অনুসন্ধান

ইউজার লগইন

অনলাইনে

এখন জন সদস্য ও জন অতিথি অনলাইনে

অনলাইন সদস্য

বর্ণচোরা - ২

বাইরে আসার পর থেকে সব মিলিয়ে খারাপ ঘটনার শেষ নেই। কাজে প্রায়ই শুনতে হয় বাংলাদেশীদের বদনাম। মুখ বুঝে সহ্য করি। কিন্তু মাঝে মাঝে কিছু ব্যাতিক্রমী ঘটনা চোখে পড়ে যায়। নিজের মনে হাসি আর চিন্তা করি “কৃষ্ণ করলে লীলা খেলা আমি করলে পাপ” । আমার বাসায় বাঙ্গালী আমরা তিন ভাই আর সবাই বিদেশী। এদের সাথে আছি অনেক দিন হয়। এর মাঝে ১ জন ঘানা, ১ জন নাইজেরিয়া, ৩ জন বুলগেরিয়া ও ২ জন রুমানিয়া। মহাদেশ ভিত্তিতে ওরা সংখ্যা

একজন সুবিধাবাদিনীর পক্ষ থেকে বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা

অফিসে অসম্ভব ব্যস্ত আর বিভিন্ন কারনে মানসিকভাবে পর্যুদস্ত। বেশি ব্যস্ত থাকলে যা হয় কাজ হয় না বেশি কিন্তু ব্যস্ত ব্যস্ত ভাব নিয়ে সারাক্ষন একটা অকারণ টেনশান হতে থাকে। বিভিন্ন কারনে অকারনে বিভিন্ন ওয়েবগুলোতে বেশি ক্লিক করা হয়। মন বসাতে পারি না, কি করলে ভালো লাগতো তাও জানি না। জীবন সব সময় এক রকম থাকে না জানি, কিন্তু যা যা জানি তাও সব সময় মন থেকে মেনে নিতে পারি না। মেনে নেয়ার ক্ষমতা নিয়ে আমি পৃথিবীতে আ

আজ বিজয় দিবস!

আজ আমাদের বিজয় দিবস...অনেকেই দেখলাম শুভেচ্ছা দেয়া নেয়া করতেসেন...কি লাভ এই বিজয়ের? জেইখানে রাজাকাররা ঘুরে বেরাচ্ছে সাধীন ভাবে আর আমরা চলি মাথা নিচু করে ! যতদিন ঐ রাজাকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচার না হচ্ছে ততদিন শুভেচ্ছা দেয়া নেয়া থেকে বিরত থাকব। বিজয়ের হাসি হাসব না! যাদের রক্তের বিনিময়ে আজ বাংলাদেশ আমার পরিচয় তাদের প্রতি সম্মান দেখানো তা জরুরি, আনন্দ পরে করা যাবে!

কিওয়ার্ডের কেচ্ছা

অন্তর্জালে নামে স্বনামে - বেনামে লেখালেখি করার চেস্টা করি। নিজের নামে একটা সাইটও (www.mahbub-sumon.com) আছে। যেখানেই যা কিছু লিখি তার একটা ব্যাকআপ রেখে দেই। একান্তই ব্যক্তিগত ও সংবেদশীল তথ্য ছাড়া এ সাইটে মুলত সব কিছুই লিখি। নিয়মিত Google Analytics থেকে সার্চ ট্রেন্ড লক্ষ্য করে মজা লাগে, বেশ অবাকও হই। অন্তর্জালে যারা ঘোরাঘুরি করে তারাকি শুধু সেক্সেই আসক্ত !!!

নীল থাবায় রক্তাক্ত লজ্জা

বিজয়ের মাস এলে একটা অব্যক্ত ব্যাথা জানিনা কেন জানি খামচে ধরে। আমি ভালো বক্তা নই, আবার তথাকথিত কোন রাজনৈতিক দলের অনুসারীও নই। সেজন্যই হয়তো হাত পা ছুড়ে গলা কাঁপিয়ে মাঠ গরম করা কথাবার্তা আমার গলা কিংবা আঙ্গুল দিয়ে প্রসব হয়না।

কি আছে দুনিয়ায়, কি যন্ত্রনা, আরে ধুরু

কি আছে দুনিয়ায়...
ধুরু জ্বালা!!!
ভাবলাম পিচকি একটা পোস্ট মারমু , কি কি আমার পুস্টের শৈল নাকি ছুটু :( কি আর করা :|

কি হবে "বিজয় দিবস" দিয়ে?

বছর ঘুরে আবার এলো বিজয় দিবস। ছোট বেলায় দেখতাম, পাড়ার মোড়ে দোকানে ছোট ছোট পতাকা ঝুলছে। মাইকে বাজছে বিজয়ের গান। বড় ভাইয়েরা দোকানে বসে আড্ডা দিচ্ছে আর আমরা এক কোনায় দাড়িয়ে শুনছি তারা কি বলে। সিঙ্গারা সমুচা পাওয়া যাবে-দাড়িয়ে থাকার সেটাও একটি উদ্দেশ্য ছিলো।

সব যেমন ছিল তেমনি আছে

সব যেমন ছিল তেমনি আছে
মাঝ থেকে শুধু কটা দিন চলে গেছে
কাকটা ইলেকট্রিক তারে যেমনি ঝিমাত
এখনো তেমনি দাঁড়িয়ে ঝিমায়
বুড়ো দোকানদার ঠিক আগের মতোই
ডাল চালে কঙ্কর আর পাথর মিলায়
আইয়ুব বাচ্চু এখনো তেমনি টেকো
ফেরদৌস ওয়াহিদ সানগ্লাস খুলেনিতো
তাহলে মনে কেনো হচ্ছিলো আমার
সময় যেনো থমকে গেছে কোন মোহনায়
জীবনটা হঠাৎ উলটে পালটে গেলো
যা স্বাভাবিক ছিল তা অচেনা হলো
কাছে থাকার যা ছিল তা রইলো দূরে

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চাই...

http://www.dailysangram.net/news_details.php?news_id=21571
সকালে ঘুম থেকে উঠেই এই লিঙ্কটা পেলাম। পড়ে মেজাজ প্রচণ্ড গরম হয়ে গেলো। মিথ্যার কি সীমা নাই কোনো? নাকি থাকতে নেই? বুদ্ধিজীবীদেরকে কারা বাড়ি বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়েছিলো তার প্রত্যক্ষ সাক্ষী আছে। তবু!!!

http://www.youtube.com/watch?v=tJD-hhYOyqU
আর এই লিঙ্কে গিয়ে সাঈদীর প্রলাপ শুনে স্রেফ হাসিই পেলো... তাছাড়া আর উপায় নাই...

মনসিন্দুকের এককণা

দিনের পর দিন বাসের জানালা দিয়ে ভোরের লালচে কুসুম রঙা সূর্যটাকে ঘুম ঘুম চোখে দেখতে দেখতে কবে যে ওর প্রতি মোহাচ্ছন্ন হয়ে পড়েছি নিজেই বুঝিনি। সুর্যের নানান রুপ এখনও টানে আমাকে। কষ্ট করে ঝিমিয়ে ঝিমিয়ে বাস স্ট্যান্ডে দাড়ালেও সিটে বসেই একেকদিন একেক লালগোত্রীয় রঙের, ঢঙের (থালাটা ধীরে ধীরে বৃত্তের গন্ডি ছেড়ে বেরিয়ে পড়তো) সূর্যিমামাকে দেখার জন্য আহলাদের ঘুম কোথায় যে পালাতো। ছোটবেলা সকালবেলার সাধের ঘুমের দর

বন্ধুরা কুথায়????

 সবতে আসে আর কয় আমি আইছি কন শুভেচ্ছা স্বাগতম।স্লোগান দিতে দিতে গলাডা ব্যাথা করতাছে।এককাপ চা কেউ খাওয়াইলো না।আমি যে ব্লগে আইলাম আমারে কেউ কইলো না শুভেচ্ছা স্বাগতম।কেন আমি কি ভাইসা আসছি?কেউ স্লুগান দিলো না!!!!!!!!Yell

শিরোনাম নাই !!

প্রথম পোষ্ট এই ব্লগে । গত দুই দিন ধরে কী-বোর্ড যে কিঞ্চিত লুজ করি নি তাও কিন্তু না ।
ক্যালোরির হিসেব না হয় বাদ-ই দিলাম ।
কেমন যেনো কোন কিছুতে কোন কিছু যায় আসে না টাইপের অবস্থা হয়ে দাড়িয়েছে ।

যাক শুভেচ্ছা সবাইকে !! ব্লগটা অনেক দূর এগিয়ে যাক এই কামনা !!!

আজ ১৪ই ডিসেম্বর ...

আজ ১৪ই ডিসেম্বর। বুদ্ধিজীবি দিবস। রাষ্ট্রপ্রধান , সরকার প্রধান বুদ্ধিজীবি স্মৃতি সৌধে পুষ্পস্তবক অর্পন করবেন। রাজনৈতিক দল সমূহ, বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন সমূহ পুস্পস্তবক আর্পনের মাধ্যমে তাদের শ্রদ্ধা নিবেদন করবে।

পত্রিকা সমূহ ক্রোড় পত্র প্রকাশ করবে, সেখানে আলোচনা হবে, তথ্য , তত্ত্ব নিয়ে বিশ্লেষন হবে। টেলিভিশন চ্যানেল , রেডিও বিশেষ অনুষ্ঠান, টক-শো আয়োজন করবে।

প্রাবাসী ছাত্র ডায়েরি - ১ম পর্ব

এইটা আমার বৈদেশে আগমন এবং অতঃপর এইখানে অবস্থা পর্যবেক্ষন নিয়া একখানি পুস্ট। জিয়া থেইকা শুরু করবো কারন এর আগে কি হয় মোটামুটি সব জানা আছে সবাইর।

প্রেজেন্ট স্যার

আমি রোল নং ৬৩। আপনাদের ক্লাসে আপাতত সবচেয়ে পেছনের বেঞ্চের ছাত্র। হাজিরা দিতে এলাম। প্রেজেন্ট স্যার।

আমার নাম জাবির। আমি ক্লাস ব্লগে পড়ি। আমি খুব সুন্দর নাচতে পারি। আমি কবিতাও আবৃত্তি করতে পারি। উম এছাড়া, আমি ছড়া পড়তে পারি। ছোটন ছোটন পায়রা গুলো ঝোটন বেধেছে............ Twinkle Twinkle big star .........

আচ্ছা আজকে যাই , কালকে আবার হাজিরা দিবো।

ব্যানার

আমরা বন্ধু ব্লগের জন্য যে কেউ ব্যানার করতে পারেন। ব্যানার প্রদর্শনের ব্যাপারে নির্বাচকমণ্ডলীর সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত। আকার ১০০০ x ১৫০ পিক্সেল। ইমেইল করে দিন zogazog এট আমরাবন্ধু ডট com এবং সেই সাথে ফ্লিকার থ্রেডে আপলোড করুন ফ্লিকার থ্রেড

● আজকের ব্যানার শিল্পী : নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

ব্যানারালোচনা

সপ্তাহের সেরা পাঁচ