ারে
প্রেম সাগড়ে মাস লাগে না সদাই যায় বান ডাকিয়া
যে তোমাকে বাসিল ভাল যেও না তাকে ছাড়িয়া

ফাল্গুন চৈত্রে ভীষণ খরা মাঠ ঘাট ফেটে চৌচির
চাতক চাহে উর্ধাকাশে প্রাণীকুল তৃষ্ণায় অস্থির
প্রেম সাগড়ে খরা এলে কাটে না জনম ভরিয়া
যে তোমাকে বাসিল ভাল যেও না তাকে ছাড়িয়া

কেউ কি জানে

আহসান হাবিব
হাসনাবাদ
১/২/২০২১

বন্ধু দ্বিজেন,
চাটগায়ের সি এস ডির শূণ্য বেঞ্চে দুজনে কত দিন সন্ধার পর গুনগুনিয়ে কাটিয়েছি।
আজ কেন জানি তোমাকে খুব মনে পড়ছে।
তুমি কি আমার মনের আকুতি শুনতে পাবে।
পেলে চলে এসো ঘুমের ঘোরে, মুছিয়ে দিতে মম আঁখি জল।
কেউ কি জানে// গান
(তোমাকে উৎসর্গীকৃত)

আমাার প্রাণের যে জন কেউ কি জানে, কেউ কি জানে।
আমার গানের দোলা লাগে কি তাহার প্রাণে
কেউ কি জানে, কেউ কি জানে।
কোকিলের কুহু কুহু কিউ, যমুনার ছলছল ঢেউ
সকাল সাঝে বুকের মাঝে তুলে যে বিরহের ঢেউ
এই বিরহের ঢেউ দেয় কি দোলা তাহার প্রাণে
কেউ কি জানে, কেউ কি জানে।
আমাার প্রাণের যে জন কেউ কি জানে।।

ধানের ক্ষেতে পবন ঢেউ তুলে, যায় চলে যায় কোন হিয়ার তলে
ওই বিরহী কেকা, বন বাদারে ডাকে একা একা
এই বিরহের সুর দেয় কি দোলা তাহার প্রাণে
কেউ কি জানে, কেউ কি জানে।
আমাার প্রাণের যে জন কেউ কি জানে।।

তুমি ভালবাস না মোরে

আহসান হাবিব
হাসনাবাদ
২৯/১/২০২১
তুমি ভালবাস না মোরে//গান

তুমি ভালবাস না মোরে সে তো আমি জানি
তবু থাকি থাকি জেগে উঠে তব দিলে প্রেমাগ্নি।
প্রেম তো তুষের আগুন সুপ্তভাবে জ্বলে ধিকেধিকে
কারো সমাপ্তি ঘটে মিলনে কারো ভালে শুধু গ্লানি।
তুমি ভালবাস না মোরে সে তো আমি জানি।

মাঝে মাঝে কর অভিনয় আমি ছাড়া আর কেউ আপন নয়
উচুনিচুর/ বড় ছোটর হাওয়া দিলে লেখে হয় তার অবক্ষয়
মন যমুনার নাগরদোলায়, সাজি শূন্য বেলা অবেলায়
এমনি করেই যাচ্ছে এগিয়ে মোদের প্রেমের তরি খানি
তুমি ভালবাস না মোরে সে তো আমি জানি।

এই যেন প্রেমের জোয়ার বইছে প্রেম যমুনায়
এই দেখি ভাটার টানে নেই কোন কানাকানি প্রেম ঝুলনায়
যাব কি যাব না, পাব কি পাব না,উচাটন মন
সদা হয় পেরেশানি।
তুমি ভালবাস না মোরে সে তো আমি জানি।

ওগো বন্ধু আমার একটু বস

আহসান হাবিব
হাসনাবাদ
২৮/১/২০২১

ওগো বন্ধু আমার একটু বস মনের কথা এখনো
হয়নি বলা।
কতদিন কত রাত কেটে গেছে মনের কথা মনেই আছে যায়নি বলা।
ওগো বন্ধু আমার একটু বস মনের কথা এখনো
হয়নি বলা।

ওই যে দেখ গাছে ফুল ধরেছে, আবার তাতে ফলও হয়েছে
আমরাও সবার মতো সবই করেছি তবু কেন যে মনে হয় কিছু কথা হয়নি বলা।
ওগো বন্ধু আমার একটু বস মনের কথা এখনো
হয়নি বলা।

ভ্রমরের মত আমি এসেছি তব দ্বারে, তুমিও দিয়েছ সবই উজার করে
হেসেছি খেলেছি গেয়েছি গান,সুর তাল লয়ের উড়িয়েছি বাণ।
তবু কিছু কথা কিছু গান সুর তাল লয়ের বান উড়ানো হয়নি হয়নি বলা।
ওগো বন্ধু আমার একটু বস মনের কথা এখনো
হয়নি বলা।

আল্লাহ আল্লাহ বলে

আহসান হাবিব
হাসনাবাদ
১৭/১/২০২১

আল্লাহ আল্লাহ বলে//

আল্লাহ আল্লাহ বলে কাঁদে প্রাণী কুলে
কাঁদে নিপতরু কাঁদে মৎস্য কুলে
আল্লাহ আল্লাহ বলে।।
কত না জীবে কাঁদে, কাঁদে ওই সমুদ্র তলে
আল্লাহ আল্লাহ বলে।

দেখা যায় না চোখে জ্বীন পরীর দলে
শূন্য গগন তলে হাজারো কোটি ফেরেসতা দলে
কাঁদে আল্লাহ আল্লাহ বলে।

পীর পয়গম্বর গনে রাত্রি জাগরণে
কি অমোঘ টানে কি সুধা পেতে প্রাণে
সুখ শান্তি ত্যজ্য করে, বিবি বাচ্চাকে ভুলে
কাঁদে আল্লাহ আল্লাহ বলে।

মাটির চাদর তলে, আছে যত প্রাণী মৃতচ্ছলে
চলিতে নাহি পারে দেখিতে পায় কি তোমারে
তবু সুখ দুখ যা দাও তারে, পুরস্কার জ্ঞানে বলে,
কাঁদে আল্লাহ আল্লাহ বলে।

সই বলে দে বলে দে আমায় কি করিল সে।

আহসান হাবিব //সই বলে দে বলে দে
হাসনাবাদ
১৪/১/২০২১

সই বল আমারে বল আমারে কি করিল সে
কাজে কর্মে সদা হেলা, হা-হুতাশে যায় যে বেলা
আমি তো নই আমার মাঝে কি হইতে যে কি হইয়াছে
সই বলে দে বলে দে আমায় কি করিল সে।

সখি তাহার ধৈর্য বেশী এটাই আমার গলার ফাঁসি
একবার যদি বিধে গলে ছুটে না আর এই জনমে
তাহারি তরে মর্ম পুড়ে অঙ্গার হইয়াছে।
সই বলে দে বলে দে আমায় কি করিল সে।

নিন্দার কাটা না লাগলে গায় প্রেম কি সফল হয়
এ সব ভেবে কেন তবে সে দুরে দুরে রয়
সই দুরে দুরে রয়।
আম বলিতে জাম বলি, ছাগল বলে পাগল বলি
তবে কি এই অভাগিনী তাহারি তরে পাগল হইয়াছে।
সই বলে দে বলে দে আমায় কি করিল সে।

আমার মন চাহে না

আমার মন চাহে না
হাসনাবাদ
৬/১/২০২১

আমার মন চাহে না স্বজনী আমার মন চাহে না
সাত রঙা ধরনী সুধা ভরা জীবনী ছাড়িত অবনী
আমার মন চাহে না।
ওগো স্বজনী আমার মন চাহে না।

কি সুন্দর বাড়ি কত দামী গাড়ি বিউটিকুইন নারী
ছাড়িতে অবনী আমার মন চাহে না।
এ জমিদারি, টাকা কাড়িকাড়ি, যাইতে সকল ছাড়ি
ছাড়িতে অবনী আমার মন চাহে না।

আগে যদি জানিতাম, তবে কি আর আসিতাম,
ধরনীর রংগ নাট্য শালে,
মাওলারে করুনা ভরে, কহিতাম সকাতরে,
না ভাবিয়া কি আছে ভালে।
যত খেলা দেখিতে চাও, হেথায় খেলায়ে লাও
যাবো না তোমায় ছাড়ি
ওগো স্বজনী আমার মন চাহে না।
ছাড়িতে অবনী আমার মন চাহে না।

ছেলে মেয়ে ভাই বেরাদার, অকারণে করি অহংকার
যাইবার কালে কে হবে আর, সংগের সাথি
বালিশ ছাড়া মাটির বিছানা, কোল বালিশের নাইতো খানা, আন্ধার ঘরে নাইকো বাতি।
কেমনে থাকি সকাল বিকাল রাতের খাবার ছাড়ি।
ওগো স্বজনী আমার মন চাহে না।

আমায় না হয় রাখিলে পাশে

আবুল হোসেন //আমায় না হয় রাখিলে পাশে
হাসনাবাদ
৫/১/২০২১
সখি আমায় না হয় রাখিলে পাশে
কত মরু কত নিপ তরু পেরিয়ে এসেছি তব কাছে
সখি আমায় না হয় রাখিলে পাশে।

দেখ বাহিরে ঝর ঝর বারিষ ঝরে
বৃক্ষ তলে দাড়ায়ে রুধিতে বারিষ, রুধিতে নারে।
সমীরণ সজোরে করাঘাতে বৃক্ষশাখা দুলে
বেশন ভুষন যত সিক্ত বারিষে ফুলে
সর্বনাশা আধার ঘিরিয়া চারিধার অট্টহাসিতে হাসে।
সখি আমায় না হয় রাখিলে পাশে।

আছে যত ভেকের দল, দল বেঁধে করে কোলাহল
জুনাকি থাকি থাকি মৃদু আলোতে একি,
করিছে রঙ্গ খেলা,
খোপাখব ধ্বনি তুলে মতস্য কুল লাফিয়ে চলে
কে যেন আমায় বলে গেল যে বেলা।
যেথা যাবে যাও, কেন কেন ফিরে চাও
সে কি আসিবে, আসিবে কোন সে অবকাশে।
সখি আমায় না হয় রাখিলে পাশে।

কি হবে ভেবে ভেবে

আবুল হোসেন
হাসনাবাদ
৪/১/২০২১
ব্যর্থ জীবন কি হবে ভেবে ভেবে
জীবন তো চলেই গেছে আর কতদিনই রব এ ভবে।।
যমুনায় দেখ শূন্য তরী দুলে যেমন
বাবুই পাখির বাসা শূন্যে দোলে কেমন
জীবন নদীর দু'ধারে তেমন শূন্য শূন্যই রবে।
কি হবে ভেবে ভেবে।
যোগ বিয়োগের অংক কষি মিলাতে হিসাব অহর্নিশি।
এখানে গড়ে তো ওখানে ভাংগে, ভাংগা গড়ায় চলে দিবানিশি
চলে জীবন ভাবি ক্ষনে ক্ষণ কি হবে কি হবে কি আর হবে।
কি হবে ভেবে ভেবে।

ভিন্নতার আজব সমাহার

ভিন্নতার আজব সমাহার
হাসনাবাদ
০৩/০১/২০২১
ভিন্নতার আজব সমাহার//
বছর আসে বছর যায়, পালিত হয় একই কায়দায়
কেউবা নাখেয়ে থাকে কেউবা আধ পেটা কেউবা বিরিয়ানি খায়।
কোথাও জ্বলে কপি বাতি, কোথায় লন্ঠন কোথাও আলোর ফোয়ারায়।
চোখ ধাঁধানো আলোর ছটায় নাচের তালে তাল হারায়, তাল হারায়ে যায়।
নতুন বছর আসবে যাবে, যতদিন এই ধরনী রবে
আলো বা অন্ধকারের হারে বিভাবরীর সাজন হবে
এটাই যে প্রকৃতির নিয়ম, তবে কেন কত সজন
উল্টাপাল্টা খায়।
হুশ হারায়ে জ্ঞান হারায়ে শেষ রাতে বাসায় ফেরে মাতাল অবস্থায়।
আধপেটা খাওয়া ছেলে গুলো, জ্বালিয়ে আবছা
মৃদু আলো
মাদ্রাসার ওই খুপড়ে ঘরে ছোট্ট স্বরে কোরান পড়ে
লাগে কি যে ভালো।
আহ্ কি যে ভাল লাগে।
বিশ্বাস না হয় দেখ একদিন, ভালো নিশ্চয় লাগবে সেদিন
কিসের নেশায় কিসের টানে,ছুটছে অহর্নিশ মৌন ধ্যানে।
এই ধরা হরেক রকম সাজিয়েছেন মাওলা যখন
আমি তুমি কি করব আর, ভিন্নতার আজব সমাহার

খেলছিসনা ডাংগুলি খেলা

খেলিসনা ডাংগুলি খেলা
হাসনাবাদ
২/১/২০২১

রাহেলা ওই রাহেলা
একটু শোন,শোন নারে

যা যা খেলিশনা তুই ডাংগুলি খেলা
দেখছস নি এই পরীর মেলা আমি তাগোর রানী
উল্টাপাল্টা কথা বলবি মাইয়ার হাতের ধলাই খাবি
টানবি জেলের ঘানি, তুই টানবি জেলের ঘানি।
সখাী আয় আয় আয় তোরা ধরতো শালারে

বন্ধু আয় আয় আয় তোরা ধরতো হরিনীরে
বন্ধু আয় আয় আয়।
জেল জুলুমের খেতা পুরি,মারিস না আর জারিজুরি,আমার মামা এমপি আছে
কাউরে ডরাইনি, আমি কাউরে ডরাইনি।
বন্ধু আয় আয় আয় তোরা ধরতো হরিনীরে
বন্ধু আয় আয় আয়।

সখী আয় আয় আয় তোরা ধরতো শালারে।
আমার চাচাও মন্ত্রী রানিং, ভাবিস না তুই একাই কানিং,
এলাকার নাম শুনলে জানি,একাই খাবি দশগ্লাস পানি। শালার সাহস দেখছনি। শালার সাহস দেখছনি
সখী আয় আয় আয় তোরা ধরতো শালারে।
সখী আয় আয় আয়।

কোন জেলাতে বাড়ি তোমার কোন ক্লাসেতে উঠছ এবার
ফেসবুকেরই আইডি তোমার দাও না তোমায় বলি বারবার

তমসা ভানু হে

আবুল হোসেন //তমসা ভানু হে।।
হাসনাবাদ
০১/০১/২০২১

তমসা ভানু হে//

এসো শ্যাম সুন্দর এসো তমসা ভানু হে
আপনা গরমে আপনা মরমে সাজাও শিশুকে
সাজাও সাজাও নতুন অতিথি এসেছে দ্বারে যে।
তমসা ভানু হে।।

আজি আকাশে বাতাসে সাজো সাজো রব, পুঞ্জবনে বিহগে কলরব
সাগরে পাহাড়ে মর্তে জীব যত, শূন্য ঝুলা ঝুলিছে কতশত।
ভরিয়া লহ ভরিয়া লহ অঞ্জলি হে।
তমসা ভানু হে

তন্দ্রা হারা সমীরণ, নতুনে করিবে বরণ,
শন শন বহে ক্ষণে ক্ষণে।
তারা নিহারিকার দলে, সারিসারি চলে
বিনায় মুরজে বাজে সারেগামাপা গাহে ওই নীল গগনে।
তমসা ভানু হে

ব্যানার

আমরা বন্ধু ব্লগের জন্য যে কেউ ব্যানার করতে পারেন। ব্যানার প্রদর্শনের ব্যাপারে নির্বাচকমণ্ডলীর সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত। আকার ১০০০ x ১৫০ পিক্সেল। ইমেইল করে দিন zogazog এট আমরাবন্ধু ডট com এবং সেই সাথে ফ্লিকার থ্রেডে আপলোড করুন ফ্লিকার থ্রেড

● আজকের ব্যানার শিল্পী : নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

ব্যানারালোচনা

সপ্তাহের সেরা পাঁচ